মঙ্গলবার, ০৬ জুন ২০২৩, ২২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

সাদেক হোসেন খোকার শেষ ইচ্ছা পূরণ হবে কি?

মো: সাজেদুর রহমান : সিনিয়র রিপোর্টার :=

ঢাকার সাবেক মেয়র ও ৭১’র মুক্তিযুদ্ধের গেরিলা যোদ্ধা সাদেক হোসেন খোকা জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে। যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কের মেমোরিয়াল স্লোয়ান ক্যাটারিং ক্যানসার সেন্টারে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে রাখা হয়েছে তাকে। মৃত্যুর আগে খোকা দেশে ফিরতে চান এমন ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন স্বজনদের কাছে। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থানকালেই তার এবং স্ত্রী ইসমত আরার পাসপোর্টের মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে। নতুন করে মেয়াদ বাড়ানোর আবেদন করা হলেও তা ঝুলে আছে দীর্ঘ দিন ধরে। খোকার সংকটাপন্ন অবস্থায় তার শেষ ইচ্ছার কথা জানিয়ে আবার দূতাবাসে পাসপোর্ট নবায়নের আবেদন করা হয়েছে।
তবে দূতাবাসের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, পাসপোর্টের আবেদনের বিষয়ে কিছুই করার নেই তাদের। খোকার পরিবার যদি ট্রাভেল ডকুমেন্টের জন্য আবেদন করে তবে সেক্ষেত্রে সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছে দূতাবাস।

রোববার এক ভিডিও বার্তায় সাদেক হোসেন খোকার বড় ছেলে ইসরাক হোসেন জানিয়েছেন, তিনি তার মায়ের লেখা আবেদনপত্র নিয়ে দূতাবাসে গিয়েছিলেন।
ভিডিও বার্তায় তিনি বলেন, ‘আমাকে দূতাবাস থেকে জানানো হয়েছে যে- পাসপোর্টের আবেদনের ব্যাপারে তাদের কিছুই করার নেই। কিন্তু আমরা যদি ট্র্যাভেল ডকুমেন্টের জন্য আবেদন করি সেক্ষেত্রে তারা সহযোগিতা করবেন।’

ইসরাক জানান, ২০১৭ সালে তার বাবা-মায়ের পাসপোর্টের মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ার পর বাংলাদেশ দূতাবাসে তাদের পাসপোর্ট নবায়নের জন্য আবেদন করেন। কিন্তু আজ পর্যন্ত সেখান থেকে কোনো সদুত্তর পাননি।ইসরাক হোসেন আরও বলেছেন, পাসপোর্ট ইস্যু করতে সমস্যা কোথায়? একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা, যিনি রণাঙ্গনে অস্ত্র হাতে এই বাংলাদেশ স্বাধীন করেছেন। আমি আশা করবো যে- বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে সরকার বিবেচনা করে দেখবে।

এক ফেসবুক স্ট্যাটাসে তিনি লেখেন, আমার বাবা সাদেক হোসেন খোকা মুমূর্ষু অবস্থায় আছেন। আমরা দেশবাসীর কাছে দোয়া চাইছি।উল্লেখ্য, ২০১৪ সালের ১৪ই মে ক্যান্সার চিকিৎসার জন্য ভ্রমণ ভিসায় যুক্তরাষ্ট্রে গিয়েছিলেন সাদেক হোসেন খোকা। এরপর আর দেশে ফেরা হয়নি তার। সেখানে দীর্ঘ দিন চিকিৎসা নেয়া সাদেক হোসেন খোকার শারীরিক অবস্থা সম্প্রতি অবনতির দিকে যেতে থাকে। বর্তমানে তার ক্যান্সারের চিকিৎসা বন্ধ রেখে অক্সিজেন দিয়ে রেখেছেন চিকিৎসকরা।

খোকার শেষ ইচ্ছা পূরণের আহবান টুকুর: এদিকে বন্ধু খোকাকে নিয়ে শনিবার এক ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু। একজন মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে খোকার শেষ ইচ্ছা যেন যেন পূরণ করা হয়, সেজন্য সরকারের প্রতি আহবান জানিয়েছেন টুকু।

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

সাদেক হোসেন খোকার শেষ ইচ্ছা পূরণ হবে কি?

প্রকাশের সময় : ০৭:২৬:১৩ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৩ নভেম্বর ২০১৯
মো: সাজেদুর রহমান : সিনিয়র রিপোর্টার :=

ঢাকার সাবেক মেয়র ও ৭১’র মুক্তিযুদ্ধের গেরিলা যোদ্ধা সাদেক হোসেন খোকা জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে। যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কের মেমোরিয়াল স্লোয়ান ক্যাটারিং ক্যানসার সেন্টারে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে রাখা হয়েছে তাকে। মৃত্যুর আগে খোকা দেশে ফিরতে চান এমন ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন স্বজনদের কাছে। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থানকালেই তার এবং স্ত্রী ইসমত আরার পাসপোর্টের মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে। নতুন করে মেয়াদ বাড়ানোর আবেদন করা হলেও তা ঝুলে আছে দীর্ঘ দিন ধরে। খোকার সংকটাপন্ন অবস্থায় তার শেষ ইচ্ছার কথা জানিয়ে আবার দূতাবাসে পাসপোর্ট নবায়নের আবেদন করা হয়েছে।
তবে দূতাবাসের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, পাসপোর্টের আবেদনের বিষয়ে কিছুই করার নেই তাদের। খোকার পরিবার যদি ট্রাভেল ডকুমেন্টের জন্য আবেদন করে তবে সেক্ষেত্রে সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছে দূতাবাস।

রোববার এক ভিডিও বার্তায় সাদেক হোসেন খোকার বড় ছেলে ইসরাক হোসেন জানিয়েছেন, তিনি তার মায়ের লেখা আবেদনপত্র নিয়ে দূতাবাসে গিয়েছিলেন।
ভিডিও বার্তায় তিনি বলেন, ‘আমাকে দূতাবাস থেকে জানানো হয়েছে যে- পাসপোর্টের আবেদনের ব্যাপারে তাদের কিছুই করার নেই। কিন্তু আমরা যদি ট্র্যাভেল ডকুমেন্টের জন্য আবেদন করি সেক্ষেত্রে তারা সহযোগিতা করবেন।’

ইসরাক জানান, ২০১৭ সালে তার বাবা-মায়ের পাসপোর্টের মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ার পর বাংলাদেশ দূতাবাসে তাদের পাসপোর্ট নবায়নের জন্য আবেদন করেন। কিন্তু আজ পর্যন্ত সেখান থেকে কোনো সদুত্তর পাননি।ইসরাক হোসেন আরও বলেছেন, পাসপোর্ট ইস্যু করতে সমস্যা কোথায়? একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা, যিনি রণাঙ্গনে অস্ত্র হাতে এই বাংলাদেশ স্বাধীন করেছেন। আমি আশা করবো যে- বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে সরকার বিবেচনা করে দেখবে।

এক ফেসবুক স্ট্যাটাসে তিনি লেখেন, আমার বাবা সাদেক হোসেন খোকা মুমূর্ষু অবস্থায় আছেন। আমরা দেশবাসীর কাছে দোয়া চাইছি।উল্লেখ্য, ২০১৪ সালের ১৪ই মে ক্যান্সার চিকিৎসার জন্য ভ্রমণ ভিসায় যুক্তরাষ্ট্রে গিয়েছিলেন সাদেক হোসেন খোকা। এরপর আর দেশে ফেরা হয়নি তার। সেখানে দীর্ঘ দিন চিকিৎসা নেয়া সাদেক হোসেন খোকার শারীরিক অবস্থা সম্প্রতি অবনতির দিকে যেতে থাকে। বর্তমানে তার ক্যান্সারের চিকিৎসা বন্ধ রেখে অক্সিজেন দিয়ে রেখেছেন চিকিৎসকরা।

খোকার শেষ ইচ্ছা পূরণের আহবান টুকুর: এদিকে বন্ধু খোকাকে নিয়ে শনিবার এক ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু। একজন মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে খোকার শেষ ইচ্ছা যেন যেন পূরণ করা হয়, সেজন্য সরকারের প্রতি আহবান জানিয়েছেন টুকু।