মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বুলবুল: মোংলা-পায়রায় ৭ চট্টগ্রাম বন্দরে ৬ নম্বর বিপদ সংকেত

সাজেদুর রহমান :=

ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’র কারণে মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে সাত এবং চট্টগ্রাম বন্দরকে ছয় নম্বর বিপদ সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টায় আবহাওয়া অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য দেওয়া হয়।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, শনিবার সন্ধ্যা থেকে মধ্যরাতের মধ্যে কোনো সময়ে বাংলাদেশের উপকূলে আঘাত হানতে পারে। এ সময় সৃষ্ট জলোচ্ছ্বাসের উচ্চতা পাঁচ থেকে সাত ফুট পর্যন্ত হতে পারে। এর আগে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী মো. এনামুর রহমান শুক্রবার সন্ধ্যায় সচিবালয়ে এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান।

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড় বুলবুল ঘণ্টায় ১২৫ কিলোমিটার বেগের বাতাসের শক্তি নিয়ে ধেয়ে আসছে উপকূলের দিকে। আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, আপাতত এর গতিমুখ সুন্দরবনের দিকে।

বুলবুলের সম্ভাব্য এই হানার মুখে শুক্রবার বিকেলে সচিবালয়ে জাতীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির বৈঠক হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন প্রতিমন্ত্রী। পরে সংবাদ ব্রিফিংয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, খুলনা, সাতক্ষীরা, বাগেরহাট, বরগুনা, পটুয়াখালী, পিরোজপুর ও ভোলা জেলাকে ঝুঁকিপূর্ণ বিবেচনায় রাখা হয়েছে। সাত জেলার আশ্রয় কেন্দ্রগুলোতে লোক সরিয়ে নেওয়ার জন্য প্রস্তুতি রয়েছে। আশ্রয় কেন্দ্রগুলোয় ২০০০ প্যাকেট করে শুকনো খাবার পৌঁছে দেওয়া হয়েছে।সংবাদ ব্রিফিংয়ে মন্ত্রণালয়, বিভাগ, অধিদপ্তরসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

বুলবুল: মোংলা-পায়রায় ৭ চট্টগ্রাম বন্দরে ৬ নম্বর বিপদ সংকেত

প্রকাশের সময় : ০৯:২৫:০৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৮ নভেম্বর ২০১৯
সাজেদুর রহমান :=

ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’র কারণে মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে সাত এবং চট্টগ্রাম বন্দরকে ছয় নম্বর বিপদ সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টায় আবহাওয়া অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য দেওয়া হয়।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, শনিবার সন্ধ্যা থেকে মধ্যরাতের মধ্যে কোনো সময়ে বাংলাদেশের উপকূলে আঘাত হানতে পারে। এ সময় সৃষ্ট জলোচ্ছ্বাসের উচ্চতা পাঁচ থেকে সাত ফুট পর্যন্ত হতে পারে। এর আগে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী মো. এনামুর রহমান শুক্রবার সন্ধ্যায় সচিবালয়ে এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান।

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড় বুলবুল ঘণ্টায় ১২৫ কিলোমিটার বেগের বাতাসের শক্তি নিয়ে ধেয়ে আসছে উপকূলের দিকে। আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, আপাতত এর গতিমুখ সুন্দরবনের দিকে।

বুলবুলের সম্ভাব্য এই হানার মুখে শুক্রবার বিকেলে সচিবালয়ে জাতীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির বৈঠক হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন প্রতিমন্ত্রী। পরে সংবাদ ব্রিফিংয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, খুলনা, সাতক্ষীরা, বাগেরহাট, বরগুনা, পটুয়াখালী, পিরোজপুর ও ভোলা জেলাকে ঝুঁকিপূর্ণ বিবেচনায় রাখা হয়েছে। সাত জেলার আশ্রয় কেন্দ্রগুলোতে লোক সরিয়ে নেওয়ার জন্য প্রস্তুতি রয়েছে। আশ্রয় কেন্দ্রগুলোয় ২০০০ প্যাকেট করে শুকনো খাবার পৌঁছে দেওয়া হয়েছে।সংবাদ ব্রিফিংয়ে মন্ত্রণালয়, বিভাগ, অধিদপ্তরসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।