রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

এবার ভাঙল রবের জেএসডি

মনিরুল আলম মিশর :=

রাজনৈতিক দলের ভাঙা গড়ার খেলায় এবার ভাঙল জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা আ স ম রবের দল জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জেএসডি)। জেএসডির সাধারণ সম্পাদক আবদুল মালেক রতন রবের ডাকা কাউন্সিল বর্জন করারও ঘোষণা দিয়েছেন। তাদের অংশই আসল জেএসডি বলে দাবি করেছেন রতন। শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে আবদুল মালেক রতন বলেছেন, ‘আমরাই আসল জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জেএসডি)। এজন্যই আমরা অগণতান্ত্রিক ও অবৈধ কাউন্সিল বর্জন করে ১১ জানুয়ারি কনভেনশনের মাধ্যমে দলের অভ্যন্তরীণ গণতন্ত্র সুনিশ্চিত করব।’

রতন বলেন, ‘জেএসডি সব অন্যায় অবিচার ও জাতীয় স্বার্থবিরোধী পদক্ষেপ ও ক্রিয়াকর্মের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী দল হিসেবে পরিচিত। এ পরিচিতি অর্জন করতে কর্নেল তাহেরকে ফাঁসির মঞ্চে ঝুলতে হয়েছে। সিদ্দিক মাস্টার, অ্যাডভোকেট মোশারফ হোসেনসহ প্রায় ২৪ হাজার নেতাকর্মীকে জীবন দিতে হয়েছে। অথচ জেএসডি নেতৃত্বের একাংশ আজ মুক্তিযুদ্ধের আদর্শ-চেতনার অংশীদারিত্বের গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার রাজনীতি এবং রাজনীতিতে আপদ-বিপদ হিসেবে পরিচিত শক্তির বিরুদ্ধে তৃতীয় রাজনৈতিক শক্তি (নতুন শক্তি) গড়ে তোলার অঙ্গীকার ভুলে গিয়ে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাবিরোধী দল ও গোষ্ঠীর সঙ্গে আঁতাত করে তুলেছেন।’

জেএসডির এই নেতা বলেন, ‘এজন্যই আমরা অগণতান্ত্রিক ও অবৈধ কাউন্সিল বর্জন করে ১১ জানুয়ারি কনভেনশনের মাধ্যমে দলের অভ্যন্তরে গণতন্ত্র সুনিশ্চিত করার উদ্যোগ গ্রহণ করেছি।’

দলের ভাঙনের জন্য কে দায়ী, সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে আব্দুল মালেক রতন বলেন, ‘এই অবস্থার জন্য দলের একাংশ দায়ী। আমি যেহেতু দলের সাধারণ সম্পাদক, একটা দলের নেতৃত্বে আরেকটা অংশ থাকে। সেটা কে তা আপনারাই বুঝতে পারছেন।’সংবাদ সম্মেলনে জেএসডির সিনিয়র সহ-সভাপতি এম এ গোফরানসহ অন্যান্য নেতারা উপস্থিত ছিলেন।২০০২ সালে মূল জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জাসদ ভেঙে রবের নেতৃত্বে গঠিত হয় জেএসডি। এটি বর্তমানে নির্বাচন কমিশনের নিবন্ধিত।

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

এবার ভাঙল রবের জেএসডি

প্রকাশের সময় : ০৫:৪৫:৫২ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৩ নভেম্বর ২০১৯
মনিরুল আলম মিশর :=

রাজনৈতিক দলের ভাঙা গড়ার খেলায় এবার ভাঙল জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা আ স ম রবের দল জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জেএসডি)। জেএসডির সাধারণ সম্পাদক আবদুল মালেক রতন রবের ডাকা কাউন্সিল বর্জন করারও ঘোষণা দিয়েছেন। তাদের অংশই আসল জেএসডি বলে দাবি করেছেন রতন। শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে আবদুল মালেক রতন বলেছেন, ‘আমরাই আসল জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জেএসডি)। এজন্যই আমরা অগণতান্ত্রিক ও অবৈধ কাউন্সিল বর্জন করে ১১ জানুয়ারি কনভেনশনের মাধ্যমে দলের অভ্যন্তরীণ গণতন্ত্র সুনিশ্চিত করব।’

রতন বলেন, ‘জেএসডি সব অন্যায় অবিচার ও জাতীয় স্বার্থবিরোধী পদক্ষেপ ও ক্রিয়াকর্মের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী দল হিসেবে পরিচিত। এ পরিচিতি অর্জন করতে কর্নেল তাহেরকে ফাঁসির মঞ্চে ঝুলতে হয়েছে। সিদ্দিক মাস্টার, অ্যাডভোকেট মোশারফ হোসেনসহ প্রায় ২৪ হাজার নেতাকর্মীকে জীবন দিতে হয়েছে। অথচ জেএসডি নেতৃত্বের একাংশ আজ মুক্তিযুদ্ধের আদর্শ-চেতনার অংশীদারিত্বের গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার রাজনীতি এবং রাজনীতিতে আপদ-বিপদ হিসেবে পরিচিত শক্তির বিরুদ্ধে তৃতীয় রাজনৈতিক শক্তি (নতুন শক্তি) গড়ে তোলার অঙ্গীকার ভুলে গিয়ে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাবিরোধী দল ও গোষ্ঠীর সঙ্গে আঁতাত করে তুলেছেন।’

জেএসডির এই নেতা বলেন, ‘এজন্যই আমরা অগণতান্ত্রিক ও অবৈধ কাউন্সিল বর্জন করে ১১ জানুয়ারি কনভেনশনের মাধ্যমে দলের অভ্যন্তরে গণতন্ত্র সুনিশ্চিত করার উদ্যোগ গ্রহণ করেছি।’

দলের ভাঙনের জন্য কে দায়ী, সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে আব্দুল মালেক রতন বলেন, ‘এই অবস্থার জন্য দলের একাংশ দায়ী। আমি যেহেতু দলের সাধারণ সম্পাদক, একটা দলের নেতৃত্বে আরেকটা অংশ থাকে। সেটা কে তা আপনারাই বুঝতে পারছেন।’সংবাদ সম্মেলনে জেএসডির সিনিয়র সহ-সভাপতি এম এ গোফরানসহ অন্যান্য নেতারা উপস্থিত ছিলেন।২০০২ সালে মূল জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জাসদ ভেঙে রবের নেতৃত্বে গঠিত হয় জেএসডি। এটি বর্তমানে নির্বাচন কমিশনের নিবন্ধিত।