শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

শরীরের কোনো অংশ পুড়ে গেলে কী করবেন

রোকনুজ্জামান রিপন:=

শরীরের কোনো অংশ আগুনে পুড়ে গেলে প্রচুর ঠান্ডা পানি ঢালতে হবে (২০ মিনিট পর্যন্ত)। বার্নল ক্রিম লাগানো যেতে পারে পোড়া স্থানে। এতকিছুর পরও যদি ফোসকা পড়ে যায়, কোনো অবস্থাতেই ফোসকা ফাটানো যাবে না। আর শরীরের বড় অংশ পুড়ে গেলে কিংবা ফোসকা ফেটে ক্ষত তৈরি হলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। ঘরে কারো শরীরের কোনো অংশ পুড়ে গেলে কী করবেন! দৌড়াদৌড়ি না করে টুথপেস্ট দিয়ে ভালো করে আগুনে পুড়ে যাওয়া স্থানে প্রলেপ করে দিন। তারপর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিন। আগুনে পোড়ার চিকিৎসা সম্পর্কে কিছু তথ্য জেনে রাখা অত্যাবশ্যকীয়। তথ্যগুলো জেনে রাখলে কিংবা অন্যকে জানাতে সাহায্য করলে বেঁচে যেতে পারে আপনার বা আরো কয়েকজনের মূল্যবান জীবন।

সামান্য ঝলসে বা পুড়ে গেলে কী করবেন ** শরীরের পুড়ে যাওয়া স্থানটি অপেক্ষাকৃত ঠান্ডা রাখুন। এতে ব্যথা এবং জ্বালা-পোড়া কিছুটা উপশম হবে। স্বাভাবিক তাপমাত্রার পানিপ্রবাহে ১০ থেকে ১৫ মিনিট রাখুন, এতে প্রদাহ অনেকখানি কমে আসবে।

** কোনো ধরনের অলংকার থাকলে তা সতর্কতার সঙ্গে খুলে ফেলুন। অলংকার থাকলে তা চামড়ায় লেগে চামড়া উঠে গিয়ে সংক্রমণের সম্ভাবনা থাকবে।** ফোসকা পড়লে তা ফাটানোর চেষ্টা করবেন না। যদি ফোসকা ফেটে যায় তবে তা পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়ে বার্নল বা বার্ন ক্রিম বা অ্যান্টিবায়োটিক ক্রিমের প্রলেপ দিয়ে রাখুন। পারলে তা ননস্টিকি গজ-ব্যান্ডেজ দিয়ে মুড়ে দিন।

** ময়েশ্চারাইজিং লোশন বা অ্যালোভেরা লোশন/জেল বা লো-ডোজ হাইড্রোকর্টিসোন ক্রিম শরীরের পোড়া অংশে প্রলেপ দিয়ে রাখুন।** ব্যথার জন্য নাপ্রোক্সেন/আইব্রোফেন বা এ-জাতীয় ওষুধ রোগীকে খাইয়ে দিন।** টিটেনাস ভ্যাকসিন না নেওয়া থাকলে একটি ভ্যাকসিন দেওয়ার ব্যবস্থা করুন। আগে দেওয়া থাকলে প্রয়োজন নেই। ** ফোসকা বেশি এবং বড় হলে দ্রুত নিকটস্থ হাসপাতালে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

বেশি পুড়ে গেলে কী করবেন ** রোগীকে দ্রুত হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করুন।

হাসপাতালে নেওয়ার আগপর্যন্ত কিছু প্রাথমিক ব্যবস্থা নিতে পারেন, যেমন-** রোগীর শরীর যাতে আর কোনো ক্ষতির সম্মুখীন না হয়, সেদিকে খেয়াল রাখুন।** শরীরের পোড়া অংশে যাতে কোনো ময়লা, বালি বা সংক্রমণজাতীয় কিছু না লাগে, সেদিকে খেয়াল রাখুন।** শরীরের সঙ্গে পুড়ে যাওয়া কাপড় তোলার চেষ্টা করবেন না।** রোগীর শ্বাস-প্রশ্বাস নেওয়া, কাশি দেওয়া বা নড়াচড়া খেয়াল করুন। রোগী যাতে শকে না যায়, সেদিকে নজর রাখতে হবে।** শরীরে কোনো ধরনের জুয়েলারি বা অলংকার থাকলে তা খুব সতর্কতার সঙ্গে দ্রুত সরিয়ে ফেলুন।** কোনোভাবেই শরীরের অত্যধিক পুড়ে যাওয়া অংশে পানি লাগাবেন না। এতে শরীর তাপমাত্রা হারাবে (হাইপোথারমিয়া) বা ব্লাডপ্রেশার কমে গিয়ে রোগী শকে চলে যাবে।** শরীরের পোড়া অংশ উপরে তুলে (রোগীর হূৎপিণ্ডের উচ্চতায়) রাখতে হবে।** পরিষ্কার ভালো শুকনো কাপড় দিয়ে পোড়া অংশ হালকাভাবে ঢেকে দ্রুত হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করুন।

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

শরীরের কোনো অংশ পুড়ে গেলে কী করবেন

প্রকাশের সময় : ০৪:২৪:৪৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ৯ ডিসেম্বর ২০১৯
রোকনুজ্জামান রিপন:=

শরীরের কোনো অংশ আগুনে পুড়ে গেলে প্রচুর ঠান্ডা পানি ঢালতে হবে (২০ মিনিট পর্যন্ত)। বার্নল ক্রিম লাগানো যেতে পারে পোড়া স্থানে। এতকিছুর পরও যদি ফোসকা পড়ে যায়, কোনো অবস্থাতেই ফোসকা ফাটানো যাবে না। আর শরীরের বড় অংশ পুড়ে গেলে কিংবা ফোসকা ফেটে ক্ষত তৈরি হলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। ঘরে কারো শরীরের কোনো অংশ পুড়ে গেলে কী করবেন! দৌড়াদৌড়ি না করে টুথপেস্ট দিয়ে ভালো করে আগুনে পুড়ে যাওয়া স্থানে প্রলেপ করে দিন। তারপর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিন। আগুনে পোড়ার চিকিৎসা সম্পর্কে কিছু তথ্য জেনে রাখা অত্যাবশ্যকীয়। তথ্যগুলো জেনে রাখলে কিংবা অন্যকে জানাতে সাহায্য করলে বেঁচে যেতে পারে আপনার বা আরো কয়েকজনের মূল্যবান জীবন।

সামান্য ঝলসে বা পুড়ে গেলে কী করবেন ** শরীরের পুড়ে যাওয়া স্থানটি অপেক্ষাকৃত ঠান্ডা রাখুন। এতে ব্যথা এবং জ্বালা-পোড়া কিছুটা উপশম হবে। স্বাভাবিক তাপমাত্রার পানিপ্রবাহে ১০ থেকে ১৫ মিনিট রাখুন, এতে প্রদাহ অনেকখানি কমে আসবে।

** কোনো ধরনের অলংকার থাকলে তা সতর্কতার সঙ্গে খুলে ফেলুন। অলংকার থাকলে তা চামড়ায় লেগে চামড়া উঠে গিয়ে সংক্রমণের সম্ভাবনা থাকবে।** ফোসকা পড়লে তা ফাটানোর চেষ্টা করবেন না। যদি ফোসকা ফেটে যায় তবে তা পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়ে বার্নল বা বার্ন ক্রিম বা অ্যান্টিবায়োটিক ক্রিমের প্রলেপ দিয়ে রাখুন। পারলে তা ননস্টিকি গজ-ব্যান্ডেজ দিয়ে মুড়ে দিন।

** ময়েশ্চারাইজিং লোশন বা অ্যালোভেরা লোশন/জেল বা লো-ডোজ হাইড্রোকর্টিসোন ক্রিম শরীরের পোড়া অংশে প্রলেপ দিয়ে রাখুন।** ব্যথার জন্য নাপ্রোক্সেন/আইব্রোফেন বা এ-জাতীয় ওষুধ রোগীকে খাইয়ে দিন।** টিটেনাস ভ্যাকসিন না নেওয়া থাকলে একটি ভ্যাকসিন দেওয়ার ব্যবস্থা করুন। আগে দেওয়া থাকলে প্রয়োজন নেই। ** ফোসকা বেশি এবং বড় হলে দ্রুত নিকটস্থ হাসপাতালে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

বেশি পুড়ে গেলে কী করবেন ** রোগীকে দ্রুত হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করুন।

হাসপাতালে নেওয়ার আগপর্যন্ত কিছু প্রাথমিক ব্যবস্থা নিতে পারেন, যেমন-** রোগীর শরীর যাতে আর কোনো ক্ষতির সম্মুখীন না হয়, সেদিকে খেয়াল রাখুন।** শরীরের পোড়া অংশে যাতে কোনো ময়লা, বালি বা সংক্রমণজাতীয় কিছু না লাগে, সেদিকে খেয়াল রাখুন।** শরীরের সঙ্গে পুড়ে যাওয়া কাপড় তোলার চেষ্টা করবেন না।** রোগীর শ্বাস-প্রশ্বাস নেওয়া, কাশি দেওয়া বা নড়াচড়া খেয়াল করুন। রোগী যাতে শকে না যায়, সেদিকে নজর রাখতে হবে।** শরীরে কোনো ধরনের জুয়েলারি বা অলংকার থাকলে তা খুব সতর্কতার সঙ্গে দ্রুত সরিয়ে ফেলুন।** কোনোভাবেই শরীরের অত্যধিক পুড়ে যাওয়া অংশে পানি লাগাবেন না। এতে শরীর তাপমাত্রা হারাবে (হাইপোথারমিয়া) বা ব্লাডপ্রেশার কমে গিয়ে রোগী শকে চলে যাবে।** শরীরের পোড়া অংশ উপরে তুলে (রোগীর হূৎপিণ্ডের উচ্চতায়) রাখতে হবে।** পরিষ্কার ভালো শুকনো কাপড় দিয়ে পোড়া অংশ হালকাভাবে ঢেকে দ্রুত হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করুন।