মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৩, ১৭ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

অসমে পুলিশের গুলিতে আন্দোলনকারীর মৃত্যু, বাড়তি দায়িত্ব সেনাদের

প্রফেসর  জিন্নাত আলী := 

অগ্নিগর্ভ অসমে ঝরল রক্ত। পুলিসের গুলিতে গুয়াহাটির লাসিত নগরে একজনের মৃত্যুর খবর মিলেছে। জানা গিয়েছে, আন্দোলনকারীদের নিয়ন্ত্রণে আনতে গুলি ছোড়ে পুলিস। তখনই গুলিবিদ্ধ হন দিপাজ্জল দাস নামে এক আন্দোলনকারী। গুয়াহাটি মেডিক্যাল কলেজে নিয়ে যাওয়ার পথে মৃত্যু হয় তাঁর। মৃত দিপাজ্জল দাসের বাড়ি অসমের ছয়গ্রামে। গুয়াহাটির সৈনিক ভবনের ক্যান্টিনের কর্মী দিপাজ্জল।

এই পরিস্থিততে অগ্নিগর্ভ অসমের আইন-শৃঙ্খলার বাড়তি দায়িত্ব দেওয়া হল সেনাকে। গুয়াহাটির ইউনিফাইড কমান্ডারের বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। একইসঙ্গে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে বেশ কয়েকটি জেলার পুলিস সুপারকে। ওদালগুড়ি, শোণিতপুর, ডিব্রুগড়, ডিমহাসও সহ আরও কয়েকটি জেলার পুলিস সুপারদের সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। এর পাশাপাশি গুয়াহাটিতে জারি করা হয়েছে অনির্দিষ্টকালের কারফিউ। শিবসাগরেও জারি অনির্দিষ্টকালের কারফিউ।

উল্লেখ্য, কিছু আগেই গুয়াহাটির পুলিস কমিশনারের পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে দীপক কুমারকে। তাঁর জায়গায় নিয়ে আসা হয়েছে মুন্না প্রসাদ গুপ্তাকে। প্রশাসন সূত্রে খবর, বদলি করা হচ্ছে আরও ৪ ডেপুটি কমিশনারকেও। একইসঙ্গে পরিস্থিতি সামাল দিতে NIA-র IGP জিপি সিং-কে অসম পুলিসের ADGP পদে নিয়ে আসা হয়েছে।

নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পাস হওয়ার পর থেকেই জ্বলছে অসম। হিংসা থামার কোনও লক্ষ্মণই নেই। কারফিউ জারি রয়েছে। কিন্তু কারফিউকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে পথে নেমেছে হাজার হাজার মানুষ। ১০ জেলায় বন্ধ রয়েছে ইন্টারনেট। বাস জ্বালিয়ে দিয়েছে বিক্ষোভকারীরা। সবমিলিয়ে অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতি। কিছু আগে ফের ট্রাক জ্বালিয়ে দেন বিক্ষোভকারীরা। বিপর্যস্ত ট্রেন ও বিমান পরিষেবা।

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

দীর্ঘ ২৪ বছর পর একই মঞ্চে লতিফ সিদ্দিকী ও কাদের সিদ্দিকী

রাহুল-আথিয়া সাত পাকে বাঁধা পড়লেন

বেনাপোল নোম্যান্সল্যান্ডে বসবে দুই বাংলার ভাষা প্রেমীদের মিলন মেলা -শেখ আফিল উদ্দিন, এমপি

অসমে পুলিশের গুলিতে আন্দোলনকারীর মৃত্যু, বাড়তি দায়িত্ব সেনাদের

প্রকাশের সময় : ০৭:৪১:৫৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৯
প্রফেসর  জিন্নাত আলী := 

অগ্নিগর্ভ অসমে ঝরল রক্ত। পুলিসের গুলিতে গুয়াহাটির লাসিত নগরে একজনের মৃত্যুর খবর মিলেছে। জানা গিয়েছে, আন্দোলনকারীদের নিয়ন্ত্রণে আনতে গুলি ছোড়ে পুলিস। তখনই গুলিবিদ্ধ হন দিপাজ্জল দাস নামে এক আন্দোলনকারী। গুয়াহাটি মেডিক্যাল কলেজে নিয়ে যাওয়ার পথে মৃত্যু হয় তাঁর। মৃত দিপাজ্জল দাসের বাড়ি অসমের ছয়গ্রামে। গুয়াহাটির সৈনিক ভবনের ক্যান্টিনের কর্মী দিপাজ্জল।

এই পরিস্থিততে অগ্নিগর্ভ অসমের আইন-শৃঙ্খলার বাড়তি দায়িত্ব দেওয়া হল সেনাকে। গুয়াহাটির ইউনিফাইড কমান্ডারের বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। একইসঙ্গে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে বেশ কয়েকটি জেলার পুলিস সুপারকে। ওদালগুড়ি, শোণিতপুর, ডিব্রুগড়, ডিমহাসও সহ আরও কয়েকটি জেলার পুলিস সুপারদের সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। এর পাশাপাশি গুয়াহাটিতে জারি করা হয়েছে অনির্দিষ্টকালের কারফিউ। শিবসাগরেও জারি অনির্দিষ্টকালের কারফিউ।

উল্লেখ্য, কিছু আগেই গুয়াহাটির পুলিস কমিশনারের পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে দীপক কুমারকে। তাঁর জায়গায় নিয়ে আসা হয়েছে মুন্না প্রসাদ গুপ্তাকে। প্রশাসন সূত্রে খবর, বদলি করা হচ্ছে আরও ৪ ডেপুটি কমিশনারকেও। একইসঙ্গে পরিস্থিতি সামাল দিতে NIA-র IGP জিপি সিং-কে অসম পুলিসের ADGP পদে নিয়ে আসা হয়েছে।

নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পাস হওয়ার পর থেকেই জ্বলছে অসম। হিংসা থামার কোনও লক্ষ্মণই নেই। কারফিউ জারি রয়েছে। কিন্তু কারফিউকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে পথে নেমেছে হাজার হাজার মানুষ। ১০ জেলায় বন্ধ রয়েছে ইন্টারনেট। বাস জ্বালিয়ে দিয়েছে বিক্ষোভকারীরা। সবমিলিয়ে অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতি। কিছু আগে ফের ট্রাক জ্বালিয়ে দেন বিক্ষোভকারীরা। বিপর্যস্ত ট্রেন ও বিমান পরিষেবা।