সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জমি নিয়ে বিরোধে শাবলের আঘাতে যুবক নিহত

যশোর ব্যুরো :=

যশোরে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষের শাবলের আঘাতে আবদুর রহমান (৪২) নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন। শনিবার সকাল ৮টার দিকে শহরের বারান্দি মোল্লাপাড়া আমতলা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত আবদুর রহমান মোল্লাপাড়া আমতলা টাওয়ার মোড়ের হাবিবুর রহমানের ছেলে। তিনি ফেরি করে কসমেটিস সামগ্রি বিক্রি করতেন।

নিহতের ভায়রা জাকির হোসেন জানান, শহরের বারান্দি মোল্লাপাড়া টাওয়ারমোড় এলাকায় আবদুর রহমানের জমির পাশে আবদুল কুদ্দুস ওরফে মেঠে কুদ্দুসের জমি আছে। কুদ্দুস জোরপূর্বক আবদুর রহমানের জমি দখলের চেষ্টা করেছিলেন। এ নিয়ে তাদের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে দ্বন্দ্ব ছিল। শনিবার সকালে আবদুর রহমান বাইসাইকেলে শহরের বড়বাজারে উদ্দেশ্যে বের হন।

তার বাড়ির সামনে গতিরোধ করে আবদুর রহমানের মাথায় শাবল দিয়ে আঘাত করেন কুদ্দুস ও তার সহযোগীরা। গুরুতর অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতালে নেয়ার আগেই তার মৃত্যু হয়।

কোতয়ালি থানার ওসি মনিরুজ্জামান বলেন, জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরেই এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে বলে জানতে পেরেছি। এ ঘটনায় জড়িত কেউ আটক হয়নি।

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

জমি নিয়ে বিরোধে শাবলের আঘাতে যুবক নিহত

প্রকাশের সময় : ০৩:৩৮:০০ অপরাহ্ন, শনিবার, ২১ ডিসেম্বর ২০১৯

যশোর ব্যুরো :=

যশোরে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষের শাবলের আঘাতে আবদুর রহমান (৪২) নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন। শনিবার সকাল ৮টার দিকে শহরের বারান্দি মোল্লাপাড়া আমতলা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত আবদুর রহমান মোল্লাপাড়া আমতলা টাওয়ার মোড়ের হাবিবুর রহমানের ছেলে। তিনি ফেরি করে কসমেটিস সামগ্রি বিক্রি করতেন।

নিহতের ভায়রা জাকির হোসেন জানান, শহরের বারান্দি মোল্লাপাড়া টাওয়ারমোড় এলাকায় আবদুর রহমানের জমির পাশে আবদুল কুদ্দুস ওরফে মেঠে কুদ্দুসের জমি আছে। কুদ্দুস জোরপূর্বক আবদুর রহমানের জমি দখলের চেষ্টা করেছিলেন। এ নিয়ে তাদের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে দ্বন্দ্ব ছিল। শনিবার সকালে আবদুর রহমান বাইসাইকেলে শহরের বড়বাজারে উদ্দেশ্যে বের হন।

তার বাড়ির সামনে গতিরোধ করে আবদুর রহমানের মাথায় শাবল দিয়ে আঘাত করেন কুদ্দুস ও তার সহযোগীরা। গুরুতর অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতালে নেয়ার আগেই তার মৃত্যু হয়।

কোতয়ালি থানার ওসি মনিরুজ্জামান বলেন, জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরেই এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে বলে জানতে পেরেছি। এ ঘটনায় জড়িত কেউ আটক হয়নি।