শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

সূর্যের দেখা পেতে আরও তিন দিন

মো: ইদ্রিস  আলী :=

তীব্র শীতে নাকাল সারা দেশের মানুষ। কয়েক দিন ধরে বইছে শৈত্যপ্রবাহ। বেড়েছে শীতের তীব্রতা। সারা দিনে সূর্যের দেখা মিলছে না কোথাও। দিনমনির দেখা পেতে অপেক্ষা করতে হবে আরও দিন তিনেক। আগামী মঙ্গলবার একটু উঁকি দিতে পারে সূর্য। আবহাওয়া অফিসের এই পূর্বাভাসে আছে বৃষ্টির কথাও। তবে এই বৃষ্টি আকাশ আর চারপাশ ঢেকে রাখা কুয়াশার চাদর তাড়াবে। তাতে কমতে পারে শীতের তীব্রতা। শনিবার সন্ধ্যায় আবহাওয়াবিদ বজলুর রশীদ ঢাকা টাইমসকে বলেন, মঙ্গলবারের দিকে সূর্যের আলো দেখা যেতে পারে। তখন সূর্যের আলোয় বাড়বে তাপমাত্রা। শীতের কষ্ট কমে আসবে।

আগামী ২৫-২৬ ডিসেম্বরের দিকে উত্তরাঞ্চল ও খুলনার দিকে হালকা বৃষ্টির সম্ভাবনার কথা জানিয়ে বজলুর রশীদ বলেন, ‘খুব বেশি না, অল্প বৃষ্টি হতে পারে। তবে সেটা  উপকার হবে। কুয়াশা কেটে যাবে। মানুষ স্বস্তি পাবে।’ তবে ঢাকায় বৃষ্টির সম্ভাবনা নেই বলে জানান তিনি। ডিসেম্বরের শেষের কয়েক দিন স্বস্তি দিয়ে আবার জানুয়ারির শুরুর দিকে আর একটি শৈতপ্রবাহ বিভিন্ন অঞ্চলের ওপর দিয়ে বয়ে যেতে পারে বলে জানান এই আবহাওয়াবিদ।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের তথ্যমতে, শনিবার সারা দেশে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ফরিদপুরে ১০ দশমিক ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস। পার্শ্ববর্তী মাদারীপুরে ১০ দশমিক ৪ ডিগ্রি, গোপালগঞ্জে ১০ দশমিক ৫ ডিগ্রি, ঢাকায় ১২ দশমিক ২ ডিগ্রি, টাঙ্গাইলে ১১ দশমিক ৬ ডিগ্রি, কিশোরগঞ্জের নিকলিতে ১৩ ডিগ্রি, ময়মনসিংহে ১২ দশমিক ৫ ডিগ্রি, নেত্রকোনায় ১৯ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

এদিকে শনিবার সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, উপ-মহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয়ের বর্ধিতাংশ পশ্চিমবঙ্গ ও তৎসংলগ্ন বাংলাদেশের পশ্চিমাঞ্চল পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। মৌসুমের স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। এদিন আংশিক মেঘলা আকাশসহ সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে। মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি থেকে ঘন কুয়াশা পড়তে পারে। সারাদেশে রাত এবং দিনের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।আবহাওয়া অধিদপ্তর বলছে, আগামী তিন দিনে দেশে রাত ও দিনের তাপমাত্রা বৃদ্ধি পেতে পারে।

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

সূর্যের দেখা পেতে আরও তিন দিন

প্রকাশের সময় : ০৯:৫৭:০৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ২১ ডিসেম্বর ২০১৯
মো: ইদ্রিস  আলী :=

তীব্র শীতে নাকাল সারা দেশের মানুষ। কয়েক দিন ধরে বইছে শৈত্যপ্রবাহ। বেড়েছে শীতের তীব্রতা। সারা দিনে সূর্যের দেখা মিলছে না কোথাও। দিনমনির দেখা পেতে অপেক্ষা করতে হবে আরও দিন তিনেক। আগামী মঙ্গলবার একটু উঁকি দিতে পারে সূর্য। আবহাওয়া অফিসের এই পূর্বাভাসে আছে বৃষ্টির কথাও। তবে এই বৃষ্টি আকাশ আর চারপাশ ঢেকে রাখা কুয়াশার চাদর তাড়াবে। তাতে কমতে পারে শীতের তীব্রতা। শনিবার সন্ধ্যায় আবহাওয়াবিদ বজলুর রশীদ ঢাকা টাইমসকে বলেন, মঙ্গলবারের দিকে সূর্যের আলো দেখা যেতে পারে। তখন সূর্যের আলোয় বাড়বে তাপমাত্রা। শীতের কষ্ট কমে আসবে।

আগামী ২৫-২৬ ডিসেম্বরের দিকে উত্তরাঞ্চল ও খুলনার দিকে হালকা বৃষ্টির সম্ভাবনার কথা জানিয়ে বজলুর রশীদ বলেন, ‘খুব বেশি না, অল্প বৃষ্টি হতে পারে। তবে সেটা  উপকার হবে। কুয়াশা কেটে যাবে। মানুষ স্বস্তি পাবে।’ তবে ঢাকায় বৃষ্টির সম্ভাবনা নেই বলে জানান তিনি। ডিসেম্বরের শেষের কয়েক দিন স্বস্তি দিয়ে আবার জানুয়ারির শুরুর দিকে আর একটি শৈতপ্রবাহ বিভিন্ন অঞ্চলের ওপর দিয়ে বয়ে যেতে পারে বলে জানান এই আবহাওয়াবিদ।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের তথ্যমতে, শনিবার সারা দেশে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ফরিদপুরে ১০ দশমিক ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস। পার্শ্ববর্তী মাদারীপুরে ১০ দশমিক ৪ ডিগ্রি, গোপালগঞ্জে ১০ দশমিক ৫ ডিগ্রি, ঢাকায় ১২ দশমিক ২ ডিগ্রি, টাঙ্গাইলে ১১ দশমিক ৬ ডিগ্রি, কিশোরগঞ্জের নিকলিতে ১৩ ডিগ্রি, ময়মনসিংহে ১২ দশমিক ৫ ডিগ্রি, নেত্রকোনায় ১৯ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

এদিকে শনিবার সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, উপ-মহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয়ের বর্ধিতাংশ পশ্চিমবঙ্গ ও তৎসংলগ্ন বাংলাদেশের পশ্চিমাঞ্চল পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। মৌসুমের স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। এদিন আংশিক মেঘলা আকাশসহ সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে। মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি থেকে ঘন কুয়াশা পড়তে পারে। সারাদেশে রাত এবং দিনের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।আবহাওয়া অধিদপ্তর বলছে, আগামী তিন দিনে দেশে রাত ও দিনের তাপমাত্রা বৃদ্ধি পেতে পারে।