রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন প্রত্যাহার না করলে অমিত শাহকে কোলকাতায় পা রাখতে দেয়া হবে না –সিদ্দিকুল্লা চৌধুরী

কালিপদ দাস : কোলকাতা ব্যুরো:=

অবিলম্বে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন (সিএএ) প্রত্যাহার না করা হলে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে কলকাতা বিমানবন্দরের বাইরে বের হতে দেবেন না বলে জানিয়ে দিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের শিক্ষামন্ত্রী সিদ্দিকুল্লা চৌধুরী। রোববার রানি রাসমনি রোডে জমিয়তে উলেমা হিন্দের এক জনসভায় তিনি এ কথা বলেন। সিদ্দিকুল্লা বলেন, আমরা ওনাকে (অমিত শাহ) প্রয়োজনে শহরের বিমানবন্দরের বাইরে বের হতে দেব না। ওনাকে থামাতে এক লাখ মানুষকে জড়ো করব। আমাদের লড়াই গণতান্ত্রিক ও শান্তিপূর্ণ। হিংসায় বিশ্বাস করি না। কিন্তু আমরা সিএএ ও এনআরসির প্রতিবাদ করব। খবর এনডিটিভির। বিজেপিকে মানুষ প্রত্যাখ্যান করেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ছাপান্ন ইঞ্চি ছাতির প্রধানমন্ত্রী গোটা দেশের মানুষকে পথে নামিয়েছেন। ঘৃণা ও বিভেদের রাজনীতি দিয়ে দেশকে ভাগ করতে চাইছেন।

তিনি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে চ্যালেঞ্জ দিয়ে বলেন, দেখুন ওরা কীভাবে একটার পর একটা সিদ্ধান্ত মানুষের ঘাড়ে চাপিয়ে দিচ্ছেন। ওরা আলোচনা, সমঝোতায় বিশ্বাসী নয়। আমরা এটা কিছুতেই চলতে দেব না।

এ সময় রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে পথে নেমে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরোধিতা করার জন্য ধন্যবাদ জানিয়েছেন। ভারতীয় গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সিএএ ও এনআরসি বিরোধী আন্দোলনে পুলিশ-জনতা সংঘর্ষে অন্তত ২০ জনের বেশি নিহত হয়েছেন। দেশের একাধিক মেট্রো শহরে দিনের একটা নির্দিষ্ট সময় বন্ধ রাখা হচ্ছে ইন্টারনেট। তাতেও কমছে না নাগরিক আন্দোলন।

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন প্রত্যাহার না করলে অমিত শাহকে কোলকাতায় পা রাখতে দেয়া হবে না –সিদ্দিকুল্লা চৌধুরী

প্রকাশের সময় : ০৯:১৫:৩৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ২২ ডিসেম্বর ২০১৯
কালিপদ দাস : কোলকাতা ব্যুরো:=

অবিলম্বে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন (সিএএ) প্রত্যাহার না করা হলে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে কলকাতা বিমানবন্দরের বাইরে বের হতে দেবেন না বলে জানিয়ে দিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের শিক্ষামন্ত্রী সিদ্দিকুল্লা চৌধুরী। রোববার রানি রাসমনি রোডে জমিয়তে উলেমা হিন্দের এক জনসভায় তিনি এ কথা বলেন। সিদ্দিকুল্লা বলেন, আমরা ওনাকে (অমিত শাহ) প্রয়োজনে শহরের বিমানবন্দরের বাইরে বের হতে দেব না। ওনাকে থামাতে এক লাখ মানুষকে জড়ো করব। আমাদের লড়াই গণতান্ত্রিক ও শান্তিপূর্ণ। হিংসায় বিশ্বাস করি না। কিন্তু আমরা সিএএ ও এনআরসির প্রতিবাদ করব। খবর এনডিটিভির। বিজেপিকে মানুষ প্রত্যাখ্যান করেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ছাপান্ন ইঞ্চি ছাতির প্রধানমন্ত্রী গোটা দেশের মানুষকে পথে নামিয়েছেন। ঘৃণা ও বিভেদের রাজনীতি দিয়ে দেশকে ভাগ করতে চাইছেন।

তিনি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে চ্যালেঞ্জ দিয়ে বলেন, দেখুন ওরা কীভাবে একটার পর একটা সিদ্ধান্ত মানুষের ঘাড়ে চাপিয়ে দিচ্ছেন। ওরা আলোচনা, সমঝোতায় বিশ্বাসী নয়। আমরা এটা কিছুতেই চলতে দেব না।

এ সময় রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে পথে নেমে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরোধিতা করার জন্য ধন্যবাদ জানিয়েছেন। ভারতীয় গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সিএএ ও এনআরসি বিরোধী আন্দোলনে পুলিশ-জনতা সংঘর্ষে অন্তত ২০ জনের বেশি নিহত হয়েছেন। দেশের একাধিক মেট্রো শহরে দিনের একটা নির্দিষ্ট সময় বন্ধ রাখা হচ্ছে ইন্টারনেট। তাতেও কমছে না নাগরিক আন্দোলন।