রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

১২ ঘণ্টা ফেরি বন্ধ: দৌলতদিয়ায় নদীপারের অপেক্ষায় সহস্রাধিক যানবাহন

রোকনুজ্জামান রিপন: ঢাকা থেকে :=

ঘন কুয়াশার কারণে দক্ষিণাঞ্চলের গুরুত্বপূর্ণ নৌপথ দৌলতদিয়া-পাটুরিয়ায় নৌযান চলাচল মারাত্মকভাবে ব্যাহত হচ্ছে। এতে ভোগান্তিতে পড়ছে হাজার হাজার যাত্রী ও চালক। দেশের গুরুত্বপূর্ণ এই নৌপথে বুধবারও অন্তত ১২ ঘণ্টা বন্ধ ছিল ফেরি সার্ভিস।

বিআইডব্লিউটিসি দৌলতদিয়া কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার রাত সোয়া ১০টার দিকে কুয়াশার ঘনত্ব বেড়ে গিয়ে নৌযান চলাচল ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়ে। এতে ঘাট কর্তৃপক্ষ ঝুঁকি এড়াতে ফেরি চলাচল বন্ধ ঘোষণা করে। বুধবার সকাল ৯টায় কুয়াশা কমে গেলে ফেরি চলাচল শুরু হয়। এর ঠিক ১০ মিনিট পরে আবার কুয়াশার কারণে ফেরি চলাচল বন্ধ রাখতে বাধ্য হয় কর্তৃপক্ষ। পরে বেলা ১১টার দিকে পুনরায় ফেরি চলাচল স্বাভাবিক হয়।

বুধবার বিকালে সরেজমিনে দৌলতদিয়া ঘাটে গিয়ে দেখা যায়, ফেরি চলাচল স্বাভাবিক থাকলেও ১২ ঘণ্টা ফেরি বন্ধের রেশ কাটেনি। দৌলতদিয়া জিরো পয়েন্ট থেকে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের গোয়ালন্দ ফিড-মিল পর্যন্ত সাড়ে চার কিলোমিটার এলাকা পর্যন্ত যাত্রীবাহী বাস ফেরির নাগাল পেতে অপেক্ষা করছে। এছাড়াও রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ মোড় থেকে শহরের আহলাদিপুর পর্যন্ত আরও ৬ কিলোমিটার এলাকায় এক সারিতে আটকে আছে পণ্যবাহী ট্রাক ও কাভার্ড ভ্যান।

বিআইডব্লিটিসি দৌলতদিয়া ঘাটের সহকারী ব্যবস্থাপক রুহুল আমীন জানান, কুয়াশা প্রাকৃতিক দুর্যোগ। এতে কারো হাত নেই। বেশ কয়েকদিন ধরে ঘন কুয়াশায় ফেরি পারাপার ব্যাহত হচ্ছে। এতে কমে গেছে ফেরির টিপ সংখ্যা। তবে কুয়াশা কেটে গেলে আবার ফেরি চলাচল স্বাভাবিক হয়।

তিনি আরও জানান, মানুষের কষ্টের কথা ভেবে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে যাত্রীবাহী বাস ও পচনশীল পণ্যের ট্রাক পারাপার করা হয়।

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

১২ ঘণ্টা ফেরি বন্ধ: দৌলতদিয়ায় নদীপারের অপেক্ষায় সহস্রাধিক যানবাহন

প্রকাশের সময় : ১০:০২:৪১ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৫ ডিসেম্বর ২০১৯
রোকনুজ্জামান রিপন: ঢাকা থেকে :=

ঘন কুয়াশার কারণে দক্ষিণাঞ্চলের গুরুত্বপূর্ণ নৌপথ দৌলতদিয়া-পাটুরিয়ায় নৌযান চলাচল মারাত্মকভাবে ব্যাহত হচ্ছে। এতে ভোগান্তিতে পড়ছে হাজার হাজার যাত্রী ও চালক। দেশের গুরুত্বপূর্ণ এই নৌপথে বুধবারও অন্তত ১২ ঘণ্টা বন্ধ ছিল ফেরি সার্ভিস।

বিআইডব্লিউটিসি দৌলতদিয়া কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার রাত সোয়া ১০টার দিকে কুয়াশার ঘনত্ব বেড়ে গিয়ে নৌযান চলাচল ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়ে। এতে ঘাট কর্তৃপক্ষ ঝুঁকি এড়াতে ফেরি চলাচল বন্ধ ঘোষণা করে। বুধবার সকাল ৯টায় কুয়াশা কমে গেলে ফেরি চলাচল শুরু হয়। এর ঠিক ১০ মিনিট পরে আবার কুয়াশার কারণে ফেরি চলাচল বন্ধ রাখতে বাধ্য হয় কর্তৃপক্ষ। পরে বেলা ১১টার দিকে পুনরায় ফেরি চলাচল স্বাভাবিক হয়।

বুধবার বিকালে সরেজমিনে দৌলতদিয়া ঘাটে গিয়ে দেখা যায়, ফেরি চলাচল স্বাভাবিক থাকলেও ১২ ঘণ্টা ফেরি বন্ধের রেশ কাটেনি। দৌলতদিয়া জিরো পয়েন্ট থেকে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের গোয়ালন্দ ফিড-মিল পর্যন্ত সাড়ে চার কিলোমিটার এলাকা পর্যন্ত যাত্রীবাহী বাস ফেরির নাগাল পেতে অপেক্ষা করছে। এছাড়াও রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ মোড় থেকে শহরের আহলাদিপুর পর্যন্ত আরও ৬ কিলোমিটার এলাকায় এক সারিতে আটকে আছে পণ্যবাহী ট্রাক ও কাভার্ড ভ্যান।

বিআইডব্লিটিসি দৌলতদিয়া ঘাটের সহকারী ব্যবস্থাপক রুহুল আমীন জানান, কুয়াশা প্রাকৃতিক দুর্যোগ। এতে কারো হাত নেই। বেশ কয়েকদিন ধরে ঘন কুয়াশায় ফেরি পারাপার ব্যাহত হচ্ছে। এতে কমে গেছে ফেরির টিপ সংখ্যা। তবে কুয়াশা কেটে গেলে আবার ফেরি চলাচল স্বাভাবিক হয়।

তিনি আরও জানান, মানুষের কষ্টের কথা ভেবে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে যাত্রীবাহী বাস ও পচনশীল পণ্যের ট্রাক পারাপার করা হয়।