মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

করোনা ভাইরাস: বন্ধ হয়ে গেলো বিশ্বের সর্ববৃহৎ গাড়ির কারখানা

মো: ইদ্রিস আলী :=

করোনা ভাইরাসের কারণে চীন থেকে যন্ত্রাংশ না আসায় দক্ষিণ কোরিয়ার উলসানে অবস্থিত বিশ্বের সর্ববৃহৎ গাড়ির কারখানা বন্ধ করে দিলো হুন্দাই। বিশ্লেষকরা বলছে, হুন্দাইয়ের গাড়ি কারখানা বন্ধ হওয়ার প্রভাব সারা বিশ্বেই পড়বে।

বার্তা সংস্থা এএফপি’র প্রতিবেদনে বলা হয়, দক্ষিণ কোরিয়ার উলসানে বন্ধ করে দেয়া গাড়ির কারখানা থেকে বছরে প্রায় ১৪ লাখ গাড়ি তৈরি করা হত ।

উলসানের হুন্দাই কারখানায় কাজ করা পার্ক নামের একজন জানান, এটা লজ্জার যে আমি কাজে আসতে পারছি না আর কম বেতন নিতে হচ্ছে।এটা খুবই অস্বস্তির ব্যাপার।

এই বিষয়ে কোরিয়ার ইনহা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতির অধ্যক্ষ চিয়ং ইন কিয়ো বলেন, সবচেয়ে বড় সমস্যা হচ্ছে আমরা জানিনা কবে এ ভাইরাস থেকে চীন রক্ষা পাবে। দক্ষিণ কোরিয়া কোম্পানিগুলো চীনের যন্ত্রাংশের ওপর অনেক নির্ভরশীল।

গত ডিসেম্বরে চীনের উহান শহরে করোনাভাইরাসের আবির্ভাব ঘটে। প্রতিনিয়ত এই ভাইরাসে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। এছাড়া বিশ্বের প্রায় ২৫ টি দেশে করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। প্রাণঘাতী এ ভাইরাসে এখন পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা ৭২২ জন বলে জানিয়েছে চীন সরকার। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের শরীরে প্রাথমিক লক্ষণ হিসেবে শ্বাসকষ্ট, জ্বর, সর্দি, কাশির মত সমস্যা দেখা দেয়।

 

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

করোনা ভাইরাস: বন্ধ হয়ে গেলো বিশ্বের সর্ববৃহৎ গাড়ির কারখানা

প্রকাশের সময় : ০৫:৫৮:৫৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ৮ ফেব্রুয়ারী ২০২০
মো: ইদ্রিস আলী :=

করোনা ভাইরাসের কারণে চীন থেকে যন্ত্রাংশ না আসায় দক্ষিণ কোরিয়ার উলসানে অবস্থিত বিশ্বের সর্ববৃহৎ গাড়ির কারখানা বন্ধ করে দিলো হুন্দাই। বিশ্লেষকরা বলছে, হুন্দাইয়ের গাড়ি কারখানা বন্ধ হওয়ার প্রভাব সারা বিশ্বেই পড়বে।

বার্তা সংস্থা এএফপি’র প্রতিবেদনে বলা হয়, দক্ষিণ কোরিয়ার উলসানে বন্ধ করে দেয়া গাড়ির কারখানা থেকে বছরে প্রায় ১৪ লাখ গাড়ি তৈরি করা হত ।

উলসানের হুন্দাই কারখানায় কাজ করা পার্ক নামের একজন জানান, এটা লজ্জার যে আমি কাজে আসতে পারছি না আর কম বেতন নিতে হচ্ছে।এটা খুবই অস্বস্তির ব্যাপার।

এই বিষয়ে কোরিয়ার ইনহা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতির অধ্যক্ষ চিয়ং ইন কিয়ো বলেন, সবচেয়ে বড় সমস্যা হচ্ছে আমরা জানিনা কবে এ ভাইরাস থেকে চীন রক্ষা পাবে। দক্ষিণ কোরিয়া কোম্পানিগুলো চীনের যন্ত্রাংশের ওপর অনেক নির্ভরশীল।

গত ডিসেম্বরে চীনের উহান শহরে করোনাভাইরাসের আবির্ভাব ঘটে। প্রতিনিয়ত এই ভাইরাসে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। এছাড়া বিশ্বের প্রায় ২৫ টি দেশে করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। প্রাণঘাতী এ ভাইরাসে এখন পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা ৭২২ জন বলে জানিয়েছে চীন সরকার। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের শরীরে প্রাথমিক লক্ষণ হিসেবে শ্বাসকষ্ট, জ্বর, সর্দি, কাশির মত সমস্যা দেখা দেয়।