বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ভোলায় যুবতীকে রাতভর গণধর্ষন,পাঁচ বখাটে গ্রেপ্তার

কামরুজ্জামান শাহীন,ভোলা॥
ভোলার চরফ্যাশন উপজেলার দক্ষিণ আইচা থানার কুকরী মুকরী নারিকেল বাগানে নিয়ে গিয়ে ২২ বছরের এক যুুবতীকে গণধর্ষন করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গণধর্ষন অভিযোগে ৫ বখাটেকে আটক করেছে কোস্টগার্ড।
রবিবার(৯ফ্রেব্রুয়ারী) ভোর সাড়ে ৪টার দিকে কোস্টগার্ড কুকরী মুকরী নারিকেল বাগানের অদূরে বুড়াগৌরাঙ্গ নদীতে একটি ভাসমান ট্রলার থেকে যুবতী সহ ৫জনকে আটক করে। পরে সকাল ৬টার দিকে ৫জনকে কোস্ট গার্ড দক্ষিণ আইচা থানায় সোর্পদ করে।
ধর্ষণের শিকার যুবতী বাদী হয়ে অভিযুক্ত ৫জনকে আসামী করে দক্ষিণ আইচা থানায় একটি নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে গণধর্ষণের মামলা দায়ের করেন।
আটককৃতরা হলেন-দণি আইচা থানার চরমানিকা ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের খলিল মিয়ার ছেলে ইউছুফ হাসান সর্দার (২১), ৫নং ওয়ার্ডের হাকিম দিদারে ছেলে সোহেল রানা দিদার (২০), চরমানিকা ৩নং ওয়ার্ডের মোকাম্মেল সিকদারের ছেলে ওয়াসেল আহমেদ সিকদার ( ২২), চর ৪নং ওয়ার্ডের কচ্ছপিয়া গ্রামের আবুল কাশেম হাং ছেলে মোর্শেদ হাং (৩৫) ও একই গ্রামের ইসমাইল ফকিরের ছেলে রিপন ফকির (২০)কে ভিক্টিম কিশোরীসহ আটক করে।
দক্ষিণ আইচা থানার উপ-পরির্দশক(এসআই) বিকাশ জানান, শনিবার চরকচ্ছপিয়া থেকে তিন যুবক এক যুবতীকে স্পীড র্বোডে করে চরকুকরী মুকরী দৃষ্টিনন্দন পর্যটন এলাকা নারিকেল বাগানে নিয়ে যায়। সেখানে বিকাল সাড়ে ৫টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত রেখে যুবতীকে গণধর্ষণ করা হয়। সেখান তাদের সাথে আরো দুই যুবক একত্রিত হয়ে রাতে একটি ট্রলার ভাড়া করে কচ্ছপিয়া আসার সময় ট্রলার জালে আটকে যায়। এতে ৫যুবক মিলে আবার যুবতীকে ট্রলারে গণধর্ষণের করে। ভোর সাড়ে ৪টার দিকে কুকরি মুকরি নারকেল বাগানের অদূরে একটি ভাসমান ট্রলার দেখে কোস্টগার্ডের টহল দলের সন্দেহ হলে কাছে গিয়ে দেখেন এক যুবতী হাত বাঁধা, সে তাদের কবল থেকে বাঁচতে চিৎকার করছে। এসময় ট্রলারে থাকা দণি আইচা থানার চরমানিকা ইউনিয়নের ৫ যুবককে আটক করা হয়।
কোস্টগার্ড দক্ষিণ আইচা কন্টিনজেন্ট কমান্ডার মোঃ আলমগীর হোসেন বলেন, যুবতী মেয়েটির বাড়ি চরফ্যাশন থানার আসলামপুর ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডে। যুবতীকে সেখানে নেয়া হয়েছিল গণধর্ষণের উদ্দেশ্যে এটা অনেকটা নিশ্চিত।
দক্ষিণ আইচা থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) হারুন আর রশিদ এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, রবিবার সকালে কোস্টগার্ডে এক যুবতীকে গণধর্ষণের অভিযোগে ৫ যুবককে আটক করে থানায় সোর্পদ করেন। ঐ যুবতী বাদী হয়ে থানায় একটি নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে গণধর্ষণের মামলা দায়ের করেছেন। সকাল ১১টা দিকে ৫ আসামীকে চরফ্যাশন আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। এবং ভিকষ্টিম যুবতীকে মেডিক্যাল পরীক্ষার জন্য ভোলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

অবশেষে জল্পনা সত্যি! মা হচ্ছেন দীপিকা

ভোলায় যুবতীকে রাতভর গণধর্ষন,পাঁচ বখাটে গ্রেপ্তার

প্রকাশের সময় : ০৮:১৫:৫৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ৯ ফেব্রুয়ারী ২০২০
কামরুজ্জামান শাহীন,ভোলা॥
ভোলার চরফ্যাশন উপজেলার দক্ষিণ আইচা থানার কুকরী মুকরী নারিকেল বাগানে নিয়ে গিয়ে ২২ বছরের এক যুুবতীকে গণধর্ষন করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গণধর্ষন অভিযোগে ৫ বখাটেকে আটক করেছে কোস্টগার্ড।
রবিবার(৯ফ্রেব্রুয়ারী) ভোর সাড়ে ৪টার দিকে কোস্টগার্ড কুকরী মুকরী নারিকেল বাগানের অদূরে বুড়াগৌরাঙ্গ নদীতে একটি ভাসমান ট্রলার থেকে যুবতী সহ ৫জনকে আটক করে। পরে সকাল ৬টার দিকে ৫জনকে কোস্ট গার্ড দক্ষিণ আইচা থানায় সোর্পদ করে।
ধর্ষণের শিকার যুবতী বাদী হয়ে অভিযুক্ত ৫জনকে আসামী করে দক্ষিণ আইচা থানায় একটি নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে গণধর্ষণের মামলা দায়ের করেন।
আটককৃতরা হলেন-দণি আইচা থানার চরমানিকা ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের খলিল মিয়ার ছেলে ইউছুফ হাসান সর্দার (২১), ৫নং ওয়ার্ডের হাকিম দিদারে ছেলে সোহেল রানা দিদার (২০), চরমানিকা ৩নং ওয়ার্ডের মোকাম্মেল সিকদারের ছেলে ওয়াসেল আহমেদ সিকদার ( ২২), চর ৪নং ওয়ার্ডের কচ্ছপিয়া গ্রামের আবুল কাশেম হাং ছেলে মোর্শেদ হাং (৩৫) ও একই গ্রামের ইসমাইল ফকিরের ছেলে রিপন ফকির (২০)কে ভিক্টিম কিশোরীসহ আটক করে।
দক্ষিণ আইচা থানার উপ-পরির্দশক(এসআই) বিকাশ জানান, শনিবার চরকচ্ছপিয়া থেকে তিন যুবক এক যুবতীকে স্পীড র্বোডে করে চরকুকরী মুকরী দৃষ্টিনন্দন পর্যটন এলাকা নারিকেল বাগানে নিয়ে যায়। সেখানে বিকাল সাড়ে ৫টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত রেখে যুবতীকে গণধর্ষণ করা হয়। সেখান তাদের সাথে আরো দুই যুবক একত্রিত হয়ে রাতে একটি ট্রলার ভাড়া করে কচ্ছপিয়া আসার সময় ট্রলার জালে আটকে যায়। এতে ৫যুবক মিলে আবার যুবতীকে ট্রলারে গণধর্ষণের করে। ভোর সাড়ে ৪টার দিকে কুকরি মুকরি নারকেল বাগানের অদূরে একটি ভাসমান ট্রলার দেখে কোস্টগার্ডের টহল দলের সন্দেহ হলে কাছে গিয়ে দেখেন এক যুবতী হাত বাঁধা, সে তাদের কবল থেকে বাঁচতে চিৎকার করছে। এসময় ট্রলারে থাকা দণি আইচা থানার চরমানিকা ইউনিয়নের ৫ যুবককে আটক করা হয়।
কোস্টগার্ড দক্ষিণ আইচা কন্টিনজেন্ট কমান্ডার মোঃ আলমগীর হোসেন বলেন, যুবতী মেয়েটির বাড়ি চরফ্যাশন থানার আসলামপুর ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডে। যুবতীকে সেখানে নেয়া হয়েছিল গণধর্ষণের উদ্দেশ্যে এটা অনেকটা নিশ্চিত।
দক্ষিণ আইচা থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) হারুন আর রশিদ এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, রবিবার সকালে কোস্টগার্ডে এক যুবতীকে গণধর্ষণের অভিযোগে ৫ যুবককে আটক করে থানায় সোর্পদ করেন। ঐ যুবতী বাদী হয়ে থানায় একটি নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে গণধর্ষণের মামলা দায়ের করেছেন। সকাল ১১টা দিকে ৫ আসামীকে চরফ্যাশন আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। এবং ভিকষ্টিম যুবতীকে মেডিক্যাল পরীক্ষার জন্য ভোলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।