শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ভূমিকম্পে তুরস্কে নিহত ৮, ধসে পড়েছে ১ হাজার ভবন

সম্রাট আকবর :=

ইরান সীমান্তবর্তী তুরস্কের ভান প্রদেশে শক্তিশালী এক ভূমিকম্পে আটজন নিহত হয়েছেন। এ ছাড়া ভূমিকম্পে আহত হয়েছেন আরও ২১ জন।রোববার (২৩ ফেব্রুয়ারি) দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সুলেইমান সয়লু জানান, পাঁচ দশমিক সাত মাত্রার এ ভূমিকম্পে এক হাজার ৬৬টির মতো ভবন ধসে পড়েছে।

দেশটির দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ ইতোমধ্যেই উদ্ধারকাজ শুরু করেছে বলে জানান তুর্কি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।নিহতদের মধ্যে তিনজন শিশুও রয়েছে বলে জানান সুলেইমান। তিনি বলেন, শক্তিশালী এই ভূমিকম্পে প্রায় এক হাজার ৬৬টি ভবন ধসে পড়েছে। তুরস্কের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, দেশটির দুর্যোগ ও জরুরি ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ উদ্ধার অভিযান শুরু করেছে। তিনি বলেন, অনুসন্ধান এবং উদ্ধার প্রচেষ্টা শুরু হয়েছে।

ইউরোপিয়ান মেডিটেরেনিয়ান সিসমোলজিক্যাল সেন্টার জানিয়েছে, ইরান-তুরস্ক সীমান্তে আঘাত হানা ওই ভূমিকম্পটির মাত্রা ছিল ৫.৭। এটির গভীরতা ছিল ৫ কিলোমিটার। তুরস্কের সরকারি সম্প্রচার মাধ্যম টিআরটি ওয়ার্ল্ড জানিয়েছে, ভূমিকম্পে ৪৩টি গ্রাম ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তারা বলছে, ক্ষয়ক্ষতি তদন্তকারী দল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করছে। এছাড়া তুরস্কের ভান শহরেও ভবন ধসের ঘটনা ঘটেছে।

এদিকে ইরানের কর্মকর্তারা জানিয়েছে, ক্ষতিগ্রস্ত এলাকাগুলোয় জরুরি টিম পাঠানো হয়েছে। রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনকে ইরানের একজন কর্মকর্তা বলেছেন, আমাদের উদ্ধারকারী টিমকে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় পাঠানো হয়েছে। আমরা এখনও পর্যন্ত কোনও ক্ষয়ক্ষতি বা হতাহতের খবর পাইনি। কেননা ইরানের পশ্চিমাঞ্চলীয় আজারবাইজান প্রদেশে খুব একটা জনবসতি নেই।যদিও আরেকজন স্থানীয় কর্মকর্তা বলেছেন, সেখানে হতাহত ও ক্ষয়ক্ষতির সম্ভাবনা রয়েছে। প্রসঙ্গত, ইরান-তুরস্ক সীমান্ত এলাকা বিশ্বের অন্যতম ভূমিকম্প প্রবণ অঞ্চল।

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

ভূমিকম্পে তুরস্কে নিহত ৮, ধসে পড়েছে ১ হাজার ভবন

প্রকাশের সময় : ০৫:১৩:৩৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২০
সম্রাট আকবর :=

ইরান সীমান্তবর্তী তুরস্কের ভান প্রদেশে শক্তিশালী এক ভূমিকম্পে আটজন নিহত হয়েছেন। এ ছাড়া ভূমিকম্পে আহত হয়েছেন আরও ২১ জন।রোববার (২৩ ফেব্রুয়ারি) দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সুলেইমান সয়লু জানান, পাঁচ দশমিক সাত মাত্রার এ ভূমিকম্পে এক হাজার ৬৬টির মতো ভবন ধসে পড়েছে।

দেশটির দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ ইতোমধ্যেই উদ্ধারকাজ শুরু করেছে বলে জানান তুর্কি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।নিহতদের মধ্যে তিনজন শিশুও রয়েছে বলে জানান সুলেইমান। তিনি বলেন, শক্তিশালী এই ভূমিকম্পে প্রায় এক হাজার ৬৬টি ভবন ধসে পড়েছে। তুরস্কের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, দেশটির দুর্যোগ ও জরুরি ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ উদ্ধার অভিযান শুরু করেছে। তিনি বলেন, অনুসন্ধান এবং উদ্ধার প্রচেষ্টা শুরু হয়েছে।

ইউরোপিয়ান মেডিটেরেনিয়ান সিসমোলজিক্যাল সেন্টার জানিয়েছে, ইরান-তুরস্ক সীমান্তে আঘাত হানা ওই ভূমিকম্পটির মাত্রা ছিল ৫.৭। এটির গভীরতা ছিল ৫ কিলোমিটার। তুরস্কের সরকারি সম্প্রচার মাধ্যম টিআরটি ওয়ার্ল্ড জানিয়েছে, ভূমিকম্পে ৪৩টি গ্রাম ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তারা বলছে, ক্ষয়ক্ষতি তদন্তকারী দল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করছে। এছাড়া তুরস্কের ভান শহরেও ভবন ধসের ঘটনা ঘটেছে।

এদিকে ইরানের কর্মকর্তারা জানিয়েছে, ক্ষতিগ্রস্ত এলাকাগুলোয় জরুরি টিম পাঠানো হয়েছে। রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনকে ইরানের একজন কর্মকর্তা বলেছেন, আমাদের উদ্ধারকারী টিমকে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় পাঠানো হয়েছে। আমরা এখনও পর্যন্ত কোনও ক্ষয়ক্ষতি বা হতাহতের খবর পাইনি। কেননা ইরানের পশ্চিমাঞ্চলীয় আজারবাইজান প্রদেশে খুব একটা জনবসতি নেই।যদিও আরেকজন স্থানীয় কর্মকর্তা বলেছেন, সেখানে হতাহত ও ক্ষয়ক্ষতির সম্ভাবনা রয়েছে। প্রসঙ্গত, ইরান-তুরস্ক সীমান্ত এলাকা বিশ্বের অন্যতম ভূমিকম্প প্রবণ অঞ্চল।