শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

চাঁদাবাজি করে মুজিববর্ষের অনুষ্ঠান করা যাবে না: কাদের

ঢাকা ব্যুরো :=

ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে, চাঁদাবাজি করে মুজিববর্ষের অনুষ্ঠান না করতে নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

শুক্রবার (৬ মার্চ) সকালে রাজধানীর বঙ্গবন্ধুর অ্যাভিনিউতে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক যৌথসভায় এ মন্তব্য করেন তিনি।

তিনি বলেন, দেশ ও গণতন্ত্রকে বাঁচাতে হলে আওয়ামী লীগকে বাঁচাতে হবে। চাঁদাবাজি করে যেন কেউ মুজিববর্ষের অনুষ্ঠান না করে। এটা করলে কোনোভাবেই সহ্য করা হবে না।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, আপনারা কোনো অবস্থায় মুজিববর্ষ উদযাপনের নামে এলাকায় মানুষের সঙ্গে বিরূপ আচরণ করবেন না। মানুষ যেনো আপনাদের কাছ থেকে বিরূপ আচরণ না পায়। কোনো প্রকার হয়রানির শিকার না হয়, কোনো মানুষ যেন কষ্ট না পায় সে দিকে লক্ষ্য রাখবেন। নিজেরা অর্থ সংগ্রহ করে অনুষ্ঠানের আয়োজন করবেন।

যৌথসভায় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতা, ঢাকা মহানগরের অন্তর্গত দলীয় সংসদ সদস্য, ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ আওয়ামী লীগ সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক, মহানগরের অর্ন্তগত থানা ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক, দলের সহযোগী সংগঠনের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক, দুই সিটি করপোরেশনের মেয়র ও কাউন্সিলরা।

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

চাঁদাবাজি করে মুজিববর্ষের অনুষ্ঠান করা যাবে না: কাদের

প্রকাশের সময় : ০৮:০০:৫৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৬ মার্চ ২০২০
ঢাকা ব্যুরো :=

ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে, চাঁদাবাজি করে মুজিববর্ষের অনুষ্ঠান না করতে নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

শুক্রবার (৬ মার্চ) সকালে রাজধানীর বঙ্গবন্ধুর অ্যাভিনিউতে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক যৌথসভায় এ মন্তব্য করেন তিনি।

তিনি বলেন, দেশ ও গণতন্ত্রকে বাঁচাতে হলে আওয়ামী লীগকে বাঁচাতে হবে। চাঁদাবাজি করে যেন কেউ মুজিববর্ষের অনুষ্ঠান না করে। এটা করলে কোনোভাবেই সহ্য করা হবে না।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, আপনারা কোনো অবস্থায় মুজিববর্ষ উদযাপনের নামে এলাকায় মানুষের সঙ্গে বিরূপ আচরণ করবেন না। মানুষ যেনো আপনাদের কাছ থেকে বিরূপ আচরণ না পায়। কোনো প্রকার হয়রানির শিকার না হয়, কোনো মানুষ যেন কষ্ট না পায় সে দিকে লক্ষ্য রাখবেন। নিজেরা অর্থ সংগ্রহ করে অনুষ্ঠানের আয়োজন করবেন।

যৌথসভায় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতা, ঢাকা মহানগরের অন্তর্গত দলীয় সংসদ সদস্য, ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ আওয়ামী লীগ সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক, মহানগরের অর্ন্তগত থানা ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক, দলের সহযোগী সংগঠনের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক, দুই সিটি করপোরেশনের মেয়র ও কাউন্সিলরা।