Barta Kontho
নিবন্ধন নম্বর: ৪৬১মঙ্গলবার , ২৪ মার্চ ২০২০
  1. 1st Lead
  2. 2nd Lead
  3. অপরাধ
  4. আইটি বিশ্ব
  5. আইন ও আদালত
  6. আন্তর্জাতিক
  7. আবহাওয়া
  8. ইসলাম
  9. খেলাধুলা
  10. চাকুরি
  11. ছবি ঘর
  12. জাতীয়
  13. জেলার খবর
  14. ট্রাভেল
  15. নির্বাচন

খালেদার অপেক্ষায় গুলশানের ‘ফিরোজা’ ভবন

Shahriar Hossain
মার্চ ২৪, ২০২০ ৮:৩৩ অপরাহ্ণ
Link Copied!

ঢাকা ব্যুরো :=

সরকারের সিদ্ধান্তে আইনি প্রক্রিয়ায় মুক্তি পাওয়ার পর গুলশানে নিজের বাসভবন ফিরোজাতেই উঠবেন বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) বিকাল চারটার দিকে খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়ে সরকারের ইতিবাচক অবস্থান ব্যক্ত করেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

তিনি জানান, খালেদা জিয়াকে ছয় মাসের জন্য মুক্তি দিতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে সুপারিশ করেছেন তিনি। আর এই সময়ে অবশ্যই খালেদা জিয়া তার নিজ বাসভবনে অবস্থান করবেন এবং চিকিৎসা গ্রহণ করবেন। এ বিষয়ে প্রতিক্রিয়ায় বিএনপি চেয়ারপারসনের ভাই শামীম ইস্কান্দর জানান, তার বোন মুক্তি পাওয়ার পর নিজের বর্তমান বাসভবন ফিরোজাতেই উঠবেন।

এদিকে, খালেদা জিয়ার মুক্তির পরিপ্রেক্ষিতে দলের সিদ্ধান্ত কী হবে, তা এখনও বলতে পারেননি বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, আমরা মাত্র বিষয়টি জেনেছি। এখনও এ বিষয়ে আলোচনা করিনি। তবে আমরা তো ম্যাডামকে বিদেশে নিতে চেয়েছিলাম। এই অবস্থায় কী করা যায় আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেবো।

বিএনপি চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইং সদস্য শায়রুল কবির খান জানান, আনুষ্ঠানিকভাবে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর দলের কথা তুলে ধরবেন। একইসঙ্গে সরকারের এই সিদ্ধানেন্ত পরবর্তী করণীয় কী হবে, তা নিয়ে সংবাদ মাধ্যমে কথা বলবেন। তবে, তা প্রচার হবে অনলাইনে। বিএনপির দলীয় অফিসিয়াল ফেসবুকে তা প্রচার হবে বলে জানান তিনি।

প্রসঙ্গত, ২০১৮ সালের ৮ ফ্রেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় সাজা পেয়ে কারাগারে যান খালেদা জিয়া। পরে ওই বছরের ১ এপ্রিল থেকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় (হাসপাতাল) প্রিজন সেলে রয়েছেন চিকিৎসাধীন তিনি। দল ও পরিবারের পক্ষ থেকে একাধিকবার তার অসুস্থতার কারণে বিদেশে চিকিৎসার জন্য নেয়ার দাবি জানানো হয়েছিল।

মঙ্গলবার বিকালে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক জানিয়েছেন, খালেদা জিয়াকে তার বাসায় রেখেই চিকিৎসা করাতে হবে। বিদেশ গমণ না করার শর্তে এ সুপারিশ করা হয়েছে। তিনি এও বলেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় যখন মনে করবে তখন থেকেই তার মুক্তি হবে।
দলের আইনজীবীরা জানিয়েছেন, তারা এখন গুলশানমুখী। সেখানে আইনি প্রক্রিয়া নিয়ে পর্যালোচনার পর সরকারের সঙ্গে যোগাযোগ করে একটি সময় নির্দিষ্ট করার চেষ্টা করবেন। এরপরই খালেদা জিয়াকে প্রিজন সেল থেকে গুলশানে নেয়া হবে।

বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।
%d bloggers like this: