শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

গৃহবধূর সাথে পরকীয়ার সময় আপত্তিকর অবস্থায় দুজনে আটক

সাতক্ষীরা সংবাদদাতা : ==

ইটভাটা শ্রমিকের স্ত্রীর সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় আটকের পর আব্দুর রাজ্জাক নামের এক ব্যক্তিকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে জনতা।

বৃহষ্পতিবার রাত ১১টার দিকে সাতক্ষীরার আশাশুনি উপজেলার গোয়ালডাঙা গ্রাম থেকে তাদেরকে আটক করা হয়।আটককৃতরা হলেন, আশাশুনি উপজেলার খাজরা গ্রামের ফজলে সানার ছেলে বিদেশ ফেরৎ আব্দুর রাজ্জাক (৪২) ও একই উপজেলার গোয়ালডাঙা গ্রামের ভাটা শ্রমিক আরিজুল ইসলামের স্ত্রী বিউটি খাতুন (৩০)।

গোয়ালডাঙা গ্রামের ইকবল হোসেন, কুদ্দুস ফকির ও মাহাববুবর রহমান বলেন, তাদের গ্রামের আরিজুল ইসলাম বরিশাল একটি ইটভাটায় কাজ করে। এ সুযোগে খাজরা গ্রামের বিদেশ ফেরৎ আব্দুর রাজ্জাক আরিজুলের স্ত্রীর সঙ্গে সখ্যতা গড়ে তোলে। একপর্যায়ে বৃহষ্পতিবার রাত ১১টা দিকে আপত্তিকর অবস্থায় বিউটি ও রাজ্জাককে বিউটির ঘর থেকে আটক কর গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করা হয়।তবে তারা বলেন, আব্দুর রাজ্জাক ইতিপূর্বে তার গ্রামে দু’ মহিলার সঙ্গ আপত্তিকর অবস্থায় আটক হলেও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের সঙ্গে সুসম্পর্ক থাকায় মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে তাকে পুলিশের কাছ থেকে মুক্ত করা হয়। এবারও সেই প্রক্রিয়া অব্যহত রয়েছে।

তবে করোনার কথা বলে এবার নতুন কৌশল অবলম্বন করছেন চেয়ারম্যান। জানতে চাইলে আশাশুনি থানার সহকারি উপপরিদর্শক রিয়াজউদ্দিন বলেন, রাজ্জাক ও বিউটিকে বৃহষ্পতিবার রাতেই ধরে থানায় আনা হয়েছে। ওসি স্যার যা করবেন সেটাই ঠিক হবে।

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

গৃহবধূর সাথে পরকীয়ার সময় আপত্তিকর অবস্থায় দুজনে আটক

প্রকাশের সময় : ০৬:০২:৩০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৩ এপ্রিল ২০২০
সাতক্ষীরা সংবাদদাতা : ==

ইটভাটা শ্রমিকের স্ত্রীর সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় আটকের পর আব্দুর রাজ্জাক নামের এক ব্যক্তিকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে জনতা।

বৃহষ্পতিবার রাত ১১টার দিকে সাতক্ষীরার আশাশুনি উপজেলার গোয়ালডাঙা গ্রাম থেকে তাদেরকে আটক করা হয়।আটককৃতরা হলেন, আশাশুনি উপজেলার খাজরা গ্রামের ফজলে সানার ছেলে বিদেশ ফেরৎ আব্দুর রাজ্জাক (৪২) ও একই উপজেলার গোয়ালডাঙা গ্রামের ভাটা শ্রমিক আরিজুল ইসলামের স্ত্রী বিউটি খাতুন (৩০)।

গোয়ালডাঙা গ্রামের ইকবল হোসেন, কুদ্দুস ফকির ও মাহাববুবর রহমান বলেন, তাদের গ্রামের আরিজুল ইসলাম বরিশাল একটি ইটভাটায় কাজ করে। এ সুযোগে খাজরা গ্রামের বিদেশ ফেরৎ আব্দুর রাজ্জাক আরিজুলের স্ত্রীর সঙ্গে সখ্যতা গড়ে তোলে। একপর্যায়ে বৃহষ্পতিবার রাত ১১টা দিকে আপত্তিকর অবস্থায় বিউটি ও রাজ্জাককে বিউটির ঘর থেকে আটক কর গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করা হয়।তবে তারা বলেন, আব্দুর রাজ্জাক ইতিপূর্বে তার গ্রামে দু’ মহিলার সঙ্গ আপত্তিকর অবস্থায় আটক হলেও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের সঙ্গে সুসম্পর্ক থাকায় মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে তাকে পুলিশের কাছ থেকে মুক্ত করা হয়। এবারও সেই প্রক্রিয়া অব্যহত রয়েছে।

তবে করোনার কথা বলে এবার নতুন কৌশল অবলম্বন করছেন চেয়ারম্যান। জানতে চাইলে আশাশুনি থানার সহকারি উপপরিদর্শক রিয়াজউদ্দিন বলেন, রাজ্জাক ও বিউটিকে বৃহষ্পতিবার রাতেই ধরে থানায় আনা হয়েছে। ওসি স্যার যা করবেন সেটাই ঠিক হবে।