সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে গণজমায়েতের মাধ্যমে বিয়ের,কনের বাবাকে জরিমানা

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি 
সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলায় করোনাভাইরাসের উদ্ভূত পরিস্থিতিতে সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে গণজমায়েতের মাধ্যমে বিয়ের অনুষ্ঠান করায় সত্যতা পাওয়ায় কনের বাবাকে ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড প্রদান করা হয়েছে।
জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও সহকারি কমিশনার(ভূমি)মোঃ ইয়াসির আরাফাত এই আদেশ দেন।
শুক্রবার বিকেলে জগন্নাথপুর উপজেলার সৈয়দপুর শাহাড়পাড়া ইউনিয়নের সৈয়দপুর গ্রামে ঘটনাটি ঘটে।
সুত্র জানাযায়,সৈয়দপুর গ্রামের সৈয়দ ফজলুর রহমানের মেয়ের সঙ্গে এক লন্ডনপ্রবাসী ছেলের বিবাহ দিন ধার্য্য করা হয় শুক্রবার। জনসমাগমের মাধ্যম বাড়ীতে চলছিল বিয়ের অনুষ্ঠান। এই খবর পেয়ে বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে জগন্নাথপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ ইয়াসির আরাফাত ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রায় ২৫জন লোকজনের সমাগম দেখতে পান। সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে লোক সমাগম করায় ভ্রাম্যমাণ আদালতে পরিচালনার মাধ্যমে কনের বাবা কে ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড প্রদান করা হয়।
নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইয়াসির আরাফাত জানান, সরকারী নির্দেশনা অমান্য করায় দণ্ডবিধির ১৮৬০ এর ২৬৯ ধারা মোতাবেক অবহেলাজনিত কার্য্য দ্বারা জীবন বিপন্নকারী রোগের সংক্রমণ বিস্তার লাভের সম্ভাবনা রয়েছে এমন অপরাধ প্রমাণিত পাওয়ায় ১০হাজার টাকা অর্থদণ্ড অনাদায়ে ১৫দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করা হয়। ভবিষ্যতে সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে এমন কাজ করবেন না মর্মে তিনি অঙ্গীকারনামা প্রদান করেন।
এসময় জগন্নাথপুর থানা পুলিশ ও বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর একটি দল উপস্থিত ছিলেন।

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

বিএনপির নেতাকর্মীদের কারাগারে প্রেরণ সরকারের প্রধান কর্মসূচি -মির্জা ফখরুল

সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে গণজমায়েতের মাধ্যমে বিয়ের,কনের বাবাকে জরিমানা

প্রকাশের সময় : ০৮:১১:৪৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৩ এপ্রিল ২০২০
সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি 
সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলায় করোনাভাইরাসের উদ্ভূত পরিস্থিতিতে সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে গণজমায়েতের মাধ্যমে বিয়ের অনুষ্ঠান করায় সত্যতা পাওয়ায় কনের বাবাকে ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড প্রদান করা হয়েছে।
জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও সহকারি কমিশনার(ভূমি)মোঃ ইয়াসির আরাফাত এই আদেশ দেন।
শুক্রবার বিকেলে জগন্নাথপুর উপজেলার সৈয়দপুর শাহাড়পাড়া ইউনিয়নের সৈয়দপুর গ্রামে ঘটনাটি ঘটে।
সুত্র জানাযায়,সৈয়দপুর গ্রামের সৈয়দ ফজলুর রহমানের মেয়ের সঙ্গে এক লন্ডনপ্রবাসী ছেলের বিবাহ দিন ধার্য্য করা হয় শুক্রবার। জনসমাগমের মাধ্যম বাড়ীতে চলছিল বিয়ের অনুষ্ঠান। এই খবর পেয়ে বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে জগন্নাথপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ ইয়াসির আরাফাত ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রায় ২৫জন লোকজনের সমাগম দেখতে পান। সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে লোক সমাগম করায় ভ্রাম্যমাণ আদালতে পরিচালনার মাধ্যমে কনের বাবা কে ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড প্রদান করা হয়।
নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইয়াসির আরাফাত জানান, সরকারী নির্দেশনা অমান্য করায় দণ্ডবিধির ১৮৬০ এর ২৬৯ ধারা মোতাবেক অবহেলাজনিত কার্য্য দ্বারা জীবন বিপন্নকারী রোগের সংক্রমণ বিস্তার লাভের সম্ভাবনা রয়েছে এমন অপরাধ প্রমাণিত পাওয়ায় ১০হাজার টাকা অর্থদণ্ড অনাদায়ে ১৫দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করা হয়। ভবিষ্যতে সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে এমন কাজ করবেন না মর্মে তিনি অঙ্গীকারনামা প্রদান করেন।
এসময় জগন্নাথপুর থানা পুলিশ ও বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর একটি দল উপস্থিত ছিলেন।