শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় খাদ্যের জন্য ইউএনও অফিসে হোটেল শ্রমিকদের অবস্থান

মোস্তাফিজুর রহমান : লালমনিরহাট প্রতিনিধি:।।
করোনা ভাইরাসের কারনে কর্মহীন হয়ে পড়া হোটেল শ্রমিকদের আর্থিক সহযোগীতার ও খাদ্যসামগ্রীর জন্য লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলা পরিষদের অবস্থান করে হোটেল শ্রমিক ইউনিয়ন।বুধবার (৮এপ্রিল) দুপুরে উপজেলা পরিষদের সামনে কর্মহীন হয়ে পড়া শতাধিক হোটেল শ্রমিক অবস্থান নেয়। পরে হোটেল শ্রমিক ইউনিয়ন সভাপতি শ্রী সুধা বর্মনরায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে আর্থিক সাহায্যের জন্য নির্বাহী কর্মকর্তার অফিসে দ্বায়িত্বে থাকা এক কর্মচারীর হাতে একটি আবেদন প্রদান করেন।জানা গেছে, ২০ দিন ধরে গোটা উপজেলায় প্রায় ৩শ জন হোটেল শ্রমিক কর্মহীন। হোটেলে দিনমজুরী করে জীবিকা নির্বাহ করেন। বর্তমানে করোনা ভাইরাসের কারনে সকল হোটেল বন্ধ । ফলে পরিবারের খাদ্য যোগাতে হিমশিম খাচ্ছেন এবং বাবা-মা, স্ত্রী-সন্তানদের নিয়ে মানবেতন জীবন কাটাচ্ছেন। আর্থিক সাহায্যে ও খাদ্যসামগ্রীর জন্য উপজেলা চত্তরে হোটেল শ্রমিক অবস্থান নেয়।হাতীবান্ধা হোটেল শ্রমিক ইউনিয়ন সভাপতি শ্রী সুধা বর্মন রায় জানান, গোটা উপজেলায় প্রায় ৩শ জন হোটেল শ্রমিক রয়েছে। তারা এখন সবাই কর্মহীন। ২০ থেকে ২৫ দিন থেকে বাড়িতেই বসে। এখন আর উপায় না পেয়ে আমরা সবাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট আবেদন দেই। এছাড়া এর আগে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট আসলে তিনি স্ব স্ব ইউপি পরিষদে যোগাযোগ করি। তবে সেখানে হাতে গোনা কয়েকজনকে চাল,ডাল দেয়া হলেও আর কোন সাড়া না পাইনি।হোটেল শ্রমিক লিটন, সাদেকুল ইসলাম, দুলাল, কেরামত ও সারবানু জানান, হোটেল বন্ধ হয়ে যাওয়ার পর কয়েকদিন জমানো কিছু টাকা ভাঙ্গিয়ে চলি। পরে ধার দেনা করে কিছু খরচ করি। এখন আমাদের পরিবারে ৫-৭ জন সদস্য। তাদের খরচ চালাতে হিমশিম খাচ্ছি। কোন টাকা পয়সা নেই। এভাবে চলতে থাকলে না খেয়ে মরতে হবে।এ বিষয়ে হাতীবান্ধা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সামিউল আমিন জানান, আমি বাইরে কাজে আছি । অফিসে একটি আবেদন দিয়েছে বলে এক কর্মচারী জানিয়েছেন। আমি অফিসে গিয়ে বিষয়টি দেখছি।

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় খাদ্যের জন্য ইউএনও অফিসে হোটেল শ্রমিকদের অবস্থান

প্রকাশের সময় : ০৬:১৮:৩২ অপরাহ্ন, বুধবার, ৮ এপ্রিল ২০২০
মোস্তাফিজুর রহমান : লালমনিরহাট প্রতিনিধি:।।
করোনা ভাইরাসের কারনে কর্মহীন হয়ে পড়া হোটেল শ্রমিকদের আর্থিক সহযোগীতার ও খাদ্যসামগ্রীর জন্য লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলা পরিষদের অবস্থান করে হোটেল শ্রমিক ইউনিয়ন।বুধবার (৮এপ্রিল) দুপুরে উপজেলা পরিষদের সামনে কর্মহীন হয়ে পড়া শতাধিক হোটেল শ্রমিক অবস্থান নেয়। পরে হোটেল শ্রমিক ইউনিয়ন সভাপতি শ্রী সুধা বর্মনরায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে আর্থিক সাহায্যের জন্য নির্বাহী কর্মকর্তার অফিসে দ্বায়িত্বে থাকা এক কর্মচারীর হাতে একটি আবেদন প্রদান করেন।জানা গেছে, ২০ দিন ধরে গোটা উপজেলায় প্রায় ৩শ জন হোটেল শ্রমিক কর্মহীন। হোটেলে দিনমজুরী করে জীবিকা নির্বাহ করেন। বর্তমানে করোনা ভাইরাসের কারনে সকল হোটেল বন্ধ । ফলে পরিবারের খাদ্য যোগাতে হিমশিম খাচ্ছেন এবং বাবা-মা, স্ত্রী-সন্তানদের নিয়ে মানবেতন জীবন কাটাচ্ছেন। আর্থিক সাহায্যে ও খাদ্যসামগ্রীর জন্য উপজেলা চত্তরে হোটেল শ্রমিক অবস্থান নেয়।হাতীবান্ধা হোটেল শ্রমিক ইউনিয়ন সভাপতি শ্রী সুধা বর্মন রায় জানান, গোটা উপজেলায় প্রায় ৩শ জন হোটেল শ্রমিক রয়েছে। তারা এখন সবাই কর্মহীন। ২০ থেকে ২৫ দিন থেকে বাড়িতেই বসে। এখন আর উপায় না পেয়ে আমরা সবাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট আবেদন দেই। এছাড়া এর আগে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট আসলে তিনি স্ব স্ব ইউপি পরিষদে যোগাযোগ করি। তবে সেখানে হাতে গোনা কয়েকজনকে চাল,ডাল দেয়া হলেও আর কোন সাড়া না পাইনি।হোটেল শ্রমিক লিটন, সাদেকুল ইসলাম, দুলাল, কেরামত ও সারবানু জানান, হোটেল বন্ধ হয়ে যাওয়ার পর কয়েকদিন জমানো কিছু টাকা ভাঙ্গিয়ে চলি। পরে ধার দেনা করে কিছু খরচ করি। এখন আমাদের পরিবারে ৫-৭ জন সদস্য। তাদের খরচ চালাতে হিমশিম খাচ্ছি। কোন টাকা পয়সা নেই। এভাবে চলতে থাকলে না খেয়ে মরতে হবে।এ বিষয়ে হাতীবান্ধা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সামিউল আমিন জানান, আমি বাইরে কাজে আছি । অফিসে একটি আবেদন দিয়েছে বলে এক কর্মচারী জানিয়েছেন। আমি অফিসে গিয়ে বিষয়টি দেখছি।