শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ত্রাণ চোরদের ক্ষমা নাই, প্রয়োজনে মোবাইল কোর্টে তাৎক্ষণিক শাস্তি — প্রধানমন্ত্রী

রোকনুজ্জামান রিপন ।। 

করোনার মহামারীর মধ্যে যারা ত্রাণ চুরি করছে তাদের কোনো ক্ষমা হবে না- এমন হুঁশিয়ারি দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘সরকারের দেয়া সহায়তা ত্রাণ কর্মসূচিতে কেউ চুরি করলে প্রয়োজনে মোবাইল কোর্ট বসিয়ে তাৎক্ষণিক শাস্তি দেয়া হবে। বিচার পরে দেখা যাবে।’রবিবার প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে বিভিন্ন জেলার সঙ্গে কথা বলার সময় তিনি এই হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন।

শেখ হাসিনা বলেন, অত্যন্ত দুঃখের বিষয় কয়েকটি খবর এসেছে। আমরা সাধ্যমতো সহযোগিতা করার চেষ্টা করছি। সেই সহায়তায় যারা অনিয়ম দুর্নীতি করার চেষ্টা করবে তাদের কাউকে ছাড় দেয়া হবে না। প্রয়োজনে তাৎক্ষণিকভাবে মোবাইল কোর্ট বসিয়ে তাদের বিচার করা হবে।

সম্প্রতি ত্রাণ চুরি নিয়ে গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবরের কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘এটা (ত্রাণ চুরি) ক্ষমার যোগ্য নয় এবং এটা আমরা ক্ষমা করবো না। আমি অত্যন্ত দুঃখিত কয়েকটা খবর এই ধরনের বেরিয়েছে। যারা এই ঘটনা ঘটিয়েছে বা দুর্গত মানুষকে দেওয়ার জন্য যে খাদ্য শস্য দেওয়া হয়েছে, চাল দেওয়া হয়েছে সেখান থেকে যারা দুর্নীতি করার চেষ্টা করেছেন এবং কিছু ধরা পড়েছে, আশা করি, যারাই এ রকম করবে সবাই ধরা পড়বে। তাদের কিন্তু কোনো ক্ষমা নেই।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘প্রত্যেকের নিজের একটা আন্তরিকতা থাকতে হবে। বিশেষ করে আমরা যারা রাজনীতি করি আমাদের আরও বেশি দায়িত্ববোধ থাকতে হবে। যারা সরকারি বেতন পাচ্ছেন, জনগণের ট্যাক্সের টাকায়। কাজেই প্রত্যেকে আন্তরিকভাবে কাজ করতে হবে।’তিনি বলেন, ‘যাদের আমরা দায়িত্ব দিয়েছি তারা আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছেন। কিন্তু তার মধ্যে এই সামান্য দুই একটা ঘটনা আমাদের অত্যন্ত কষ্ট দেয়। এটা খুবই ঘৃণ্য কাজ। কেউ এটা করবেন না। এই ধরনের দুর্নীতি আমরা কোনোদিন বরদাস্ত করব না

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

ত্রাণ চোরদের ক্ষমা নাই, প্রয়োজনে মোবাইল কোর্টে তাৎক্ষণিক শাস্তি — প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশের সময় : ০৭:৪০:২৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ১২ এপ্রিল ২০২০
রোকনুজ্জামান রিপন ।। 

করোনার মহামারীর মধ্যে যারা ত্রাণ চুরি করছে তাদের কোনো ক্ষমা হবে না- এমন হুঁশিয়ারি দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘সরকারের দেয়া সহায়তা ত্রাণ কর্মসূচিতে কেউ চুরি করলে প্রয়োজনে মোবাইল কোর্ট বসিয়ে তাৎক্ষণিক শাস্তি দেয়া হবে। বিচার পরে দেখা যাবে।’রবিবার প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে বিভিন্ন জেলার সঙ্গে কথা বলার সময় তিনি এই হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন।

শেখ হাসিনা বলেন, অত্যন্ত দুঃখের বিষয় কয়েকটি খবর এসেছে। আমরা সাধ্যমতো সহযোগিতা করার চেষ্টা করছি। সেই সহায়তায় যারা অনিয়ম দুর্নীতি করার চেষ্টা করবে তাদের কাউকে ছাড় দেয়া হবে না। প্রয়োজনে তাৎক্ষণিকভাবে মোবাইল কোর্ট বসিয়ে তাদের বিচার করা হবে।

সম্প্রতি ত্রাণ চুরি নিয়ে গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবরের কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘এটা (ত্রাণ চুরি) ক্ষমার যোগ্য নয় এবং এটা আমরা ক্ষমা করবো না। আমি অত্যন্ত দুঃখিত কয়েকটা খবর এই ধরনের বেরিয়েছে। যারা এই ঘটনা ঘটিয়েছে বা দুর্গত মানুষকে দেওয়ার জন্য যে খাদ্য শস্য দেওয়া হয়েছে, চাল দেওয়া হয়েছে সেখান থেকে যারা দুর্নীতি করার চেষ্টা করেছেন এবং কিছু ধরা পড়েছে, আশা করি, যারাই এ রকম করবে সবাই ধরা পড়বে। তাদের কিন্তু কোনো ক্ষমা নেই।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘প্রত্যেকের নিজের একটা আন্তরিকতা থাকতে হবে। বিশেষ করে আমরা যারা রাজনীতি করি আমাদের আরও বেশি দায়িত্ববোধ থাকতে হবে। যারা সরকারি বেতন পাচ্ছেন, জনগণের ট্যাক্সের টাকায়। কাজেই প্রত্যেকে আন্তরিকভাবে কাজ করতে হবে।’তিনি বলেন, ‘যাদের আমরা দায়িত্ব দিয়েছি তারা আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছেন। কিন্তু তার মধ্যে এই সামান্য দুই একটা ঘটনা আমাদের অত্যন্ত কষ্ট দেয়। এটা খুবই ঘৃণ্য কাজ। কেউ এটা করবেন না। এই ধরনের দুর্নীতি আমরা কোনোদিন বরদাস্ত করব না