শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ২৯ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

যশোর জেলাকে অনির্দিষ্টকালের জন্য লকডাউন ঘোষণা

রোকনুজ্জামান রিপন ।। 
যশোর জেলাকে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। অনির্দিষ্টকালের জন্য ঘোষিত এই লকডাউন আগামীকাল সোমবার সকাল ৬টা থেকে কার্যকর হবে। রোববার দুপুরে সার্কিট হাউজে করোনা বিষয়ক এক জরুরি সভা থেকে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।
জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শফিউল আরিফ বলেন, হঠাৎ করে যশোরে করোনা রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ায় লকডাউনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। আগামীকাল সকাল ছয়টা থেকে তা কার্যকর হবে। এ সময় অন্য  জেলা থেকে যশোরে কেউ ঢুকতে পারবে না। সকল প্রকার যাতায়াত বন্ধ থাকবে। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া উপজেলাগুলোর সাথেও জেলা শহরের কোন যাতায়াত  হবে না। ওষুধের দোকান ছাড়া সকল দোকানপাট বন্ধ থাকবে। কোথাও লোকসমাগম করা যাবে না। এসব মানা হলেই দ্রুত আইনী ব্যবস্থা নেয়া হবে।
জেলা প্রশাসক আরও জানান, পরবর্তী ঘোষণা না দেওয়া পর্যন্ত লকডাউন বলবৎ থাকবে। তবে জরুরি সেবা যেমন- অ্যাম্বুলেন্স, হাসপাতাল, ওষুধের দোকান, কাঁচাবাজার, নিত্যপণ্যের দোকান, কৃষি সংক্রান্ত বিষয়াদি যেমন সার, বীজ, কীটনাশকের দোকান, ফুয়েল স্টেশন প্রভৃতি লকডাউনের আওতামুক্ত থাকবে।
সভায় উপস্থিত ছিলেন- পুলিশ সুপার মুহাম্মদ আশরাফ হোসেন, লে. কর্নেল নিয়ামুল হালিম খান, সিভিল সার্জন শেখ আবু শাহীন, প্রেসক্লাব যশোরের সভপতি জাহিদ হাসান টুকুন প্রমুখ।

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

ব্রায়ান লারার অপরাজিত ৪০০ রানের রেকর্ড, দু’দশক আজ

যশোর জেলাকে অনির্দিষ্টকালের জন্য লকডাউন ঘোষণা

প্রকাশের সময় : ০৫:৪২:৪০ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ এপ্রিল ২০২০
রোকনুজ্জামান রিপন ।। 
যশোর জেলাকে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। অনির্দিষ্টকালের জন্য ঘোষিত এই লকডাউন আগামীকাল সোমবার সকাল ৬টা থেকে কার্যকর হবে। রোববার দুপুরে সার্কিট হাউজে করোনা বিষয়ক এক জরুরি সভা থেকে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।
জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শফিউল আরিফ বলেন, হঠাৎ করে যশোরে করোনা রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ায় লকডাউনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। আগামীকাল সকাল ছয়টা থেকে তা কার্যকর হবে। এ সময় অন্য  জেলা থেকে যশোরে কেউ ঢুকতে পারবে না। সকল প্রকার যাতায়াত বন্ধ থাকবে। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া উপজেলাগুলোর সাথেও জেলা শহরের কোন যাতায়াত  হবে না। ওষুধের দোকান ছাড়া সকল দোকানপাট বন্ধ থাকবে। কোথাও লোকসমাগম করা যাবে না। এসব মানা হলেই দ্রুত আইনী ব্যবস্থা নেয়া হবে।
জেলা প্রশাসক আরও জানান, পরবর্তী ঘোষণা না দেওয়া পর্যন্ত লকডাউন বলবৎ থাকবে। তবে জরুরি সেবা যেমন- অ্যাম্বুলেন্স, হাসপাতাল, ওষুধের দোকান, কাঁচাবাজার, নিত্যপণ্যের দোকান, কৃষি সংক্রান্ত বিষয়াদি যেমন সার, বীজ, কীটনাশকের দোকান, ফুয়েল স্টেশন প্রভৃতি লকডাউনের আওতামুক্ত থাকবে।
সভায় উপস্থিত ছিলেন- পুলিশ সুপার মুহাম্মদ আশরাফ হোসেন, লে. কর্নেল নিয়ামুল হালিম খান, সিভিল সার্জন শেখ আবু শাহীন, প্রেসক্লাব যশোরের সভপতি জাহিদ হাসান টুকুন প্রমুখ।