সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪, ৭ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শার্শা ও বেনাপোলের রেডজোন এলাকাকে লকডা্উন করেছে উপজেলা প্রশাসন

তানজীর মহসিন অংকন:/=

মহামারী করোনা ঠেকাতে যশোরের সীমান্তবর্তী উপজেলা  শার্শার নাভারণ সদর ও বেনাপোল পৌরসভার ২ নং ওয়ার্ড রেডজোন ঘোষণা করে  লকডাউন করা  হয়েছে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে।

মঙ্গলবার সকাল থেকে উপজেলার নাভারনের কাজিরবেড়, নাভারন রেলবাজার, উত্তর ও দক্ষিণ বুরুজবাগান এবং বেনাপোল পৌরসভার ২নং ওয়ার্ড এর নামাজগ্রাম ও দূর্গাপুর গ্রামকে লকডাউন করা হয়।

বাঁশের বেড়া দিয়ে তাতে লকডাউন ব্যানার টাঙিয়ে বেরিকেট দিয়ে মা্ইকিং করা হয়। রেড জোনকে লকডাউন কার্যক্রম বাস্তবায়ন করেন, শার্শা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পুলক কুমার মন্ডল, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) খোরশেদ আলম, বেনাপোল পৌর মেয়র আশরাফুল আলম লিটন, বেনাপোল পোর্ট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মামুন খান সহ প্রশাসন ও পৌরসভার কর্মকর্তাগণ।

শার্শা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পুলক কুমার মন্ডল বলেন, প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে যে সব এলাকাকে লকডাউন ঘোষনা করা হয় সে সব এলাকার জনগনকে ঘরে থাকতে হবে। যারা অকারনে ঘরের বাইরে বের হবেন তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। শার্শা উপজেলায় রেড জোন, ইয়োলো জোন ও গ্রীন এই তিন ভাগে ভাগ করা হয়েছে। রেড জোন এলাকা লকডাউনভুক্ত ঘোষণা করা হচ্ছে।

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

শার্শা ও বেনাপোলের রেডজোন এলাকাকে লকডা্উন করেছে উপজেলা প্রশাসন

প্রকাশের সময় : ০৭:৪৯:৫৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুন ২০২০

তানজীর মহসিন অংকন:/=

মহামারী করোনা ঠেকাতে যশোরের সীমান্তবর্তী উপজেলা  শার্শার নাভারণ সদর ও বেনাপোল পৌরসভার ২ নং ওয়ার্ড রেডজোন ঘোষণা করে  লকডাউন করা  হয়েছে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে।

মঙ্গলবার সকাল থেকে উপজেলার নাভারনের কাজিরবেড়, নাভারন রেলবাজার, উত্তর ও দক্ষিণ বুরুজবাগান এবং বেনাপোল পৌরসভার ২নং ওয়ার্ড এর নামাজগ্রাম ও দূর্গাপুর গ্রামকে লকডাউন করা হয়।

বাঁশের বেড়া দিয়ে তাতে লকডাউন ব্যানার টাঙিয়ে বেরিকেট দিয়ে মা্ইকিং করা হয়। রেড জোনকে লকডাউন কার্যক্রম বাস্তবায়ন করেন, শার্শা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পুলক কুমার মন্ডল, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) খোরশেদ আলম, বেনাপোল পৌর মেয়র আশরাফুল আলম লিটন, বেনাপোল পোর্ট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মামুন খান সহ প্রশাসন ও পৌরসভার কর্মকর্তাগণ।

শার্শা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পুলক কুমার মন্ডল বলেন, প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে যে সব এলাকাকে লকডাউন ঘোষনা করা হয় সে সব এলাকার জনগনকে ঘরে থাকতে হবে। যারা অকারনে ঘরের বাইরে বের হবেন তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। শার্শা উপজেলায় রেড জোন, ইয়োলো জোন ও গ্রীন এই তিন ভাগে ভাগ করা হয়েছে। রেড জোন এলাকা লকডাউনভুক্ত ঘোষণা করা হচ্ছে।