মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মাকে লেখা বলিউডের সুপারস্টার সুশান্তের মাকে লেখা আবেগঘন চিঠি

আলহাজ্ব হাফিজুর রহমান:/=

গোটা ভারতে শোকস্তব্ধ বলিউডের প্রতিভাবান অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুতে। গত রবিবার বান্দ্রার নিজের ফ্ল্যাটে আত্মহত্যা করেন বলিউডের এই তরুণ অভিনেতা।সুশান্তের লেখায় কখনও তার চিন্তাভাবনা, কখনও মায়ের জন্য তার বুকে চাপা কষ্ট, বারবার উঠে আসছে। মাকে লেখা সুশান্ত সিং রাজপুতের পুরনো একটি চিঠি নতুন করে ভাইরাল হয়েছে।

সুশান্তের মা নেই। তবে মায়ের স্মৃতিতে চিঠিটি লিখেছিলেন সুশান্ত। চিঠিটিতে লেখা- ‘যতদিন তুমি ছিলে ততদিন আমি ছিলাম। তারপর আমি শুধু বেঁচে থাকি তোমার স্মৃতিতে। একমাত্র এখানেই সময় স্থিতিশীল। ছায়ার মতো যেন। এই স্মৃতিটুকু সুন্দর এবং চিরকালীন।’

সুশান্ত আরও লেখেন-  ‘আমায় তুমি কথা দিয়েছিলে তোমার কি মনে পড়ে, আমায় ছেড়ে কোথায় যাবে না? আর আমি তোমায় কথা দিয়েছিলাম যাই হোক না কেন আমি হাসবো। আমরা দু’জনেই কথা রাখতে পারলাম না।’

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেষ পোস্টটিও ছিল মাকে ঘিরেই। ৩ জুন সুশান্ত মায়ের সঙ্গে নিজের ছবি শেয়ার করে লিখেছিলেন, ধূসর অতীত আমার চোখের পানি শুকিয়ে দিয়েছে। একদিকে অপূর্ণ স্বপ্ন আর অন্য দিকে মুখের কোণে লেগে থাকা একটু হাসি, এই দুইয়ের মধ্যে বোঝাপড়াতেই কেটে যাচ্ছে ক্ষণস্থায়ী এই জীবন।

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

মাকে লেখা বলিউডের সুপারস্টার সুশান্তের মাকে লেখা আবেগঘন চিঠি

প্রকাশের সময় : ০৬:০৭:৩২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুন ২০২০

আলহাজ্ব হাফিজুর রহমান:/=

গোটা ভারতে শোকস্তব্ধ বলিউডের প্রতিভাবান অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুতে। গত রবিবার বান্দ্রার নিজের ফ্ল্যাটে আত্মহত্যা করেন বলিউডের এই তরুণ অভিনেতা।সুশান্তের লেখায় কখনও তার চিন্তাভাবনা, কখনও মায়ের জন্য তার বুকে চাপা কষ্ট, বারবার উঠে আসছে। মাকে লেখা সুশান্ত সিং রাজপুতের পুরনো একটি চিঠি নতুন করে ভাইরাল হয়েছে।

সুশান্তের মা নেই। তবে মায়ের স্মৃতিতে চিঠিটি লিখেছিলেন সুশান্ত। চিঠিটিতে লেখা- ‘যতদিন তুমি ছিলে ততদিন আমি ছিলাম। তারপর আমি শুধু বেঁচে থাকি তোমার স্মৃতিতে। একমাত্র এখানেই সময় স্থিতিশীল। ছায়ার মতো যেন। এই স্মৃতিটুকু সুন্দর এবং চিরকালীন।’

সুশান্ত আরও লেখেন-  ‘আমায় তুমি কথা দিয়েছিলে তোমার কি মনে পড়ে, আমায় ছেড়ে কোথায় যাবে না? আর আমি তোমায় কথা দিয়েছিলাম যাই হোক না কেন আমি হাসবো। আমরা দু’জনেই কথা রাখতে পারলাম না।’

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেষ পোস্টটিও ছিল মাকে ঘিরেই। ৩ জুন সুশান্ত মায়ের সঙ্গে নিজের ছবি শেয়ার করে লিখেছিলেন, ধূসর অতীত আমার চোখের পানি শুকিয়ে দিয়েছে। একদিকে অপূর্ণ স্বপ্ন আর অন্য দিকে মুখের কোণে লেগে থাকা একটু হাসি, এই দুইয়ের মধ্যে বোঝাপড়াতেই কেটে যাচ্ছে ক্ষণস্থায়ী এই জীবন।