শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ২৯ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

মহামারীর দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হতে পারে পোষা প্রাণি থেকে।

আলহাজ্ব মতিয়ার রহমান:/=

মহামারীর দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হতে পারে পোষা প্রাণি থেকে।  সম্প্রতি ইউনিভার্সিটি কলেজ লন্ডনের এক গবেষণায় এ তথ্য উঠে এসেছে।

ল্যানসেট জার্নালে প্রকাশিত প্রতিবেদনে গবেষকরা জানিয়েছেন, কোনো এলাকায় সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আসলেও মানুষের আশপাশে বসবাসকারী প্রাণীদের মাধ্যমে সেখানে আবারো মহামারী শুরু হতে পারে।

এ গবেষণায় অংশ নেয়া প্রফেসর জোয়ানে সান্তিনি বলেন, প্রমাণ রয়েছে যে, কিছু প্রাণী মানুষের মাধ্যমে ভাইরাসে আক্রান্ত হতে পারে। আর তাদের থেকে এ সংক্রমণ ফিরেও আসতে পারে। তিনি বলেন, আমাদের পর্যবেক্ষণ পদ্ধতি আরও উন্নত করতে হবে যেন হঠাৎ করেই প্রাণীদের মধ্যে বাপকভাবে সংক্রমণ ছড়িয়ে না পড়ে। এটি শুধু প্রাণীদেরই নয়, মানবস্বাস্থ্যের জন্যেও হুমকি হয়ে উঠতে পারে।

আগেই জানা গেছে, চীনে বাদুরের শরীরে প্রথমে করোনাভাইরাস প্রবেশ করেছিল। ভাইরাসটি পরে তাদের থেকে অন্য একটি প্রাণীতে ছড়ায়, আর ওই প্রাণী থেকেই ছড়িয়ে পড়ে মানবদেহেও।গবেষকরা জানান, বৈশ্বিক মহামারীর প্রকোপ ব্যাপকভাবে বাড়তে থাকায় প্রাণীরা করোনার আধার হয়ে ওঠার সম্ভাবনা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে।

প্রফেসর সান্তিনি বলেন, পরীক্ষা করা না হলে প্রাণীদের মধ্যে ভাইরাস সংক্রমণ অপরিবর্তনীয় হয়ে উঠতে পারে। মানুষেরা যদি প্রাণী থেকে সংক্রমিত হওয়ার ধারা ধরে রাখে তবে তা জনস্বাস্থ্য ব্যবস্থায় সাফল্যের জন্য হুমকি হয়ে উঠবে।

 

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

ব্রায়ান লারার অপরাজিত ৪০০ রানের রেকর্ড, দু’দশক আজ

মহামারীর দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হতে পারে পোষা প্রাণি থেকে।

প্রকাশের সময় : ০৬:৪৯:৪৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুন ২০২০

আলহাজ্ব মতিয়ার রহমান:/=

মহামারীর দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হতে পারে পোষা প্রাণি থেকে।  সম্প্রতি ইউনিভার্সিটি কলেজ লন্ডনের এক গবেষণায় এ তথ্য উঠে এসেছে।

ল্যানসেট জার্নালে প্রকাশিত প্রতিবেদনে গবেষকরা জানিয়েছেন, কোনো এলাকায় সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আসলেও মানুষের আশপাশে বসবাসকারী প্রাণীদের মাধ্যমে সেখানে আবারো মহামারী শুরু হতে পারে।

এ গবেষণায় অংশ নেয়া প্রফেসর জোয়ানে সান্তিনি বলেন, প্রমাণ রয়েছে যে, কিছু প্রাণী মানুষের মাধ্যমে ভাইরাসে আক্রান্ত হতে পারে। আর তাদের থেকে এ সংক্রমণ ফিরেও আসতে পারে। তিনি বলেন, আমাদের পর্যবেক্ষণ পদ্ধতি আরও উন্নত করতে হবে যেন হঠাৎ করেই প্রাণীদের মধ্যে বাপকভাবে সংক্রমণ ছড়িয়ে না পড়ে। এটি শুধু প্রাণীদেরই নয়, মানবস্বাস্থ্যের জন্যেও হুমকি হয়ে উঠতে পারে।

আগেই জানা গেছে, চীনে বাদুরের শরীরে প্রথমে করোনাভাইরাস প্রবেশ করেছিল। ভাইরাসটি পরে তাদের থেকে অন্য একটি প্রাণীতে ছড়ায়, আর ওই প্রাণী থেকেই ছড়িয়ে পড়ে মানবদেহেও।গবেষকরা জানান, বৈশ্বিক মহামারীর প্রকোপ ব্যাপকভাবে বাড়তে থাকায় প্রাণীরা করোনার আধার হয়ে ওঠার সম্ভাবনা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে।

প্রফেসর সান্তিনি বলেন, পরীক্ষা করা না হলে প্রাণীদের মধ্যে ভাইরাস সংক্রমণ অপরিবর্তনীয় হয়ে উঠতে পারে। মানুষেরা যদি প্রাণী থেকে সংক্রমিত হওয়ার ধারা ধরে রাখে তবে তা জনস্বাস্থ্য ব্যবস্থায় সাফল্যের জন্য হুমকি হয়ে উঠবে।