মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

তিনটি নতুন লক্ষণ দেখা দিলেই নিশ্চিত করোনা

রোকনুজ্জামান রিপন:/= করোনার তিনটি নতুন লক্ষণ চিহ্নিত করেছে যুক্তরাষ্ট্রের রোগ নিয়ন্ত্রণবিষয়ক সংস্থা সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন (সিডিসি)।

নতুন লক্ষণ তিনটি হলো সর্দি, বমি বমি ভাব ও ডায়রিয়া। এর আগে করোনা সংক্রমণের লক্ষণ ছিল গলা ব্যাথা, কাশি, শ্বাসকষ্ট, ক্লান্তি, পেশী বা শরীরের ব্যথা, মাথা ব্যাথা ইত্যাদি। জরুরি সতর্কতা লক্ষণ হিসেবে শ্বাসকষ্ট, বুকে ক্রমাগত ব্যথা বা চাপ, জেগে থাকতে অসুবিধা, ঠোঁট বা মুখ নীল রঙয়ের হয়ে যাওয়াকে চিহ্নিতও করা হয়েছে। সিডিসি অনুসারে, যদি কেউ এই লক্ষণগুলো দেখায় তবে অবিলম্বে জরুরি চিকিৎসা সেবা গ্রহণ করতে হবে।

এপ্রিল মাসে সিডিসি করোনার আগের লক্ষণের সাথে ছয়টি লক্ষণ যুক্ত করে। এ নিয়ে তৃতীয়বারের মতো করোনাভাইরাসের নতুন তিনটি লক্ষণ যুক্ত করলো তারা। একইসঙ্গে সিডিসি জানায়, এই লক্ষণসমূহই চূড়ান্ত নয়, ধীরে ধীরে এ তালিকা আপডেট করা হবে। মহামারিটি প্রথম যখন শুরু হয়েছিল, তখন জ্বর, কাশি এবং শ্বাসকষ্ট হওয়া কোভিড-১৯ সংক্রমণের সবচেয়ে সাধারণ লক্ষণ হিসেবে দেখা গিয়েছিল।

নতুন এ লক্ষণগুলো আক্রান্ত ব্যক্তির মধ্যে সামান্য কিংবা তীব্র আকারে দেখা যেতে পারে। এসব লক্ষণ কমপক্ষে ২ থেকে ১৪ দিনের মধ্যে আক্রান্ত ব্যক্তির শরীরে প্রকাশ পেতে পারে। সিডিসি সতর্ক করে জানিয়ে বলে, প্রাপ্তবয়স্করা ও যাদের ফুসফুসের রোগ বা ডায়াবেটিসের মতো গুরুতর রোগে ভুগছে তারা সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিতে আছে।

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

তিনটি নতুন লক্ষণ দেখা দিলেই নিশ্চিত করোনা

প্রকাশের সময় : ০৪:০৯:৪৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৭ জুন ২০২০

রোকনুজ্জামান রিপন:/= করোনার তিনটি নতুন লক্ষণ চিহ্নিত করেছে যুক্তরাষ্ট্রের রোগ নিয়ন্ত্রণবিষয়ক সংস্থা সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন (সিডিসি)।

নতুন লক্ষণ তিনটি হলো সর্দি, বমি বমি ভাব ও ডায়রিয়া। এর আগে করোনা সংক্রমণের লক্ষণ ছিল গলা ব্যাথা, কাশি, শ্বাসকষ্ট, ক্লান্তি, পেশী বা শরীরের ব্যথা, মাথা ব্যাথা ইত্যাদি। জরুরি সতর্কতা লক্ষণ হিসেবে শ্বাসকষ্ট, বুকে ক্রমাগত ব্যথা বা চাপ, জেগে থাকতে অসুবিধা, ঠোঁট বা মুখ নীল রঙয়ের হয়ে যাওয়াকে চিহ্নিতও করা হয়েছে। সিডিসি অনুসারে, যদি কেউ এই লক্ষণগুলো দেখায় তবে অবিলম্বে জরুরি চিকিৎসা সেবা গ্রহণ করতে হবে।

এপ্রিল মাসে সিডিসি করোনার আগের লক্ষণের সাথে ছয়টি লক্ষণ যুক্ত করে। এ নিয়ে তৃতীয়বারের মতো করোনাভাইরাসের নতুন তিনটি লক্ষণ যুক্ত করলো তারা। একইসঙ্গে সিডিসি জানায়, এই লক্ষণসমূহই চূড়ান্ত নয়, ধীরে ধীরে এ তালিকা আপডেট করা হবে। মহামারিটি প্রথম যখন শুরু হয়েছিল, তখন জ্বর, কাশি এবং শ্বাসকষ্ট হওয়া কোভিড-১৯ সংক্রমণের সবচেয়ে সাধারণ লক্ষণ হিসেবে দেখা গিয়েছিল।

নতুন এ লক্ষণগুলো আক্রান্ত ব্যক্তির মধ্যে সামান্য কিংবা তীব্র আকারে দেখা যেতে পারে। এসব লক্ষণ কমপক্ষে ২ থেকে ১৪ দিনের মধ্যে আক্রান্ত ব্যক্তির শরীরে প্রকাশ পেতে পারে। সিডিসি সতর্ক করে জানিয়ে বলে, প্রাপ্তবয়স্করা ও যাদের ফুসফুসের রোগ বা ডায়াবেটিসের মতো গুরুতর রোগে ভুগছে তারা সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিতে আছে।