বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বান্দরবানে উপজাতি গোষ্ঠী দ্বন্দে গোলাগুলিতে নিহত- ৬

বান্দরবান প্রতিনিধি

রাজধানী ঢাকা থেকে ৫শো কিলোমিটার দূরের পার্বত্য জেলা বান্দরবানে মঙ্গলবার (৭ জুলাই) সকালে গুলিযুদ্ধে ছয়জন নিহত হয়েছে।

দেশের এ জেলায় দু’টি উপজাতি গোষ্ঠির আধিপত্য নিয়ে প্রায়ই তারা গুলিযুদ্ধে নামে। বান্দরবান সদর উপজেলার রাজভিলা ইউনিয়নে বাগমারা বাজার এলাকায় গুলিযুদ্ধ ঘটে। এছাড়া কক্সবাজারের টেকনাফে পুলিশের সঙ্গে গুলিযুদ্ধে ২ মাদক কারবারী নিহত হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার সকাল সাতটার দিকে বান্দরবান সদর উপজেলার রাজভিলা ইউনিয়নে বাগমারা বাজার এলাকায় গুলিযুদ্ধ ঘটে। এতে আহত হয়েছেন তিনজন। নিহতরা সবাই জনসংহতি সমিতির এমএন লারমা গ্রুপের সদস্য। কারা এ হামলা চালিয়েছে, এ ব্যাপারে এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

নিহতরা হলেন প্রজিত চাকমা (৬৫), ডেভিড মারমা (৪৫), জয় ত্রিপুরা (৪০), দিপেন ত্রিপুরা (৪২), রতন তঞ্চঙ্গ্যা (৫৫), বিমল কান্তি চাকমা ওরফে বিধু বাবু (৬০)।আহত তিনজন হলেন নিহার চাকমা, বিদ্যুৎ চাকমা, হ্লাওয়াংসিং।

হ্লাওয়াংসিং বান্দরবানের রাজভিলা ইউনিয়ন পরিষদের এক সদস্যের মেয়ে।বান্দরবান পুলিশ সুপার জেরিন আক্তার বলেন, আহত তিনজনকে বান্দরবান সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।

এর আগে রাজভিলা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান খে অং প্রু মারমা  আহত দুজনকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তাঁরা হলেন নিহার চাকমা ও বিদ্যুৎ চাকমা।

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

বান্দরবানে উপজাতি গোষ্ঠী দ্বন্দে গোলাগুলিতে নিহত- ৬

প্রকাশের সময় : ০৪:২৫:২৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ জুলাই ২০২০

বান্দরবান প্রতিনিধি

রাজধানী ঢাকা থেকে ৫শো কিলোমিটার দূরের পার্বত্য জেলা বান্দরবানে মঙ্গলবার (৭ জুলাই) সকালে গুলিযুদ্ধে ছয়জন নিহত হয়েছে।

দেশের এ জেলায় দু’টি উপজাতি গোষ্ঠির আধিপত্য নিয়ে প্রায়ই তারা গুলিযুদ্ধে নামে। বান্দরবান সদর উপজেলার রাজভিলা ইউনিয়নে বাগমারা বাজার এলাকায় গুলিযুদ্ধ ঘটে। এছাড়া কক্সবাজারের টেকনাফে পুলিশের সঙ্গে গুলিযুদ্ধে ২ মাদক কারবারী নিহত হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার সকাল সাতটার দিকে বান্দরবান সদর উপজেলার রাজভিলা ইউনিয়নে বাগমারা বাজার এলাকায় গুলিযুদ্ধ ঘটে। এতে আহত হয়েছেন তিনজন। নিহতরা সবাই জনসংহতি সমিতির এমএন লারমা গ্রুপের সদস্য। কারা এ হামলা চালিয়েছে, এ ব্যাপারে এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

নিহতরা হলেন প্রজিত চাকমা (৬৫), ডেভিড মারমা (৪৫), জয় ত্রিপুরা (৪০), দিপেন ত্রিপুরা (৪২), রতন তঞ্চঙ্গ্যা (৫৫), বিমল কান্তি চাকমা ওরফে বিধু বাবু (৬০)।আহত তিনজন হলেন নিহার চাকমা, বিদ্যুৎ চাকমা, হ্লাওয়াংসিং।

হ্লাওয়াংসিং বান্দরবানের রাজভিলা ইউনিয়ন পরিষদের এক সদস্যের মেয়ে।বান্দরবান পুলিশ সুপার জেরিন আক্তার বলেন, আহত তিনজনকে বান্দরবান সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।

এর আগে রাজভিলা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান খে অং প্রু মারমা  আহত দুজনকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তাঁরা হলেন নিহার চাকমা ও বিদ্যুৎ চাকমা।