সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২৪ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

মোবাইলে ডেকে এনে প্রেমিকাকে গণধর্ষণ -গ্রেফতার-২

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি #

ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার মোয়াজ্জেমপুর ইউনিয়নের পালাহার গ্রামের বাড়িতে বিয়ের অনুষ্ঠান আছে বলে (পোশাককর্মী) প্রেমিকাকে মোবাইল করে।

জানা যায়, ১০ বছর ধরে ওই নারী গাজীপুরের একটি পোশাক কারখানায় চাকরি করতেন। নান্দাইল উপজেলার পালাহার গ্রামের খলিলুর রহমানের ছেলে নুরুল ইসলামের সঙ্গে ওই পোশাককর্মীর মোবাইলে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে।

ওই নারী জানান, গত শনিবার নুরুল ইসলাম তার বাড়িতে বিয়ের অনুষ্ঠান আছে বলে তাকে বাড়িতে ডেকে আনে। দিনের বেলায় বাড়িতে কেউ না থাকায় দিনভর ঘরে আটকে রেখে তাকে ধর্ষণ করে। সন্ধ্যার দিকে তার স্ত্রী বাড়িতে চলে আসায় একই গ্রামে তার বন্ধু নুরুউদ্দীনের বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়।

নুরুউদ্দীনও তাকে রাতভর ধর্ষণ করে। একপর্যায়ে শেষ রাতের দিকে কৌশলে পালিয়ে এসে ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ মহাসড়কে উঠে এক সিএনজি চালকের সহায়তায় নান্দাইল মডেল থানায় পৌঁছে বিস্তারিত ঘটনা জানায়।রোববার ভোরে পালাহার গ্রামে অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত দুজনকে আটক করে নান্দাইল মডেল থানা পুলিশ।

এ বিষয়ে নান্দাইল মডেল থানার ওসি মনসুর আহমেদ জানান, ভিকটিম নারী নিজে বাদী হয়ে ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন। তাকে মেডিকেল টেস্ট করার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। গ্রেফতারকৃত দুইজনকে ৭ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

দীর্ঘ ২৪ বছর পর একই মঞ্চে লতিফ সিদ্দিকী ও কাদের সিদ্দিকী

রাহুল-আথিয়া সাত পাকে বাঁধা পড়লেন

বিয়ে নিয়ে কোনো অস্বস্তি-আফসোস নেই স্বস্তিকার

মোবাইলে ডেকে এনে প্রেমিকাকে গণধর্ষণ -গ্রেফতার-২

প্রকাশের সময় : ০৯:৫০:৫৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১ সেপ্টেম্বর ২০২০

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি #

ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার মোয়াজ্জেমপুর ইউনিয়নের পালাহার গ্রামের বাড়িতে বিয়ের অনুষ্ঠান আছে বলে (পোশাককর্মী) প্রেমিকাকে মোবাইল করে।

জানা যায়, ১০ বছর ধরে ওই নারী গাজীপুরের একটি পোশাক কারখানায় চাকরি করতেন। নান্দাইল উপজেলার পালাহার গ্রামের খলিলুর রহমানের ছেলে নুরুল ইসলামের সঙ্গে ওই পোশাককর্মীর মোবাইলে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে।

ওই নারী জানান, গত শনিবার নুরুল ইসলাম তার বাড়িতে বিয়ের অনুষ্ঠান আছে বলে তাকে বাড়িতে ডেকে আনে। দিনের বেলায় বাড়িতে কেউ না থাকায় দিনভর ঘরে আটকে রেখে তাকে ধর্ষণ করে। সন্ধ্যার দিকে তার স্ত্রী বাড়িতে চলে আসায় একই গ্রামে তার বন্ধু নুরুউদ্দীনের বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়।

নুরুউদ্দীনও তাকে রাতভর ধর্ষণ করে। একপর্যায়ে শেষ রাতের দিকে কৌশলে পালিয়ে এসে ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ মহাসড়কে উঠে এক সিএনজি চালকের সহায়তায় নান্দাইল মডেল থানায় পৌঁছে বিস্তারিত ঘটনা জানায়।রোববার ভোরে পালাহার গ্রামে অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত দুজনকে আটক করে নান্দাইল মডেল থানা পুলিশ।

এ বিষয়ে নান্দাইল মডেল থানার ওসি মনসুর আহমেদ জানান, ভিকটিম নারী নিজে বাদী হয়ে ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন। তাকে মেডিকেল টেস্ট করার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। গ্রেফতারকৃত দুইজনকে ৭ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে।