সোমবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২৩, ১৭ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

আগামী ফেব্রুয়ারিতে নিউজিল্যান্ড সফরে যাবে টাইগাররা

ইকবাল হোসেন #

করোনা মহামারির কারণে চলতি বছর নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে বাংলাদেশের দু’টি সিরিজ স্থগিত হয়েছে। তবে এ বছর না হলেও আগামী বছর ঠিকই সিরিজ দু’টি খেলবে টাইগাররা।এর মধ্যে আগামী ফেব্রুয়ারিতে নিউজিল্যান্ড সফরে যাবে টাইগাররা। এরপর একই বছরের মাঝামাঝি সময়ে বাংলাদেশ সফরে আসবে কিউইরা।মঙ্গলবার (০১ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজন সাংবাদিকদের এ তথ্য জানিয়েছেন। মূলত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রস্তুতির কথা মাথায় রেখেই তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে চলতি বছর সেপ্টেম্বের-অক্টোবরে নিউজিল্যান্ড যাওয়ার কথা ছিল বাংলাদেশের। কিন্তু করোনার জন্য বিশ্বকাপটাই স্থগিত হয়ে গেছে। স্থগিত হওয়া এই সিরিজটি খেলতেই আগামী বছর ফেব্রুয়ারিতে টাইগারদের নিউজিল্যান্ড সফরে যাওয়া কথা রয়েছে। টাইগারদের অ্যাওয়ে সিরিজ নিয়ে সুজন বলেন, ‘নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড যে চারটা সিরিজের কথা বলেছে তার মধ্যে একটা আমাদের ট্যুর রয়েছে নিউজিল্যান্ডে। এটা সামনের বছর ফেব্রুয়ারির দিকে হবে, সেভাবেই পরিকল্পনা রয়েছে।’অন্যদিকে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অংশ হিসেবে আগস্ট-সেপ্টেম্বরে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলতে চলতি বছর বাংলাদেশ সফরে আসার কথা ছিল নিউজল্যান্ডের। এই সিরিজটি আগামী বছরের মাঝামাঝি হওয়ার কথা রয়েছে।টাইগারদের হোম সিরিজ নিয়ে প্রধান নির্বাহী বলেন, ‘নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের সাথেও আমাদের একোতা বোঝাপড়া হয়েছে যে আগামী বছর মাঝামাঝি সময়ে আমরা সিরিজটি নিশ্চিত করবো।’এছাড়া স্থগিত হওয়া অস্ট্রেলিয়া ও আয়ারল্যান্ড সফর নিয়েও কথা বলেন বিসিবির প্রধান নির্বাহী, ‘অস্ট্রেলিয়া ও আয়ারল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গেও আমাদের আলাপ-আলোচনা চলছে। আমরা চেষ্টা করবো যে অস্ট্রেলিয়া সিরিজটি যে কোনো সুবিধাজনক সময়ে…আসলে আমরা তৈরি থাকলেতো হবে না, অস্ট্রেলিয়ার মতো একটা বড় দলের ফাঁকা সময়েরও ব্যাপার আছে। ফলে আইসিসির যে নির্ধারিত সময়সীমা আছে এই সময়ের মধ্যেই সিরিজটি কনফার্ম করতে হবে। এছাড়া আয়ারল্যান্ডে ওয়ানডে সিরিজ আছে, সেক্ষেত্রে আইসিসির একটা সময়সীমা বর্ধিত করার একটা পরিকল্পনা রয়েছে। সেই বর্ধিত সময়সীমার মধ্যেই আমরা আশা করছি শেষ করতে পারবো। ‘

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

দীর্ঘ ২৪ বছর পর একই মঞ্চে লতিফ সিদ্দিকী ও কাদের সিদ্দিকী

রাহুল-আথিয়া সাত পাকে বাঁধা পড়লেন

বেনাপোল নোম্যান্সল্যান্ডে বসবে দুই বাংলার ভাষা প্রেমীদের মিলন মেলা -শেখ আফিল উদ্দিন, এমপি

আগামী ফেব্রুয়ারিতে নিউজিল্যান্ড সফরে যাবে টাইগাররা

প্রকাশের সময় : ১০:১২:০১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১ সেপ্টেম্বর ২০২০

ইকবাল হোসেন #

করোনা মহামারির কারণে চলতি বছর নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে বাংলাদেশের দু’টি সিরিজ স্থগিত হয়েছে। তবে এ বছর না হলেও আগামী বছর ঠিকই সিরিজ দু’টি খেলবে টাইগাররা।এর মধ্যে আগামী ফেব্রুয়ারিতে নিউজিল্যান্ড সফরে যাবে টাইগাররা। এরপর একই বছরের মাঝামাঝি সময়ে বাংলাদেশ সফরে আসবে কিউইরা।মঙ্গলবার (০১ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজন সাংবাদিকদের এ তথ্য জানিয়েছেন। মূলত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রস্তুতির কথা মাথায় রেখেই তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে চলতি বছর সেপ্টেম্বের-অক্টোবরে নিউজিল্যান্ড যাওয়ার কথা ছিল বাংলাদেশের। কিন্তু করোনার জন্য বিশ্বকাপটাই স্থগিত হয়ে গেছে। স্থগিত হওয়া এই সিরিজটি খেলতেই আগামী বছর ফেব্রুয়ারিতে টাইগারদের নিউজিল্যান্ড সফরে যাওয়া কথা রয়েছে। টাইগারদের অ্যাওয়ে সিরিজ নিয়ে সুজন বলেন, ‘নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড যে চারটা সিরিজের কথা বলেছে তার মধ্যে একটা আমাদের ট্যুর রয়েছে নিউজিল্যান্ডে। এটা সামনের বছর ফেব্রুয়ারির দিকে হবে, সেভাবেই পরিকল্পনা রয়েছে।’অন্যদিকে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অংশ হিসেবে আগস্ট-সেপ্টেম্বরে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলতে চলতি বছর বাংলাদেশ সফরে আসার কথা ছিল নিউজল্যান্ডের। এই সিরিজটি আগামী বছরের মাঝামাঝি হওয়ার কথা রয়েছে।টাইগারদের হোম সিরিজ নিয়ে প্রধান নির্বাহী বলেন, ‘নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের সাথেও আমাদের একোতা বোঝাপড়া হয়েছে যে আগামী বছর মাঝামাঝি সময়ে আমরা সিরিজটি নিশ্চিত করবো।’এছাড়া স্থগিত হওয়া অস্ট্রেলিয়া ও আয়ারল্যান্ড সফর নিয়েও কথা বলেন বিসিবির প্রধান নির্বাহী, ‘অস্ট্রেলিয়া ও আয়ারল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গেও আমাদের আলাপ-আলোচনা চলছে। আমরা চেষ্টা করবো যে অস্ট্রেলিয়া সিরিজটি যে কোনো সুবিধাজনক সময়ে…আসলে আমরা তৈরি থাকলেতো হবে না, অস্ট্রেলিয়ার মতো একটা বড় দলের ফাঁকা সময়েরও ব্যাপার আছে। ফলে আইসিসির যে নির্ধারিত সময়সীমা আছে এই সময়ের মধ্যেই সিরিজটি কনফার্ম করতে হবে। এছাড়া আয়ারল্যান্ডে ওয়ানডে সিরিজ আছে, সেক্ষেত্রে আইসিসির একটা সময়সীমা বর্ধিত করার একটা পরিকল্পনা রয়েছে। সেই বর্ধিত সময়সীমার মধ্যেই আমরা আশা করছি শেষ করতে পারবো। ‘