মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৩, ১৭ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া রুটে নদীর তীব্র স্রোতে ফেরি চলাচল ব্যাহত

ঢাকা ব্যুরো #

শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌরুটে নাব্যতা সংকটে ফেরি চলাচল ফের বন্ধ হয়ে গেছে। পদ্মা সেতুর নিজস্ব চ্যানেলের ২৪ ও ২৫ নম্বর খুঁটির নিচে গতকাল আটকে যায় ফেরি কিশোরি। ঘণ্টাখানেক চেষ্টার পর ১৫টি যানবোঝাই ফেরিটি উদ্ধার করা সম্ভব হয়। এছাড়া কলমিলতা নামেও একটি ফেরি গতকাল ডুবোচরে আটকে পড়ে। এরপরই এই রুটে ফেরি চলাচল ফের বন্ধ করে দেওয়া হয়।

উল্লেখ্য, গত পাঁচ দিন থেকে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে নৌ দুর্ঘটনা এড়াতে এই রুটে রাতের বেলা ফেরি চলাচল বন্ধ রাখা হয়। দিনের বেলায় ছোট চারটি ফেরি দিয়ে জরুরি সেবার যানবাহনগুলোকে পারাপার করা হলেও গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল থেকে নৌপথে নাব্যতাসংকটের কারণে ফেরি চলাচল সম্পূর্ণভাবে বন্ধ করে দেয় কর্তৃপক্ষ। ফলে উভয় ঘাটে আটকা পড়ে বিপুলসংখ্যক যানবাহন। অন্যদিকে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া রুটে পদ্মার তীব্র স্রোতের কারণে ফেরি চলাচল ব্যাহত হওয়ায় দৌলতদিয়া ঘাট এলাকাতেও জমে যায় বিপুলসংখ্যক যানবাহন।

বৃহস্পতিবার বিকালে সরেজমিনে দৌলতদিয়া ঘাটে গিয়ে দেখা যায়, ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের দৌলতদিয়া জিরো পয়েন্ট থেকে বাংলাদেশ হ্যাচারিজ পর্যন্ত তিন কিলোমিটার এলাকা জুড়ে যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। অপরদিকে দৌলতদিয়া ঘাট থেকে ১২ কিলোমিটার দূরে গোয়ালন্দ মোড় থেকে রাজবাড়ী-কুষ্টিয়া আঞ্চলিক মহাসড়কে আহলাদিপুর ব্র্যাক ট্রেনিং সেন্টার পর্যন্ত চার কিলোমিটার এলাকা জুড়ে সৃষ্টি হয় বাস ও ট্রাকের জট। প্রতিটি পণ্যবাহী ট্রাককে অপেক্ষা করতে হচ্ছে দুই দিন থেকে তিন দিন পর্যন্ত।

বিআইডব্লিউটিসি দৌলতদিয়া ফেরিঘাটের সহকারী ব্যবস্থাপক মাহাবুবুর রহমান জানান, পদ্মায় প্রবল স্রোতের কারণে দৌলতদিয়া পাটুরিয়া নৌরুটে ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। ফেরিগুলোর নদী পার হতে স্বাভাবিকের চেয়ে দ্বিগুণ সময় লাগছে।

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

দীর্ঘ ২৪ বছর পর একই মঞ্চে লতিফ সিদ্দিকী ও কাদের সিদ্দিকী

রাহুল-আথিয়া সাত পাকে বাঁধা পড়লেন

বেনাপোল নোম্যান্সল্যান্ডে বসবে দুই বাংলার ভাষা প্রেমীদের মিলন মেলা -শেখ আফিল উদ্দিন, এমপি

দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া রুটে নদীর তীব্র স্রোতে ফেরি চলাচল ব্যাহত

প্রকাশের সময় : ০৮:১৬:১৯ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৪ সেপ্টেম্বর ২০২০

ঢাকা ব্যুরো #

শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌরুটে নাব্যতা সংকটে ফেরি চলাচল ফের বন্ধ হয়ে গেছে। পদ্মা সেতুর নিজস্ব চ্যানেলের ২৪ ও ২৫ নম্বর খুঁটির নিচে গতকাল আটকে যায় ফেরি কিশোরি। ঘণ্টাখানেক চেষ্টার পর ১৫টি যানবোঝাই ফেরিটি উদ্ধার করা সম্ভব হয়। এছাড়া কলমিলতা নামেও একটি ফেরি গতকাল ডুবোচরে আটকে পড়ে। এরপরই এই রুটে ফেরি চলাচল ফের বন্ধ করে দেওয়া হয়।

উল্লেখ্য, গত পাঁচ দিন থেকে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে নৌ দুর্ঘটনা এড়াতে এই রুটে রাতের বেলা ফেরি চলাচল বন্ধ রাখা হয়। দিনের বেলায় ছোট চারটি ফেরি দিয়ে জরুরি সেবার যানবাহনগুলোকে পারাপার করা হলেও গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল থেকে নৌপথে নাব্যতাসংকটের কারণে ফেরি চলাচল সম্পূর্ণভাবে বন্ধ করে দেয় কর্তৃপক্ষ। ফলে উভয় ঘাটে আটকা পড়ে বিপুলসংখ্যক যানবাহন। অন্যদিকে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া রুটে পদ্মার তীব্র স্রোতের কারণে ফেরি চলাচল ব্যাহত হওয়ায় দৌলতদিয়া ঘাট এলাকাতেও জমে যায় বিপুলসংখ্যক যানবাহন।

বৃহস্পতিবার বিকালে সরেজমিনে দৌলতদিয়া ঘাটে গিয়ে দেখা যায়, ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের দৌলতদিয়া জিরো পয়েন্ট থেকে বাংলাদেশ হ্যাচারিজ পর্যন্ত তিন কিলোমিটার এলাকা জুড়ে যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। অপরদিকে দৌলতদিয়া ঘাট থেকে ১২ কিলোমিটার দূরে গোয়ালন্দ মোড় থেকে রাজবাড়ী-কুষ্টিয়া আঞ্চলিক মহাসড়কে আহলাদিপুর ব্র্যাক ট্রেনিং সেন্টার পর্যন্ত চার কিলোমিটার এলাকা জুড়ে সৃষ্টি হয় বাস ও ট্রাকের জট। প্রতিটি পণ্যবাহী ট্রাককে অপেক্ষা করতে হচ্ছে দুই দিন থেকে তিন দিন পর্যন্ত।

বিআইডব্লিউটিসি দৌলতদিয়া ফেরিঘাটের সহকারী ব্যবস্থাপক মাহাবুবুর রহমান জানান, পদ্মায় প্রবল স্রোতের কারণে দৌলতদিয়া পাটুরিয়া নৌরুটে ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। ফেরিগুলোর নদী পার হতে স্বাভাবিকের চেয়ে দ্বিগুণ সময় লাগছে।