সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২৪ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

কমোডে বসেই যৌনাঙ্গে সাপের কামড় খেলেন যুবক

বিশেষ প্রতিনিধি #

বর্তমানকালের ছেলে-মেয়েদের যা হয় আর কি! স্মার্টফোনে বুঁদ যুবক। আচমকাই প্রকৃতির ডাক। সে ডাক অগ্রাহ্য করার ক্ষমতা নেই তাঁর। কিন্তু স্মার্টফোনে দেখতে থাকা ভিডিও থেকে চোখ সরানোর পরিস্থিতি নেই। কারণ, তাঁর মনে হচ্ছে চোখের পলক পড়লেই হবে মিস। তাই বাধ্য হয়ে স্মার্টফোন হাতে শৌচালয়ে ঢোকে যুবক। শৌচকর্ম সারতে গিয়ে ভয়াবহ অভিজ্ঞতার সাক্ষী ওই যুবক।

আচমকাই শৌচালয় থেকে চিৎকারের শব্দ পান যুবকের মা। তিনি হতভম্ব হয়ে যান। এগিয়ে যান শৌচালয়ের দিকে। দেখেন তাঁর ছেলে শৌচালয় থেকে দৌড়ে বেরিয়ে আসছে। তাঁর নিম্নাঙ্গে একটি সুতোও নেই। যন্ত্রণায় ছটফট করছেন যুবক। শৌচালয়ে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে পরিচ্ছদ।

কী হল ছেলের, কিছুতেই বুঝতে পারেননি তিনি। এরপর কমোডের ভিতর তাকাতেই চক্ষু ছানাবড়া। ওই যুবকের মা দেখেন কমোডের ভিতর গুটিসুটি দিয়ে বসে রয়েছে একটি বিশালাকার সাপ। ওই সাপটি তাঁর ছেলের যৌনাঙ্গে কামড়ে দেয়। তার ফলেই রক্তারক্তি কাণ্ড। যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছেন যুবক।

মধ্য ভিয়েতনামের ওই যুবককে রক্তাক্ত অবস্থায় নিয়ে যাওয়া হয় হাসপাতালে। সেখানেই চিকিৎসা হয় তাঁর। চিকিৎসক জানান, যৌনাঙ্গে কামড়ের ফলে যন্ত্রণা হচ্ছে যুবকের। তাই তাঁকে আগে অ্যান্টিবায়োটিক দেওয়া হয়।

এছাড়া যাতে কোনওভাবে বিষ ছড়িয়ে পড়ে যুবক অসুস্থ না হয়ে পড়েন, সেদিকেও খেয়াল রাখা হয়েছে। আপাতত ওই হাসপাতালেই ভরতি রয়েছেন তিনি।

যুবকের মা বলেন, “আচমকা ছেলের চিৎকার শুনে আঁতকে উঠেছিলাম। যখন বুঝতে পারলাম কী হয়েছে, তখন নিজেকে অসহায় লাগছিল। ছেলের প্রাণ সংশয় হবে না তো, সেই চিন্তাও মাথায় এসেছিল।

তবে বর্তমানে ছেলে সুস্থ রয়েছে দেখে শান্তিতে রয়েছি। কিন্তু কী করে বাড়িতে সাপ ঢুকল, তা বুঝতে পারছেন না ওই যুবকের মা।

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

দীর্ঘ ২৪ বছর পর একই মঞ্চে লতিফ সিদ্দিকী ও কাদের সিদ্দিকী

রাহুল-আথিয়া সাত পাকে বাঁধা পড়লেন

ভয়াবহ দাবানলে পুড়ছে চিলি , নিহত -২৪

কমোডে বসেই যৌনাঙ্গে সাপের কামড় খেলেন যুবক

প্রকাশের সময় : ০৭:০০:০৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১০ সেপ্টেম্বর ২০২০

বিশেষ প্রতিনিধি #

বর্তমানকালের ছেলে-মেয়েদের যা হয় আর কি! স্মার্টফোনে বুঁদ যুবক। আচমকাই প্রকৃতির ডাক। সে ডাক অগ্রাহ্য করার ক্ষমতা নেই তাঁর। কিন্তু স্মার্টফোনে দেখতে থাকা ভিডিও থেকে চোখ সরানোর পরিস্থিতি নেই। কারণ, তাঁর মনে হচ্ছে চোখের পলক পড়লেই হবে মিস। তাই বাধ্য হয়ে স্মার্টফোন হাতে শৌচালয়ে ঢোকে যুবক। শৌচকর্ম সারতে গিয়ে ভয়াবহ অভিজ্ঞতার সাক্ষী ওই যুবক।

আচমকাই শৌচালয় থেকে চিৎকারের শব্দ পান যুবকের মা। তিনি হতভম্ব হয়ে যান। এগিয়ে যান শৌচালয়ের দিকে। দেখেন তাঁর ছেলে শৌচালয় থেকে দৌড়ে বেরিয়ে আসছে। তাঁর নিম্নাঙ্গে একটি সুতোও নেই। যন্ত্রণায় ছটফট করছেন যুবক। শৌচালয়ে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে পরিচ্ছদ।

কী হল ছেলের, কিছুতেই বুঝতে পারেননি তিনি। এরপর কমোডের ভিতর তাকাতেই চক্ষু ছানাবড়া। ওই যুবকের মা দেখেন কমোডের ভিতর গুটিসুটি দিয়ে বসে রয়েছে একটি বিশালাকার সাপ। ওই সাপটি তাঁর ছেলের যৌনাঙ্গে কামড়ে দেয়। তার ফলেই রক্তারক্তি কাণ্ড। যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছেন যুবক।

মধ্য ভিয়েতনামের ওই যুবককে রক্তাক্ত অবস্থায় নিয়ে যাওয়া হয় হাসপাতালে। সেখানেই চিকিৎসা হয় তাঁর। চিকিৎসক জানান, যৌনাঙ্গে কামড়ের ফলে যন্ত্রণা হচ্ছে যুবকের। তাই তাঁকে আগে অ্যান্টিবায়োটিক দেওয়া হয়।

এছাড়া যাতে কোনওভাবে বিষ ছড়িয়ে পড়ে যুবক অসুস্থ না হয়ে পড়েন, সেদিকেও খেয়াল রাখা হয়েছে। আপাতত ওই হাসপাতালেই ভরতি রয়েছেন তিনি।

যুবকের মা বলেন, “আচমকা ছেলের চিৎকার শুনে আঁতকে উঠেছিলাম। যখন বুঝতে পারলাম কী হয়েছে, তখন নিজেকে অসহায় লাগছিল। ছেলের প্রাণ সংশয় হবে না তো, সেই চিন্তাও মাথায় এসেছিল।

তবে বর্তমানে ছেলে সুস্থ রয়েছে দেখে শান্তিতে রয়েছি। কিন্তু কী করে বাড়িতে সাপ ঢুকল, তা বুঝতে পারছেন না ওই যুবকের মা।