সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২৪ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

স্পিকারের সঙ্গে ভারতের হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলী বিদায়ী সাক্ষাৎ

রোকনুজ্জামান রিপন #

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সঙ্গে বিদায়ী সাক্ষাৎ করেছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের বিদায়ী হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলী দাশ।সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ ভবনস্থ স্পিকারের কার্যালয়ে এই সাক্ষাৎ হয় বলে সংসদ সচিবালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, সাক্ষাৎকালে তারা বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাস প্রেক্ষাপটে পরিবির্তিত বিশ্ব পরিস্থিতি ও জীবনযাত্রার পরিবর্তন সম্পর্কে আলোচনা করেন।

স্পিকার বলেন, বৈশ্বিক মহামারি কভিড-১৯ এর দুর্যোগকালীন সময়ে ঝুঁকি থাকা সত্বেও অত্যন্ত সতর্কতার সঙ্গে বাজেট অধিবেশনসহ দুটি অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়েছে। করোনা পরিস্থিতি বিবেচনায় রেখে চিকিৎসা পদ্ধতিতে অনলাইন প্রক্রিয়ার সংযোজন হয়েছে, যা মানুষের জীবনকে সহজ করেছে।

বিদায়ী হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলী দাশ করোনাভাইরাসের এই ক্রান্তিকালে সকলে গৃহবন্দী থাকা সত্ত্বেও ভার্চুয়াল পদ্ধতি অনুসরণ করে সকল কার্যক্রম সফলতার সঙ্গে সম্পন্ন করায় বাংলাদেশ সরকারের প্রশংসা করেন।

ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের পথে এটি একটি উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপ বলে তিনি উল্লেখ করেন।

স্পিকার শিরীন শারমিন এ সময় দুদেশের সম্পর্ক নিয়ে বলেন, পারস্পরিক স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে প্রতিবেশী দুই দেশের মধ্যে সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে। এসময় সফলতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করার জন্য বিদায়ী হাইকমিশনারকে ধন্যবাদ জানান স্পিকার।

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

দীর্ঘ ২৪ বছর পর একই মঞ্চে লতিফ সিদ্দিকী ও কাদের সিদ্দিকী

রাহুল-আথিয়া সাত পাকে বাঁধা পড়লেন

ঠাকুরগাঁওয়ে কুয়াশায় ঢাকা চারপাশ, কমেছে তাপমাত্রা

স্পিকারের সঙ্গে ভারতের হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলী বিদায়ী সাক্ষাৎ

প্রকাশের সময় : ১০:২৪:৪১ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২০

রোকনুজ্জামান রিপন #

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সঙ্গে বিদায়ী সাক্ষাৎ করেছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের বিদায়ী হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলী দাশ।সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ ভবনস্থ স্পিকারের কার্যালয়ে এই সাক্ষাৎ হয় বলে সংসদ সচিবালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, সাক্ষাৎকালে তারা বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাস প্রেক্ষাপটে পরিবির্তিত বিশ্ব পরিস্থিতি ও জীবনযাত্রার পরিবর্তন সম্পর্কে আলোচনা করেন।

স্পিকার বলেন, বৈশ্বিক মহামারি কভিড-১৯ এর দুর্যোগকালীন সময়ে ঝুঁকি থাকা সত্বেও অত্যন্ত সতর্কতার সঙ্গে বাজেট অধিবেশনসহ দুটি অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়েছে। করোনা পরিস্থিতি বিবেচনায় রেখে চিকিৎসা পদ্ধতিতে অনলাইন প্রক্রিয়ার সংযোজন হয়েছে, যা মানুষের জীবনকে সহজ করেছে।

বিদায়ী হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলী দাশ করোনাভাইরাসের এই ক্রান্তিকালে সকলে গৃহবন্দী থাকা সত্ত্বেও ভার্চুয়াল পদ্ধতি অনুসরণ করে সকল কার্যক্রম সফলতার সঙ্গে সম্পন্ন করায় বাংলাদেশ সরকারের প্রশংসা করেন।

ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের পথে এটি একটি উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপ বলে তিনি উল্লেখ করেন।

স্পিকার শিরীন শারমিন এ সময় দুদেশের সম্পর্ক নিয়ে বলেন, পারস্পরিক স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে প্রতিবেশী দুই দেশের মধ্যে সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে। এসময় সফলতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করার জন্য বিদায়ী হাইকমিশনারকে ধন্যবাদ জানান স্পিকার।