রবিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২৩, ১৬ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ভারতীয় ভুখণ্ডের ৩৮ হাজার বর্গ কিমি জুড়ে চীন সেনার অবস্থান

মো: ইদ্রিস আলী # 

লাদাখে ভারতীয় ভুখন্ডের ৩৮ হাজার বর্গ কিমি জুড়ে চীন সেনার অবস্থান বলে জানালেন রাজনাথ সিং। আজ বৃহস্পতিবার ভারতের রাজ্য সভায় তিনি একথা বলেন। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়ার।

এর আগে, গত মঙ্গলবার ভারতের লোকসভায় বক্তব্য রাখেন রাজনাথ। সেখানে চীনকে পরিষ্কার বার্তা দেন তিনি। তিনি বলেন, সব ধরণের প্রস্তুতি সেরে ফেলেছে ভারতীয় সেনা। যে কোনও দখলদারি মনোভাবের প্রতিবেশীকে কড়া শাস্তি দেওয়ার ক্ষমতা ভারতের আছে।

উল্লেখ্য, মুখে শান্তির কথা বললেও সীমান্তে খালি লোকবল ও অস্ত্রশস্ত্র বাড়াচ্ছে চীন। সামঞ্জস্য বজায় রাখার জন্য একই পথে যাচ্ছে ভারত। কিন্তু এর ফলে ক্রমশই উত্তপ্ত হয়ে উঠছে সীমান্ত। প্যাংগংয়ের দক্ষিণ প্রান্তে অনেক গুরুত্বপূর্ণ জায়গার দখলও এখন ভারতের হাতে। ফলে খেলা অনেকটাই ঘুরেছে।

এদিকে, লোকসভায় রাজনাথের বক্তব্যের পরেই তর্জন গর্জন শুরু হয় চীনের। বেইজিংয়ের পক্ষ থেকে বলা হয় যুদ্ধ অথবা শান্তি, চীন দুই রাস্তাতেই হাঁটতে রাজি। চীনের জাতীয় সংবাদমাধ্যম গ্লোবাল টাইমসের এক প্রতিবেদনকে উদ্ধৃত করে জানানো হয় চীনা সেনার চাপেই নাকি ভারতীয় সেনা সীমান্তে শান্তির কথা বলছে। ভারত চীনের চাপেই শান্তির বার্তা দিচ্ছে।

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

দীর্ঘ ২৪ বছর পর একই মঞ্চে লতিফ সিদ্দিকী ও কাদের সিদ্দিকী

রাহুল-আথিয়া সাত পাকে বাঁধা পড়লেন

জাতীর জনক বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ছিল দেশকে সোনার বাংলা করা -শেখ আফিল উদ্দিন, এমপি

ভারতীয় ভুখণ্ডের ৩৮ হাজার বর্গ কিমি জুড়ে চীন সেনার অবস্থান

প্রকাশের সময় : ০৯:৫০:৪২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২০

মো: ইদ্রিস আলী # 

লাদাখে ভারতীয় ভুখন্ডের ৩৮ হাজার বর্গ কিমি জুড়ে চীন সেনার অবস্থান বলে জানালেন রাজনাথ সিং। আজ বৃহস্পতিবার ভারতের রাজ্য সভায় তিনি একথা বলেন। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়ার।

এর আগে, গত মঙ্গলবার ভারতের লোকসভায় বক্তব্য রাখেন রাজনাথ। সেখানে চীনকে পরিষ্কার বার্তা দেন তিনি। তিনি বলেন, সব ধরণের প্রস্তুতি সেরে ফেলেছে ভারতীয় সেনা। যে কোনও দখলদারি মনোভাবের প্রতিবেশীকে কড়া শাস্তি দেওয়ার ক্ষমতা ভারতের আছে।

উল্লেখ্য, মুখে শান্তির কথা বললেও সীমান্তে খালি লোকবল ও অস্ত্রশস্ত্র বাড়াচ্ছে চীন। সামঞ্জস্য বজায় রাখার জন্য একই পথে যাচ্ছে ভারত। কিন্তু এর ফলে ক্রমশই উত্তপ্ত হয়ে উঠছে সীমান্ত। প্যাংগংয়ের দক্ষিণ প্রান্তে অনেক গুরুত্বপূর্ণ জায়গার দখলও এখন ভারতের হাতে। ফলে খেলা অনেকটাই ঘুরেছে।

এদিকে, লোকসভায় রাজনাথের বক্তব্যের পরেই তর্জন গর্জন শুরু হয় চীনের। বেইজিংয়ের পক্ষ থেকে বলা হয় যুদ্ধ অথবা শান্তি, চীন দুই রাস্তাতেই হাঁটতে রাজি। চীনের জাতীয় সংবাদমাধ্যম গ্লোবাল টাইমসের এক প্রতিবেদনকে উদ্ধৃত করে জানানো হয় চীনা সেনার চাপেই নাকি ভারতীয় সেনা সীমান্তে শান্তির কথা বলছে। ভারত চীনের চাপেই শান্তির বার্তা দিচ্ছে।