শনিবার, ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২২ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

অনাগত সন্তান ছেলে হবে কিনা দেখতে স্ত্রীর পেট কাটলো স্বামী

নজরুল ইসলাম #

গর্ভে পুত্রসন্তান আছে কি না তা নিশ্চিত হতে সাত মাসের অন্ত্বঃসত্তা স্ত্রীর পেট কেটে দেখার অভিযোগ উঠেছে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের উত্তরপ্রদেশের বদায়ুঁরে। মহিলার স্বামী পান্নালালকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

পুলিশ জানিয়েছে, গুরুতর জখম অবস্থায় মহিলাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, পর পর পাঁচটি কন্যাসন্তানের জন্ম দিয়েছেন ওই মহিলা। এ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে প্রায়ই অশান্তি লেগে থাকতো। পুত্রসন্তানের জন্য এক প্রকার মরিয়া হয়ে উঠেছিলেন পান্নালাল। স্ত্রী ষষ্ঠ বার গর্ভবর্তী হলে পুত্রসন্তানের আকাঙ্ক্ষা আরো বেড়ে গিয়েছিল তার।

বদায়ুঁর শীর্ষ পুলিশ কর্মকর্তা প্রবীণ সিংহ চৌহান জানিয়েছেন, স্ত্রীর গর্ভে পুত্রসন্তান আদৌ আছে কি না, তা নিশ্চিত হতে ধারাল অস্ত্র দিয়ে তার পেট কেটে ফেলেন পান্নালাল। ঘটনাটি জানাজানি হতেই পুলিশে খবর দেন স্থানীয় বাসিন্দারা। পরে পুলিশ এসে মহিলাকে উদ্ধার করে। গ্রেফতার করা হয় পান্নালালকে।

পান্নালালের স্ত্রীর পরিবারের অভিযোগ, পর পর কন্যাসন্তান জন্ম দেয়ার জন্য স্ত্রীর উপর অত্যাচার চালাতেন পান্নালাল। শুধু তাই নয়, পুত্রসন্তান চাই-ই— স্ত্রীকে এমন হুমকিও দিতেন। সূত্র: আনন্দবাজার

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

দীর্ঘ ২৪ বছর পর একই মঞ্চে লতিফ সিদ্দিকী ও কাদের সিদ্দিকী

রাহুল-আথিয়া সাত পাকে বাঁধা পড়লেন

বাংলাদেশ ও ভারত হচ্ছে অকৃত্রিম বন্ধু: ভারতীয় হাই কমিশনার

অনাগত সন্তান ছেলে হবে কিনা দেখতে স্ত্রীর পেট কাটলো স্বামী

প্রকাশের সময় : ০৪:৪২:২৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০
নজরুল ইসলাম #

গর্ভে পুত্রসন্তান আছে কি না তা নিশ্চিত হতে সাত মাসের অন্ত্বঃসত্তা স্ত্রীর পেট কেটে দেখার অভিযোগ উঠেছে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের উত্তরপ্রদেশের বদায়ুঁরে। মহিলার স্বামী পান্নালালকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

পুলিশ জানিয়েছে, গুরুতর জখম অবস্থায় মহিলাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, পর পর পাঁচটি কন্যাসন্তানের জন্ম দিয়েছেন ওই মহিলা। এ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে প্রায়ই অশান্তি লেগে থাকতো। পুত্রসন্তানের জন্য এক প্রকার মরিয়া হয়ে উঠেছিলেন পান্নালাল। স্ত্রী ষষ্ঠ বার গর্ভবর্তী হলে পুত্রসন্তানের আকাঙ্ক্ষা আরো বেড়ে গিয়েছিল তার।

বদায়ুঁর শীর্ষ পুলিশ কর্মকর্তা প্রবীণ সিংহ চৌহান জানিয়েছেন, স্ত্রীর গর্ভে পুত্রসন্তান আদৌ আছে কি না, তা নিশ্চিত হতে ধারাল অস্ত্র দিয়ে তার পেট কেটে ফেলেন পান্নালাল। ঘটনাটি জানাজানি হতেই পুলিশে খবর দেন স্থানীয় বাসিন্দারা। পরে পুলিশ এসে মহিলাকে উদ্ধার করে। গ্রেফতার করা হয় পান্নালালকে।

পান্নালালের স্ত্রীর পরিবারের অভিযোগ, পর পর কন্যাসন্তান জন্ম দেয়ার জন্য স্ত্রীর উপর অত্যাচার চালাতেন পান্নালাল। শুধু তাই নয়, পুত্রসন্তান চাই-ই— স্ত্রীকে এমন হুমকিও দিতেন। সূত্র: আনন্দবাজার