সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২৪ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

যেসব খাবারে থাকে ক্ষতিকর ইউরিক অ্যাসিড

various legumes on white background top view top view

অফসরাহ মহসিন #
জিনগত কারণ কিংবা অনিয়ন্ত্রিত জীবনযাপন করলে শরীরে ইউরিক অ্যাসিডের সমস্যা বাড়ে। কাজেই চিকিৎসকরা লাইফস্টাইল ডিজিজের মধ্যে রাখছেন ইউরিক অ্যাসিড বেড়ে যাওয়াকে। আর ঘরে ঘরে ছড়িয়েও পড়ছে এই সমস্যা। রক্তে ইউরিক অ্যাসিড বেড়ে যাওয়ার জেরেই একে একে জাঁকিয়ে বসে কিডনির রোগ, উচ্চ রক্তচাপ। জানুন ইউরিক অ্যাসিডকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে কী কী খাবেন না কখনও।

চেষ্টা করতে হবে কম তৈলাক্ত খাবার ডায়েটে রাখতে। ভাজাপোড়ায় যদি লোভ থাকে, তাহলে অভ্যাস বদলাতে কাবাব জাতীয় খাবার খেতে পারেন। চেষ্টা করতে হবে কম তৈলাক্ত খাবার ডায়েটে রাখতে। ভাজাপোড়ায় যদি লোভ থাকে, তাহলে অভ্যেস বদলাতে কাবাব জাতীয় খাবার খেতে পারেন।

রেড মিট বাদ দিন। বাদ থাকুক বেকন, সসেজও। এড়িয়ে চলুন দুধ। খাবারে চিনির পরিমাণ কমিয়ে দিন।অ্যাসপিরিন জাতীয় ওষুধ কখনও খাবেন না। খাবেন না দুধ চা। পরিবর্তে চলতে পারে কফি। অ্যা

বাজারের জুস, কোল্ড ড্রিঙ্ক অ্যাভোয়েড করতেই হবে। খাদ্য তালিকায় যেন লেবু থাকে। ভিটামিন সি ইউরিক অ্যাসিড নিয়ন্ত্রণে দারুণ কাজ করে।

নিয়মিত স্বাস্থ্য চর্চা করুন। ওজন বাড়তে দেওয়া চলবে না। এতে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে থাকবে। বাড়বে না ইউরিক অ্যাসিডও। নিয়মিত স্বাস্থ্য চর্চা করুন। ওজন বাড়তে দেওয়া চলবে না। এতে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে থাকবে। বাড়বে না ইউরিক অ্যাসিডও।

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

দীর্ঘ ২৪ বছর পর একই মঞ্চে লতিফ সিদ্দিকী ও কাদের সিদ্দিকী

রাহুল-আথিয়া সাত পাকে বাঁধা পড়লেন

ঠাকুরগাঁওয়ে কুয়াশায় ঢাকা চারপাশ, কমেছে তাপমাত্রা

যেসব খাবারে থাকে ক্ষতিকর ইউরিক অ্যাসিড

প্রকাশের সময় : ০৭:১৫:১৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০
অফসরাহ মহসিন #
জিনগত কারণ কিংবা অনিয়ন্ত্রিত জীবনযাপন করলে শরীরে ইউরিক অ্যাসিডের সমস্যা বাড়ে। কাজেই চিকিৎসকরা লাইফস্টাইল ডিজিজের মধ্যে রাখছেন ইউরিক অ্যাসিড বেড়ে যাওয়াকে। আর ঘরে ঘরে ছড়িয়েও পড়ছে এই সমস্যা। রক্তে ইউরিক অ্যাসিড বেড়ে যাওয়ার জেরেই একে একে জাঁকিয়ে বসে কিডনির রোগ, উচ্চ রক্তচাপ। জানুন ইউরিক অ্যাসিডকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে কী কী খাবেন না কখনও।

চেষ্টা করতে হবে কম তৈলাক্ত খাবার ডায়েটে রাখতে। ভাজাপোড়ায় যদি লোভ থাকে, তাহলে অভ্যাস বদলাতে কাবাব জাতীয় খাবার খেতে পারেন। চেষ্টা করতে হবে কম তৈলাক্ত খাবার ডায়েটে রাখতে। ভাজাপোড়ায় যদি লোভ থাকে, তাহলে অভ্যেস বদলাতে কাবাব জাতীয় খাবার খেতে পারেন।

রেড মিট বাদ দিন। বাদ থাকুক বেকন, সসেজও। এড়িয়ে চলুন দুধ। খাবারে চিনির পরিমাণ কমিয়ে দিন।অ্যাসপিরিন জাতীয় ওষুধ কখনও খাবেন না। খাবেন না দুধ চা। পরিবর্তে চলতে পারে কফি। অ্যা

বাজারের জুস, কোল্ড ড্রিঙ্ক অ্যাভোয়েড করতেই হবে। খাদ্য তালিকায় যেন লেবু থাকে। ভিটামিন সি ইউরিক অ্যাসিড নিয়ন্ত্রণে দারুণ কাজ করে।

নিয়মিত স্বাস্থ্য চর্চা করুন। ওজন বাড়তে দেওয়া চলবে না। এতে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে থাকবে। বাড়বে না ইউরিক অ্যাসিডও। নিয়মিত স্বাস্থ্য চর্চা করুন। ওজন বাড়তে দেওয়া চলবে না। এতে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে থাকবে। বাড়বে না ইউরিক অ্যাসিডও।