রবিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২৩, ১৬ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

যশোরে আ.লীগ নেতা বিপুসহ চারজন পুলিশ হেফাজতে

যশোর ব্যুরো ##  যশোরে এক পুলিশ সদস্যকে মারপিট ও অপহরণচেষ্টার অভিযোগে শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ হাসান বিপুসহ চারজনকে হেফাজতে নিয়েছে পুলিশ।

সোমবার রাত ৮ টার দিকে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশের একটি সূত্র জানায়, রাত ৮টার দিকে পুলিশ লাইন্সে কর্মরত কনস্টেবল ইমরান সাদা পোশাকে পুরাতন কসবায় যশোর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে বসে এক নারীর সাথে গল্প করছিলেন। এ সময় কতিপয় দুর্বৃত্ত পুলিশ সদস্য ইমরানের ওপর চড়াও হন। নিজের পরিচয় দিয়ে ও পরিচয়পত্র দেখিয়ে পুলিশকনস্টেবল ইমরান এর প্রতিবাদ করেন। কিন্তু তারা ক্ষ্যান্ত না হয়ে তাকে শহীদ মিনার থেকে ধরে পাশের আবু নাসের ক্লাবে নিয়ে যায়।

জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার একজন সদস্য জানান, ওই ঘটনার সময় সেখানে আসেন শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ হাসান বিপু। তিনি এ সময় পুলিশ কনস্টেবলকে কোনো কিছু বলার সুযোগ না দিয়ে সেখান থেকে রিকশার পাদানিতে বসিয়ে নিয়ে যাওয়া হয় পুরাতন কসবা কাঠালতলায়। সেখানে নিয়ে ইমরানকে বেদম প্রহার করা হয়।

এ খবর পেয়ে পুলিশের বেশ কয়েকজন কর্মকর্তা শহীদ মিনার ও কাঁঠালতলায় ছুটে যান। এর পরিপ্রেক্ষিতে যারা ইমরানকে ধরে নিয়ে গিয়েছিলেন, তারাই আবার তাকে শহীদ মিনার এলাকায় এনে রেখে যান। পুলিশ এ ঘটনায় মাহমুদ হাসান বিপুসহ চারজনকে হেফাজতে নেয়।

অতিরিক্তপুলিশ সুপার (বিশেষ শাখা) মোহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম জানান, ওই ঘটনায় মাহমুদ হাসান বিপুসহ চারজনকে পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয়েছে।

পুলিশ সুপার মুহাম্মদ আশরাফ হোসেন মঙ্গলবার সকালে বলেন, বিপু ও তার লোকজন পুলিশ সদস্যকে মারপিট করে আইন ভঙ্গ করেছেন। তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে পুলিশের উধ্বর্তন কর্মকর্তা ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ে পরামর্শ চাওয়া হয়েছে। শিগগিরই বিষয়টি নিয়ে পরবর্তী পদক্ষেপ সম্পর্কে আপনাদের জানানো হবে।

আপনার মন্তব্য লিখুন

লেখকের সম্পর্কে

Shahriar Hossain

দীর্ঘ ২৪ বছর পর একই মঞ্চে লতিফ সিদ্দিকী ও কাদের সিদ্দিকী

রাহুল-আথিয়া সাত পাকে বাঁধা পড়লেন

জাতীর জনক বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ছিল দেশকে সোনার বাংলা করা -শেখ আফিল উদ্দিন, এমপি

যশোরে আ.লীগ নেতা বিপুসহ চারজন পুলিশ হেফাজতে

প্রকাশের সময় : ১২:১৪:০৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১২ জানুয়ারী ২০২১

যশোর ব্যুরো ##  যশোরে এক পুলিশ সদস্যকে মারপিট ও অপহরণচেষ্টার অভিযোগে শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ হাসান বিপুসহ চারজনকে হেফাজতে নিয়েছে পুলিশ।

সোমবার রাত ৮ টার দিকে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশের একটি সূত্র জানায়, রাত ৮টার দিকে পুলিশ লাইন্সে কর্মরত কনস্টেবল ইমরান সাদা পোশাকে পুরাতন কসবায় যশোর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে বসে এক নারীর সাথে গল্প করছিলেন। এ সময় কতিপয় দুর্বৃত্ত পুলিশ সদস্য ইমরানের ওপর চড়াও হন। নিজের পরিচয় দিয়ে ও পরিচয়পত্র দেখিয়ে পুলিশকনস্টেবল ইমরান এর প্রতিবাদ করেন। কিন্তু তারা ক্ষ্যান্ত না হয়ে তাকে শহীদ মিনার থেকে ধরে পাশের আবু নাসের ক্লাবে নিয়ে যায়।

জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার একজন সদস্য জানান, ওই ঘটনার সময় সেখানে আসেন শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ হাসান বিপু। তিনি এ সময় পুলিশ কনস্টেবলকে কোনো কিছু বলার সুযোগ না দিয়ে সেখান থেকে রিকশার পাদানিতে বসিয়ে নিয়ে যাওয়া হয় পুরাতন কসবা কাঠালতলায়। সেখানে নিয়ে ইমরানকে বেদম প্রহার করা হয়।

এ খবর পেয়ে পুলিশের বেশ কয়েকজন কর্মকর্তা শহীদ মিনার ও কাঁঠালতলায় ছুটে যান। এর পরিপ্রেক্ষিতে যারা ইমরানকে ধরে নিয়ে গিয়েছিলেন, তারাই আবার তাকে শহীদ মিনার এলাকায় এনে রেখে যান। পুলিশ এ ঘটনায় মাহমুদ হাসান বিপুসহ চারজনকে হেফাজতে নেয়।

অতিরিক্তপুলিশ সুপার (বিশেষ শাখা) মোহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম জানান, ওই ঘটনায় মাহমুদ হাসান বিপুসহ চারজনকে পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয়েছে।

পুলিশ সুপার মুহাম্মদ আশরাফ হোসেন মঙ্গলবার সকালে বলেন, বিপু ও তার লোকজন পুলিশ সদস্যকে মারপিট করে আইন ভঙ্গ করেছেন। তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে পুলিশের উধ্বর্তন কর্মকর্তা ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ে পরামর্শ চাওয়া হয়েছে। শিগগিরই বিষয়টি নিয়ে পরবর্তী পদক্ষেপ সম্পর্কে আপনাদের জানানো হবে।