শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

১০ হাজার ৭০০ কোটি টাকা রেমিট্যান্স এসেছে ১৫ দিনে

ঢাকা ব্যুরো।। মহামারি করোনা ভাইরাসের মধ্যেও ঈদের আগে চলতি মাসের প্রথম ১৫ দিনে প্রবাসী বাংলাদেশিরা ১০ হাজার ৭০০ কোটি টাকার সমপরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রা দেশে পাঠিয়েছেন।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, বৈধপথে রেমিট্যান্সে দুই শতাংশ নগদ প্রণোদনার সঙ্গে কয়েকটি ব্যাংক আরও এক শতাংশ প্রণোদনা দেওয়ায় গত দুই বছর ধরে ধারাবাহিকভাবে বেড়েই চলেছে রেমিট্যান্স।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের হিসাবে জুলাই মাসের প্রথম ১৫ দিনে প্রবাসীরা ১২৬ কোটি ৪২ লাখ ডলার দেশে পাঠিয়েছেন। বাংলাদেশি টাকায় এ অর্থের পরিমাণ ১০ হাজার ৭০০ কোটি টাকা। রেমিট্যান্সের এ ধারা অব্যাহত থাকলে চলতি মাসে রেমিট্যান্সের পরিমাণ ২৫০ কোটি ডলার অতিক্রম করবে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সবচেয়ে বেশি রেমিট্যান্স এসেছে ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেডের মাধ্যমে। এ ব্যাংকের মাধ্যমে এসেছে ৩৮ কোটি ৭৮ লাখ ডলার। ডাচ বাংলা ব্যাংকের মাধ্যমে এসেছে ১৬ কোটি ৯২ লাখ ডলার। অগ্রণী ব্যাংকের মাধ্যমে ১৩ কোটি ৭৬ লাখ ডলার ও সোনালী ব্যাংকের মাধ্যমে এসেছে সাত কোটি ৬৪ লাখ ডলার।

১০ হাজার ৭০০ কোটি টাকা রেমিট্যান্স এসেছে ১৫ দিনে

প্রকাশের সময় : ০৩:৫৭:২৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২০ জুলাই ২০২১

ঢাকা ব্যুরো।। মহামারি করোনা ভাইরাসের মধ্যেও ঈদের আগে চলতি মাসের প্রথম ১৫ দিনে প্রবাসী বাংলাদেশিরা ১০ হাজার ৭০০ কোটি টাকার সমপরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রা দেশে পাঠিয়েছেন।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, বৈধপথে রেমিট্যান্সে দুই শতাংশ নগদ প্রণোদনার সঙ্গে কয়েকটি ব্যাংক আরও এক শতাংশ প্রণোদনা দেওয়ায় গত দুই বছর ধরে ধারাবাহিকভাবে বেড়েই চলেছে রেমিট্যান্স।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের হিসাবে জুলাই মাসের প্রথম ১৫ দিনে প্রবাসীরা ১২৬ কোটি ৪২ লাখ ডলার দেশে পাঠিয়েছেন। বাংলাদেশি টাকায় এ অর্থের পরিমাণ ১০ হাজার ৭০০ কোটি টাকা। রেমিট্যান্সের এ ধারা অব্যাহত থাকলে চলতি মাসে রেমিট্যান্সের পরিমাণ ২৫০ কোটি ডলার অতিক্রম করবে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সবচেয়ে বেশি রেমিট্যান্স এসেছে ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেডের মাধ্যমে। এ ব্যাংকের মাধ্যমে এসেছে ৩৮ কোটি ৭৮ লাখ ডলার। ডাচ বাংলা ব্যাংকের মাধ্যমে এসেছে ১৬ কোটি ৯২ লাখ ডলার। অগ্রণী ব্যাংকের মাধ্যমে ১৩ কোটি ৭৬ লাখ ডলার ও সোনালী ব্যাংকের মাধ্যমে এসেছে সাত কোটি ৬৪ লাখ ডলার।