শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

মাংস নিয়ে স্বামীর সঙ্গে ঝগড়া, ৩ সন্তানসহ বিষপান

কক্সবাজার প্রতিনিধি।। কোরবানির মাংস নিয়ে স্বামীর সঙ্গে ঝগড়ার জেরে তিন সন্তানসহ বিষপান করেছেন মুরশেদা আক্তার (৩৫) নামের এক নারী। এর মধ্যে মায়নুর (১৪) নামের এক সন্তানের মৃত্যু হয়েছে।
ঈদুল আজহার দিন বুধবার (২১ জুলাই) রাত ১১টার দিকে কক্সবাজারের মহেশখালী উপজেলার সিপাহিরপাড়া এলাকায় ইয়ার মোহাম্মদের বাড়িতে ঘটনাটি ঘটে। মাসহ বাকি দুই সন্তানকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন স্থানীয় ইউপি সদস্য জাকারিয়া।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ইয়ার মোহাম্মদের বোনের বাড়ি থেকে কোরবানির মাংস দেওয়া হলে সেটা নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঈদের দিন দুপুরে ঝগড়া হয়। এতে স্বামীর সঙ্গে অভিমান করে রাত ১১টার দিকে ঘরের দরজা বন্ধ করে তিন সন্তান মাইনুর (১৪), রাকিব (৫) ও নাফিজাকে (৩) বিষ খাইয়ে মুরশেদা আক্তার নিজেও বিষপান করেন।
পরে স্থানীয়রা ছেলে-মেয়েদের কান্নার শব্দ পেয়ে উঁকি দিয়ে দেখেন দরজা বন্ধ। ডাকাডাকি করেও কোনও খবর না পেয়ে দরজা ভেঙে চারজনকে মুমূর্ষু অবস্থায় মহেশখালী হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে চিকিৎসক মাইনুরকে মৃত ঘোষণা করেন। বাকিদেরকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়।
মহেশখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি, তদন্ত) আশিক ইকবাল বলেন, কোরবানির মাংস নিয়ে ঝগড়ার জেরে এক পরিবারের সবাই বিষপানের খবর পেয়ে মহেশখালী থানা পুলিশের একটি টিম গিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মাংস নিয়ে স্বামীর সঙ্গে ঝগড়া, ৩ সন্তানসহ বিষপান

প্রকাশের সময় : ০৮:০০:৪৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ জুলাই ২০২১
কক্সবাজার প্রতিনিধি।। কোরবানির মাংস নিয়ে স্বামীর সঙ্গে ঝগড়ার জেরে তিন সন্তানসহ বিষপান করেছেন মুরশেদা আক্তার (৩৫) নামের এক নারী। এর মধ্যে মায়নুর (১৪) নামের এক সন্তানের মৃত্যু হয়েছে।
ঈদুল আজহার দিন বুধবার (২১ জুলাই) রাত ১১টার দিকে কক্সবাজারের মহেশখালী উপজেলার সিপাহিরপাড়া এলাকায় ইয়ার মোহাম্মদের বাড়িতে ঘটনাটি ঘটে। মাসহ বাকি দুই সন্তানকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন স্থানীয় ইউপি সদস্য জাকারিয়া।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ইয়ার মোহাম্মদের বোনের বাড়ি থেকে কোরবানির মাংস দেওয়া হলে সেটা নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঈদের দিন দুপুরে ঝগড়া হয়। এতে স্বামীর সঙ্গে অভিমান করে রাত ১১টার দিকে ঘরের দরজা বন্ধ করে তিন সন্তান মাইনুর (১৪), রাকিব (৫) ও নাফিজাকে (৩) বিষ খাইয়ে মুরশেদা আক্তার নিজেও বিষপান করেন।
পরে স্থানীয়রা ছেলে-মেয়েদের কান্নার শব্দ পেয়ে উঁকি দিয়ে দেখেন দরজা বন্ধ। ডাকাডাকি করেও কোনও খবর না পেয়ে দরজা ভেঙে চারজনকে মুমূর্ষু অবস্থায় মহেশখালী হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে চিকিৎসক মাইনুরকে মৃত ঘোষণা করেন। বাকিদেরকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়।
মহেশখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি, তদন্ত) আশিক ইকবাল বলেন, কোরবানির মাংস নিয়ে ঝগড়ার জেরে এক পরিবারের সবাই বিষপানের খবর পেয়ে মহেশখালী থানা পুলিশের একটি টিম গিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।