বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৫ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বেনাপোল বন্দর দিয়ে ১৭৩ মে.টন অক্সিজেন আমদানি

তানভীর মহসিন, বেনাপোল ।। বেনাপোল বন্দর দিয়ে আজ শনিবার বিকেলে জরুরি সেবার অংশ হিসেবে ১১ টি ট্যাংকারে করে ১৭৩ মে: টন অক্সিজেন আমদানি হয়েছে।
বেনাপোল বন্দরের পরিচালক আ: জলিল জানান, ভারত থেকে বেনাপোল স্থলবন্দরে ১১ ট্যাংকারে করে ১৭৩ মে:টন অক্সিজেন আমদানি হয়। অক্সিজেনের চালানগুলো দ্রæত খালাশের জন্য সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে।জরুরী খালাশের জন্য ট্যাংকার গুলো বন্দরের ট্রান্সশিপমেন্ট ইয়ার্ডে রাখা হয়ছে। আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে রয়েছে লিন্ডে বাংলাদেশ লি: ও পিওর বিডি লি:
ঈদের দিনও বেনাপোল বন্দর দিয়ে ১৮০ মে:টন অক্সিজেন আমদানি হয়েছে। তবে দেশে মহামারি করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় অক্সিজেনের চাহিদাও বেড়ে যায় দেশে।
বেনাপোল কাস্টম হাউসের কমিশনার আজিজুর রহমান জানান, দেশে অক্সিজেনের চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় আজও ১৭৩ মে: টন অক্সিজেন আমদানি হয়েছে বেনাপোল বন্দর দিয়ে। আমদানিকারকরা যাতে দ্রæত অক্সিজেন খালাস নিতে পারেন সেজন্য কাস্টমস কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে ২টি টিম প্রস্তুত রাখা হয়েছে সার¦ক্ষনিক। কাস্টমস ও বন্দরের সকল আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করে অক্সিজেনের চালান গুলো তারা খালাশ নিয়েছেন।

 

বেনাপোল বন্দর দিয়ে ১৭৩ মে.টন অক্সিজেন আমদানি

প্রকাশের সময় : ০৯:২২:৫১ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৪ জুলাই ২০২১

তানভীর মহসিন, বেনাপোল ।। বেনাপোল বন্দর দিয়ে আজ শনিবার বিকেলে জরুরি সেবার অংশ হিসেবে ১১ টি ট্যাংকারে করে ১৭৩ মে: টন অক্সিজেন আমদানি হয়েছে।
বেনাপোল বন্দরের পরিচালক আ: জলিল জানান, ভারত থেকে বেনাপোল স্থলবন্দরে ১১ ট্যাংকারে করে ১৭৩ মে:টন অক্সিজেন আমদানি হয়। অক্সিজেনের চালানগুলো দ্রæত খালাশের জন্য সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে।জরুরী খালাশের জন্য ট্যাংকার গুলো বন্দরের ট্রান্সশিপমেন্ট ইয়ার্ডে রাখা হয়ছে। আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে রয়েছে লিন্ডে বাংলাদেশ লি: ও পিওর বিডি লি:
ঈদের দিনও বেনাপোল বন্দর দিয়ে ১৮০ মে:টন অক্সিজেন আমদানি হয়েছে। তবে দেশে মহামারি করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় অক্সিজেনের চাহিদাও বেড়ে যায় দেশে।
বেনাপোল কাস্টম হাউসের কমিশনার আজিজুর রহমান জানান, দেশে অক্সিজেনের চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় আজও ১৭৩ মে: টন অক্সিজেন আমদানি হয়েছে বেনাপোল বন্দর দিয়ে। আমদানিকারকরা যাতে দ্রæত অক্সিজেন খালাস নিতে পারেন সেজন্য কাস্টমস কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে ২টি টিম প্রস্তুত রাখা হয়েছে সার¦ক্ষনিক। কাস্টমস ও বন্দরের সকল আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করে অক্সিজেনের চালান গুলো তারা খালাশ নিয়েছেন।