বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

লখনৌ অবরোধের হুঁশিয়ারি ভারতীয় কৃষকদের

সেলিম রেজা, আন্তর্জাতিক ডেস্ক।। ভারতের উত্তর প্রদেশের রাজধানী লখনৌ অভিমুখী সব রাস্তা আগামী ৫ সেপ্টেম্বর থেকে বন্ধ করে দেওয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন ভারতীয় কিষাণ ইউনিয়ন নেতা রাকেশ তিকাইত। সোমবার ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের বিতর্কিত কৃষি আইনের বিরুদ্ধে চলা আন্দোলনের আট মাস পূর্তিতে এই ঘোষণা দেন তিনি। এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, দিল্লিতে পরিণত হবে লখনৌ। সম্প্রচারমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।
গত বছরের ২৬ নভেম্বর থেকে বিতর্কিত কৃষি আইনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়ে আসছে ভারতীয় কৃষকেরা। এসব আইন বাতিলের দাবিতে দিল্লির বিভিন্ন সীমান্তে অবস্থান নিয়ে আছে তারা। কৃষক নেতা ও কেন্দ্রীয় সরকারের প্রতিনিধিদের সঙ্গে কয়েক দফা আলোচনা হলেও অচলাবস্থার অবসান হয়নি।
সোমবারের সংবাদ সম্মেলনে ভারতীয় কিষাণ ইউনিয়ন নেতা রাকেশ তিকাইত ছাড়াও যোগেন্দ্র যাদভ, শিভকুমার কাক্কার মতো প্রভাবশালী কৃষক নেতারাও উপস্থিত ছিলেন। এই সংবাদ সম্মেলন থেকে তারা ‘মিশন উত্তর প্রদেশ ও উত্তরাখন্ড’ ঘোষণা করেন। আগামী বছরের ফেব্রুয়ারি-মার্চে এসব রাজ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।
কৃষক নেতারা জানান, আগামী ৫ সেপ্টেম্বর ‘কৃষক মহাপঞ্চায়েতে’র পর আন্দোলন জোরালো করার এসব কর্মসূচি শুরু হবে। উত্তর প্রদেশের মুজাফফরনগরে এই মহাপঞ্চায়েত অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। কৃষক নেতাদের দাবি, এই মহাপঞ্চায়েত হবে এই ধরনের সবচেয়ে বড় আয়োজন।
কৃষক নেতা যোগেন্দ্র যাদব বলেন, ‘আমরা মিশন উত্তর প্রদেশ ও উত্তরাখন্ড শুরু করছি। এর মাধ্যমে আন্দোলন আরও বেশি তীব্র হবে আর মনোযোগ পাবে। এর মধ্যে থাকবে বড় মিছিল, মহাপঞ্চায়েত। আমরা বিজেপি এবং বিজেপি সরকারের নীতির বিরুদ্ধে সব ক্ষেত্রে বিক্ষোভ নিশ্চিত করবো। এসব বিক্ষোভ শুরু হবে গ্রাম পর্যায় থেকে।’

লখনৌ অবরোধের হুঁশিয়ারি ভারতীয় কৃষকদের

প্রকাশের সময় : ১০:০৭:০৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই ২০২১
সেলিম রেজা, আন্তর্জাতিক ডেস্ক।। ভারতের উত্তর প্রদেশের রাজধানী লখনৌ অভিমুখী সব রাস্তা আগামী ৫ সেপ্টেম্বর থেকে বন্ধ করে দেওয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন ভারতীয় কিষাণ ইউনিয়ন নেতা রাকেশ তিকাইত। সোমবার ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের বিতর্কিত কৃষি আইনের বিরুদ্ধে চলা আন্দোলনের আট মাস পূর্তিতে এই ঘোষণা দেন তিনি। এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, দিল্লিতে পরিণত হবে লখনৌ। সম্প্রচারমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।
গত বছরের ২৬ নভেম্বর থেকে বিতর্কিত কৃষি আইনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়ে আসছে ভারতীয় কৃষকেরা। এসব আইন বাতিলের দাবিতে দিল্লির বিভিন্ন সীমান্তে অবস্থান নিয়ে আছে তারা। কৃষক নেতা ও কেন্দ্রীয় সরকারের প্রতিনিধিদের সঙ্গে কয়েক দফা আলোচনা হলেও অচলাবস্থার অবসান হয়নি।
সোমবারের সংবাদ সম্মেলনে ভারতীয় কিষাণ ইউনিয়ন নেতা রাকেশ তিকাইত ছাড়াও যোগেন্দ্র যাদভ, শিভকুমার কাক্কার মতো প্রভাবশালী কৃষক নেতারাও উপস্থিত ছিলেন। এই সংবাদ সম্মেলন থেকে তারা ‘মিশন উত্তর প্রদেশ ও উত্তরাখন্ড’ ঘোষণা করেন। আগামী বছরের ফেব্রুয়ারি-মার্চে এসব রাজ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।
কৃষক নেতারা জানান, আগামী ৫ সেপ্টেম্বর ‘কৃষক মহাপঞ্চায়েতে’র পর আন্দোলন জোরালো করার এসব কর্মসূচি শুরু হবে। উত্তর প্রদেশের মুজাফফরনগরে এই মহাপঞ্চায়েত অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। কৃষক নেতাদের দাবি, এই মহাপঞ্চায়েত হবে এই ধরনের সবচেয়ে বড় আয়োজন।
কৃষক নেতা যোগেন্দ্র যাদব বলেন, ‘আমরা মিশন উত্তর প্রদেশ ও উত্তরাখন্ড শুরু করছি। এর মাধ্যমে আন্দোলন আরও বেশি তীব্র হবে আর মনোযোগ পাবে। এর মধ্যে থাকবে বড় মিছিল, মহাপঞ্চায়েত। আমরা বিজেপি এবং বিজেপি সরকারের নীতির বিরুদ্ধে সব ক্ষেত্রে বিক্ষোভ নিশ্চিত করবো। এসব বিক্ষোভ শুরু হবে গ্রাম পর্যায় থেকে।’