শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর খোরশেদ আলম আর নেই

ছবি: সংগৃহিত

স্টাফ রিপোর্টার ।।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর মো. খোরশেদ আলম ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না নিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলায়হি রাজিউন)।

বুধবার সকালে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। তিনি বার্ধক্যজনিত রোগে ভুগছিলেন। তার বয়স হয়েছিল ৮৬ বছর।

খোরশেদ আলম ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অর্থনীতিতে, হাভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে লোক প্রশাসনে এবং টাফ্টস বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অর্থনীতিতে মাস্টার্স ডিগ্রি অর্জন করেন।

তিনি একজন ভাষা সৈনিক, ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলনে তিনি সক্রিয় অংশগ্রহণ করেন। তিনি ১৯৭১ সালে যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন ইন নিউ ইংল্যান্ড প্রতিষ্ঠা করেন এবং সেখান থেকে স্বাধীনতা যুদ্ধের পক্ষে কাজ করেন।

১৯৫৭ সালে পাকিস্তান সিভিল সার্ভিসে যোগদানের মাধ্যমে তিনি পেশাগত জীবন শুরু করেন। তিনি চট্টগ্রাম, ময়মনসিংহ ও পাবনার জেলা প্রশাসকের দায়িত্ব পালন করেন।

পেশাগত জীবনে মরহুম আলম তথ্য, স্থানীয় সরকার, যোগাযোগ, শিল্প, বাণিজ্য ও অর্থ সচিব এবং তুরস্কের রাষ্ট্রদূতের দায়িত্ব পালন করেন। বাংলাদেশ ব্যাংকে গভর্নর হিসেবে যোগদানের আগে তিনি মুখ্য অর্থ সচিবের দায়িত্বে ছিলেন।

মরহুম আলম ১৯৩৫ সালের ১৫ জানুয়ারি নরসিংদীর রামনগরে জন্মগ্রহণ করেন। পেশাগত জীবনে তিনি একজন অতি মেধাবী কর্মকর্তা ছিলেন। খুব দ্রুত সিদ্ধান্ত গ্রহণ ছিল তার পেশাগত জীবনের অনন্য বৈশিষ্ট্য। তিনিই প্রথম বাংলাদেশ ব্যাংকে মুদ্রানীতি কমিটি গঠন ও পরিচালনা করেন। আর্থিক খাত কর্মসূচির আওতায় তিনি আইএমএফ, বিশ্বব্যাংক ও এডিবিসহ বিভিন্ন উন্নয়ন সংস্থার সঙ্গে সমন্বয় করে কেন্দ্রীয় ব্যাংকিং কর্মকাণ্ড পরিচালনা করতেন।

তার মৃত্যুতে বর্তমান গভর্নর ফজলে কবির গভীর শোক প্রকাশ করে বলেন, বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ, স্বদেশী চেতনায় সমৃদ্ধ, সততা, দক্ষতা ও অনন্য হৃদয়ের অধিকারী মরহুম আলম আর্থিক খাতের কর্ণধার হিসেবে এদেশে অনন্য ভূমিকা পালন করেন। তিনি স্ত্রী, চার পুত্র ও অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর খোরশেদ আলম আর নেই

প্রকাশের সময় : ০৬:০৯:১৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১

স্টাফ রিপোর্টার ।।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর মো. খোরশেদ আলম ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না নিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলায়হি রাজিউন)।

বুধবার সকালে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। তিনি বার্ধক্যজনিত রোগে ভুগছিলেন। তার বয়স হয়েছিল ৮৬ বছর।

খোরশেদ আলম ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অর্থনীতিতে, হাভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে লোক প্রশাসনে এবং টাফ্টস বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অর্থনীতিতে মাস্টার্স ডিগ্রি অর্জন করেন।

তিনি একজন ভাষা সৈনিক, ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলনে তিনি সক্রিয় অংশগ্রহণ করেন। তিনি ১৯৭১ সালে যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন ইন নিউ ইংল্যান্ড প্রতিষ্ঠা করেন এবং সেখান থেকে স্বাধীনতা যুদ্ধের পক্ষে কাজ করেন।

১৯৫৭ সালে পাকিস্তান সিভিল সার্ভিসে যোগদানের মাধ্যমে তিনি পেশাগত জীবন শুরু করেন। তিনি চট্টগ্রাম, ময়মনসিংহ ও পাবনার জেলা প্রশাসকের দায়িত্ব পালন করেন।

পেশাগত জীবনে মরহুম আলম তথ্য, স্থানীয় সরকার, যোগাযোগ, শিল্প, বাণিজ্য ও অর্থ সচিব এবং তুরস্কের রাষ্ট্রদূতের দায়িত্ব পালন করেন। বাংলাদেশ ব্যাংকে গভর্নর হিসেবে যোগদানের আগে তিনি মুখ্য অর্থ সচিবের দায়িত্বে ছিলেন।

মরহুম আলম ১৯৩৫ সালের ১৫ জানুয়ারি নরসিংদীর রামনগরে জন্মগ্রহণ করেন। পেশাগত জীবনে তিনি একজন অতি মেধাবী কর্মকর্তা ছিলেন। খুব দ্রুত সিদ্ধান্ত গ্রহণ ছিল তার পেশাগত জীবনের অনন্য বৈশিষ্ট্য। তিনিই প্রথম বাংলাদেশ ব্যাংকে মুদ্রানীতি কমিটি গঠন ও পরিচালনা করেন। আর্থিক খাত কর্মসূচির আওতায় তিনি আইএমএফ, বিশ্বব্যাংক ও এডিবিসহ বিভিন্ন উন্নয়ন সংস্থার সঙ্গে সমন্বয় করে কেন্দ্রীয় ব্যাংকিং কর্মকাণ্ড পরিচালনা করতেন।

তার মৃত্যুতে বর্তমান গভর্নর ফজলে কবির গভীর শোক প্রকাশ করে বলেন, বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ, স্বদেশী চেতনায় সমৃদ্ধ, সততা, দক্ষতা ও অনন্য হৃদয়ের অধিকারী মরহুম আলম আর্থিক খাতের কর্ণধার হিসেবে এদেশে অনন্য ভূমিকা পালন করেন। তিনি স্ত্রী, চার পুত্র ও অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।