শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

৩০ লাখ ডোজ সিনোফার্মের টিকা দেশে এসে পৌঁছেছে

ঢাকা ব্যুরো।।  চীন থেকে চতুর্থ দফায় ৩০ লাখ ডোজ সিনোফার্মের টিকা দেশে এসে পৌঁছেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ও আজ শুক্রবার ভোরে তিনটি পৃথক ফ্লাইটে টিকাগুলো ঢাকায় আসে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ভ্যাকসিন ডেপ্লয়মেন্ট কমিটির সদস্যসচিব ডা. শামসুল হক গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

চীনা সিনোফার্মের কাছ থেকে কেনা দেড় কোটি ডোজ টিকা তিন মাসের মধ্যে দেশে আসার কথা। ৩ ও ৪ জুলাই চুক্তির ২০ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন দেশে পৌঁছেছে। ১৭ জুলাই এসেছে ২০ লাখ ডোজ। এ ছাড়া দুই দফায় চীন থেকে সিনোফার্মের ১১ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন উপহার হিসেবে পেয়েছে বাংলাদেশ।

২৪ জুলাই কোভ্যাক্সের মাধ্যমে অ্যাস্ট্রাজেনেকার কোভিড টিকার ২ লাখ ৪৫ হাজার ২০০ ডোজ ঢাকায় পৌঁছায়। বাংলাদেশকে ৩০ লাখ টিকা দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে জাপান। প্রথম ধাপে প্রায় আড়াই লাখ ডোজ এসেছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্যমতে, কেনা ও বিভিন্ন মাধ্যমে উপহার মিলে এখন পর্যন্ত ২ কোটি ১২ লাখ ৪৫ হাজার ৬২০ ডোজ টিকা পেয়েছে বাংলাদেশ। এর মধ্যে চীনের ৫১ লাখ ছাড়াও গ্লোবাল অ্যালায়েন্স ফর ভ্যাকসিনের (গ্যাভি) মাধ্যমে চলতি মডার্নার ৫৫ লাখ, ফাইজারের ১ লাখ ৬২০ ডোজ এবং অ্যাস্ট্রাজেনেকার ২ লাখ ৪৫ হাজার ডোজ। এ ছাড়া ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট উৎপাদিত কোভিশিল্ডের টিকা এসেছে ১ কোটি ৩ লাখ।

আগামী বছরের শুরুর দিকের মধ্যে ২১ কোটি টিকা পাওয়ার আশা করছে সরকার। এরই অংশ হিসেবে ডিসেম্বরের মধ্যে ১০ কোটি টিকা আসবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

টিকা পাওয়ার নিশ্চয়তায় আগামী মাসে ১ কোটি দেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে সরকার। সেই অনুযায়ী দৈনিক গড়ে ৩ লাখ ৩৩ হাজারের বেশি মানুষকে টিকা দিতে হবে।

৩০ লাখ ডোজ সিনোফার্মের টিকা দেশে এসে পৌঁছেছে

প্রকাশের সময় : ০৫:৪৬:৫৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৩০ জুলাই ২০২১

ঢাকা ব্যুরো।।  চীন থেকে চতুর্থ দফায় ৩০ লাখ ডোজ সিনোফার্মের টিকা দেশে এসে পৌঁছেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ও আজ শুক্রবার ভোরে তিনটি পৃথক ফ্লাইটে টিকাগুলো ঢাকায় আসে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ভ্যাকসিন ডেপ্লয়মেন্ট কমিটির সদস্যসচিব ডা. শামসুল হক গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

চীনা সিনোফার্মের কাছ থেকে কেনা দেড় কোটি ডোজ টিকা তিন মাসের মধ্যে দেশে আসার কথা। ৩ ও ৪ জুলাই চুক্তির ২০ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন দেশে পৌঁছেছে। ১৭ জুলাই এসেছে ২০ লাখ ডোজ। এ ছাড়া দুই দফায় চীন থেকে সিনোফার্মের ১১ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন উপহার হিসেবে পেয়েছে বাংলাদেশ।

২৪ জুলাই কোভ্যাক্সের মাধ্যমে অ্যাস্ট্রাজেনেকার কোভিড টিকার ২ লাখ ৪৫ হাজার ২০০ ডোজ ঢাকায় পৌঁছায়। বাংলাদেশকে ৩০ লাখ টিকা দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে জাপান। প্রথম ধাপে প্রায় আড়াই লাখ ডোজ এসেছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্যমতে, কেনা ও বিভিন্ন মাধ্যমে উপহার মিলে এখন পর্যন্ত ২ কোটি ১২ লাখ ৪৫ হাজার ৬২০ ডোজ টিকা পেয়েছে বাংলাদেশ। এর মধ্যে চীনের ৫১ লাখ ছাড়াও গ্লোবাল অ্যালায়েন্স ফর ভ্যাকসিনের (গ্যাভি) মাধ্যমে চলতি মডার্নার ৫৫ লাখ, ফাইজারের ১ লাখ ৬২০ ডোজ এবং অ্যাস্ট্রাজেনেকার ২ লাখ ৪৫ হাজার ডোজ। এ ছাড়া ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট উৎপাদিত কোভিশিল্ডের টিকা এসেছে ১ কোটি ৩ লাখ।

আগামী বছরের শুরুর দিকের মধ্যে ২১ কোটি টিকা পাওয়ার আশা করছে সরকার। এরই অংশ হিসেবে ডিসেম্বরের মধ্যে ১০ কোটি টিকা আসবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

টিকা পাওয়ার নিশ্চয়তায় আগামী মাসে ১ কোটি দেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে সরকার। সেই অনুযায়ী দৈনিক গড়ে ৩ লাখ ৩৩ হাজারের বেশি মানুষকে টিকা দিতে হবে।