সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বাংলাদেশের টোকিও অলিম্পিক অভিযান শেষ

স্পোর্টস ডেস্ক ।।

শেষ হলো বাংলাদেশের টোকিও অলিম্পিক অভিযান। আরও একটি অপূর্ণ আসর। আবারও লাল-সবুজ অ্যাথলেটের হিট থেকে বিদায়। সবশেষ ৪০০ মিটারের হিট থেকে বিদায় নিলেন অ্যাথলেট জহির রায়হান। এর মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের ৬ জন অ্যাথলেটই বিদায় নিলেন এবারের অলিম্পিক থেকে। ১৯৯২ বার্সেলোনা অলিম্পিকের পর আবারও অলিম্পিকের ৪০০ মিটারের ট্র্যাকে বাংলাদেশের অ্যাথলেট। টোকিওতে জহির রায়হান সময় নিলেন ৪৮.২৯ সেকেন্ড।

২৩ জুলাই আসর উদ্বোধনের দিনই শুরু হয়েছিল বাংলাদেশের অলিম্পিক অভিযান। সেদিন অবশ্য আর্চ্যারির র‍্যাঙ্কিং রাউন্ড ছিল। পরদিন মিশ্র দলগত ইভেন্টের শেষ ষোলো থেকে বিদায় নেন রোমান সানা-দিয়া সিদ্দিকী। ২৭ জুলাই একক ইভেন্টে ব্রিটিশ প্রতিপক্ষের সাথে জয় পেলেও রাউন্ড অব থার্টি টুর ম্যাচে কানাডিয়ান প্রতিপক্ষের কাছে হেরে যান রোমান। আর দুই দিন পর নারী এককে দিয়া সিদ্দিকী হেরে যান তার প্রথম ম্যাচেই।

মাঝে ২৫ জুলাই, শ্যুটার আব্দুল্লাহ হেল বাকী টোকিওর রেঞ্জে নেমেছিলেন তাঁর প্রিয় ১০ মিটার এয়ার রাইফেল ইভেন্টে। অলিম্পিকে দেশের যে ৬ অংশগ্রহণকারী, তাদের ৪ জনই নিজেদের সেরা স্কোর বা টাইমিংয়ের দেখা পেয়েছেন। ব্যতিক্রম কেবল বাকী ও জহির। ৬১৯ দশমিক আট স্কোর করে ৪১তম হয়ে কোয়ালিফিকেশন রাউন্ড থেকে বিদায় নেন বাংলাদেশ শ্যুটার।

৩০ জুলাই আলাদা ইভেন্টে পুলে নেমেছিলেন দেশের দুই সাঁতারু আরিফুল ইসলাম। হিট থেকে বিদায় নিলেও দুজনই করেছেন ক্যারিয়ার সেরা টাইমিং। ৫০ মিটার ফ্রি স্টাইলে ২৪.৮১ সেকেন্ড সময় নিয়ে ৫১তম হয়েছেন দীর্ঘদিন ফ্রান্সে অনুশীলন করা আরিফুল। আর নারীদের এই ইভেন্টে ২৯.৭৮ সেকেন্ড সময় নিয়ে ৬৮তম ইংল্যান্ড প্রবাসী জুনাইনা।

খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনা,চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির দোয়া মাহফিল

বাংলাদেশের টোকিও অলিম্পিক অভিযান শেষ

প্রকাশের সময় : ১০:৫২:৩৪ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১ অগাস্ট ২০২১

স্পোর্টস ডেস্ক ।।

শেষ হলো বাংলাদেশের টোকিও অলিম্পিক অভিযান। আরও একটি অপূর্ণ আসর। আবারও লাল-সবুজ অ্যাথলেটের হিট থেকে বিদায়। সবশেষ ৪০০ মিটারের হিট থেকে বিদায় নিলেন অ্যাথলেট জহির রায়হান। এর মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের ৬ জন অ্যাথলেটই বিদায় নিলেন এবারের অলিম্পিক থেকে। ১৯৯২ বার্সেলোনা অলিম্পিকের পর আবারও অলিম্পিকের ৪০০ মিটারের ট্র্যাকে বাংলাদেশের অ্যাথলেট। টোকিওতে জহির রায়হান সময় নিলেন ৪৮.২৯ সেকেন্ড।

২৩ জুলাই আসর উদ্বোধনের দিনই শুরু হয়েছিল বাংলাদেশের অলিম্পিক অভিযান। সেদিন অবশ্য আর্চ্যারির র‍্যাঙ্কিং রাউন্ড ছিল। পরদিন মিশ্র দলগত ইভেন্টের শেষ ষোলো থেকে বিদায় নেন রোমান সানা-দিয়া সিদ্দিকী। ২৭ জুলাই একক ইভেন্টে ব্রিটিশ প্রতিপক্ষের সাথে জয় পেলেও রাউন্ড অব থার্টি টুর ম্যাচে কানাডিয়ান প্রতিপক্ষের কাছে হেরে যান রোমান। আর দুই দিন পর নারী এককে দিয়া সিদ্দিকী হেরে যান তার প্রথম ম্যাচেই।

মাঝে ২৫ জুলাই, শ্যুটার আব্দুল্লাহ হেল বাকী টোকিওর রেঞ্জে নেমেছিলেন তাঁর প্রিয় ১০ মিটার এয়ার রাইফেল ইভেন্টে। অলিম্পিকে দেশের যে ৬ অংশগ্রহণকারী, তাদের ৪ জনই নিজেদের সেরা স্কোর বা টাইমিংয়ের দেখা পেয়েছেন। ব্যতিক্রম কেবল বাকী ও জহির। ৬১৯ দশমিক আট স্কোর করে ৪১তম হয়ে কোয়ালিফিকেশন রাউন্ড থেকে বিদায় নেন বাংলাদেশ শ্যুটার।

৩০ জুলাই আলাদা ইভেন্টে পুলে নেমেছিলেন দেশের দুই সাঁতারু আরিফুল ইসলাম। হিট থেকে বিদায় নিলেও দুজনই করেছেন ক্যারিয়ার সেরা টাইমিং। ৫০ মিটার ফ্রি স্টাইলে ২৪.৮১ সেকেন্ড সময় নিয়ে ৫১তম হয়েছেন দীর্ঘদিন ফ্রান্সে অনুশীলন করা আরিফুল। আর নারীদের এই ইভেন্টে ২৯.৭৮ সেকেন্ড সময় নিয়ে ৬৮তম ইংল্যান্ড প্রবাসী জুনাইনা।