শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রাত নামলেই ডাকাত আতঙ্কে গ্রামবাসী

জীবননগর প্রতিনিধি ।। 
জীবননগরে কৃষকের বাড়িতে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। সংঘবদ্ধ ডাকাত দল অর্থসহ স্বর্ণালস্কার লুট করেছে। এক মাসের ব্যবধানে পরপর তিনবার ডাকাতির ঘটনায় এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে। বৃহস্পতিবার (৫ আগষ্ট) রাত ২টার সময় জীবননগর পৌর সভার ২নং ওয়ার্ডের নারায়নপুর গ্রামের হাবিবুরের বাড়িতে এ ডাকাতির ঘটনা ঘটে।
ভুক্তভোগী পরিবার জানায়, বৃহস্পতিবার রাত আনুমানিক ২টার সময় মুখোশ পরা অবস্থায় ১৫ থেকে ২০ জনের একটি দল বাড়ির ভিতরে প্রবেশ করে। এ সময় বাড়ির ৫ জন সদস্যকে জিম্মি করে ঘরে থাকা নগদ ১২ হাজার টাকাসহ স্বর্ণালংকার লুট করে নিয়ে যায়।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, কিছু দিন আগে গঙ্গাদাশপুর গ্রামের পল্লী চিকিৎসক আঃ সালাম ডাকাতির শিকার হয়। রাতে দোকান বন্ধ করে বাড়ি ফেরার পথে ডাকাতরা তাকে হামলা করে কাছে থাকা মালামাল, টাকা পয়সা ছিনিয়ে নেয়।
১ আগস্ট রাত সাড়ে ১০টার সময় গঙ্গাদাশপুর গ্রামের আব্দুর রহমান, আশা ঘটক, বাবু এবং বাবুর কারখানার শ্রমিকদের আটক করে ডাকাত দল। এ সময় আটককৃতদের কাছে কোন টাকা না থাকায় ডাকাতরা মারধর করে ছেড়ে দেয়। এদিকে সপ্তাহ যেতে না যেতেই আবারও একই এলাকায় কৃষকের বাড়িতে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে।
স্থানীয়রা অভিযোগ করেন, এলাকায় পুলিশ থাকলেও এ বিষয়ে কোনো প্রতিকার নেই। ডাকাতদের ভয়ে এখন বাড়িতে থাকা দায় হয়ে পড়েছে তাদের।
জীবননগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘নারায়নপুর গ্রামে যে বাড়িতে এ ঘটনা ঘটেছে ওই পরিবারের লোকজন থানায় কোন অভিযোগ করেনি। তবে বিষয়টা আমরা তদন্ত করছি। ডাকাতির সঙ্গে যারা জড়িত রয়েছে তাদেরকে আইনের আওতায় আনার জন্য পুলিশ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

রাত নামলেই ডাকাত আতঙ্কে গ্রামবাসী

প্রকাশের সময় : ০৪:২৩:৫১ অপরাহ্ন, রবিবার, ৮ অগাস্ট ২০২১
জীবননগর প্রতিনিধি ।। 
জীবননগরে কৃষকের বাড়িতে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। সংঘবদ্ধ ডাকাত দল অর্থসহ স্বর্ণালস্কার লুট করেছে। এক মাসের ব্যবধানে পরপর তিনবার ডাকাতির ঘটনায় এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে। বৃহস্পতিবার (৫ আগষ্ট) রাত ২টার সময় জীবননগর পৌর সভার ২নং ওয়ার্ডের নারায়নপুর গ্রামের হাবিবুরের বাড়িতে এ ডাকাতির ঘটনা ঘটে।
ভুক্তভোগী পরিবার জানায়, বৃহস্পতিবার রাত আনুমানিক ২টার সময় মুখোশ পরা অবস্থায় ১৫ থেকে ২০ জনের একটি দল বাড়ির ভিতরে প্রবেশ করে। এ সময় বাড়ির ৫ জন সদস্যকে জিম্মি করে ঘরে থাকা নগদ ১২ হাজার টাকাসহ স্বর্ণালংকার লুট করে নিয়ে যায়।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, কিছু দিন আগে গঙ্গাদাশপুর গ্রামের পল্লী চিকিৎসক আঃ সালাম ডাকাতির শিকার হয়। রাতে দোকান বন্ধ করে বাড়ি ফেরার পথে ডাকাতরা তাকে হামলা করে কাছে থাকা মালামাল, টাকা পয়সা ছিনিয়ে নেয়।
১ আগস্ট রাত সাড়ে ১০টার সময় গঙ্গাদাশপুর গ্রামের আব্দুর রহমান, আশা ঘটক, বাবু এবং বাবুর কারখানার শ্রমিকদের আটক করে ডাকাত দল। এ সময় আটককৃতদের কাছে কোন টাকা না থাকায় ডাকাতরা মারধর করে ছেড়ে দেয়। এদিকে সপ্তাহ যেতে না যেতেই আবারও একই এলাকায় কৃষকের বাড়িতে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে।
স্থানীয়রা অভিযোগ করেন, এলাকায় পুলিশ থাকলেও এ বিষয়ে কোনো প্রতিকার নেই। ডাকাতদের ভয়ে এখন বাড়িতে থাকা দায় হয়ে পড়েছে তাদের।
জীবননগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘নারায়নপুর গ্রামে যে বাড়িতে এ ঘটনা ঘটেছে ওই পরিবারের লোকজন থানায় কোন অভিযোগ করেনি। তবে বিষয়টা আমরা তদন্ত করছি। ডাকাতির সঙ্গে যারা জড়িত রয়েছে তাদেরকে আইনের আওতায় আনার জন্য পুলিশ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।