সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪, ৭ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রাজপথে আন্দোলনের কোনো বিকল্প নেই – ফখরুল

ফাইল ছবি

স্টাফ রিপোর্টার ।।

খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য বিএনপি নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে আন্দোলনের আহ্বান জানিয়ে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, যারা তরুণ যুবক তাদের সামনে এগিয়ে আসতে হবে, সাহস নিয়ে রাজপথে নামতে হবে। রাজপথ ছাড়া কোনো বিকল্প নেই। শক্তি সঞ্চয় করেই আমাদের সামনে এগুতে হবে। আর নিজেদের মধ্যে দলাদলি, কোন্দলটা বন্ধ করতে হবে। ঐক্য ছাড়া কোনো উপায় নেই। আমাদের বাম-ডান, দক্ষিণ-পশ্চিম সবাইকে একসঙ্গে করতে হবে এবং সবাইকে একসঙ্গে এই সরকারের বিরুদ্ধে দাঁড়াতে হবে।

গতকাল সোমবার এক ভার্চুয়াল আলোচনাসভায় অংশ নিয়ে বিএনপি মহাসচিব এ মন্তব্য করেন। বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য ফজলুর রহমান পটলের পঞ্চম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে এই ভার্চুয়াল আলোচনাসভার আয়োজন করে তার পরিবার। মরহুম ফজলুর রহমান পটলের কন্যা দলের মানবাধিকার বিষয়ক কমিটির সদস্য অ্যাডভোকেট ফারজানা শারমিন পুতুলের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, বিএনপি নেতা মিজানুর রহমান মিনু, অ্যাডভোকেট রুহুল কদ্দুস তালুকদার দুলু, শাহীন শওকত, ওবায়দুর রহমান চন্দন, আমিনুল হক, রহিম নেওয়াজ, ইয়াসীর আরশাদ রাজন, হারুনুর রশিদ পাপ্পু, নজরুল ইসলাম মোল্লা, জামাল হোসেন, মোশাররফ হোসেন প্রমুখ।

মির্জা ফখরুল বলেন, শুধু আমলা নির্ভরতার কারণেই সরকার করোনা ভাইরাস সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে সম্পূর্ণভাবে ব্যর্থ হয়েছে এবং সত্যিকার অর্থেই জনগণের জীবন-জীবিকাকে বিপন্ন করে ফেলেছে।

তিনি বলেন, সরকার কখনো বলে লকডাউন, কখনো বলে সরকারি ছুটি, কখনো কঠোর লকডাউন। এটি একটা তামাশা। তাদের কাছে মানুষের জীবন-জীবিকা একটা তামাশা। এ অবস্থা জনগণ মেনে নিতে পারে না।

রাজপথে আন্দোলনের কোনো বিকল্প নেই – ফখরুল

প্রকাশের সময় : ০১:২৭:২১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১০ অগাস্ট ২০২১

স্টাফ রিপোর্টার ।।

খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য বিএনপি নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে আন্দোলনের আহ্বান জানিয়ে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, যারা তরুণ যুবক তাদের সামনে এগিয়ে আসতে হবে, সাহস নিয়ে রাজপথে নামতে হবে। রাজপথ ছাড়া কোনো বিকল্প নেই। শক্তি সঞ্চয় করেই আমাদের সামনে এগুতে হবে। আর নিজেদের মধ্যে দলাদলি, কোন্দলটা বন্ধ করতে হবে। ঐক্য ছাড়া কোনো উপায় নেই। আমাদের বাম-ডান, দক্ষিণ-পশ্চিম সবাইকে একসঙ্গে করতে হবে এবং সবাইকে একসঙ্গে এই সরকারের বিরুদ্ধে দাঁড়াতে হবে।

গতকাল সোমবার এক ভার্চুয়াল আলোচনাসভায় অংশ নিয়ে বিএনপি মহাসচিব এ মন্তব্য করেন। বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য ফজলুর রহমান পটলের পঞ্চম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে এই ভার্চুয়াল আলোচনাসভার আয়োজন করে তার পরিবার। মরহুম ফজলুর রহমান পটলের কন্যা দলের মানবাধিকার বিষয়ক কমিটির সদস্য অ্যাডভোকেট ফারজানা শারমিন পুতুলের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, বিএনপি নেতা মিজানুর রহমান মিনু, অ্যাডভোকেট রুহুল কদ্দুস তালুকদার দুলু, শাহীন শওকত, ওবায়দুর রহমান চন্দন, আমিনুল হক, রহিম নেওয়াজ, ইয়াসীর আরশাদ রাজন, হারুনুর রশিদ পাপ্পু, নজরুল ইসলাম মোল্লা, জামাল হোসেন, মোশাররফ হোসেন প্রমুখ।

মির্জা ফখরুল বলেন, শুধু আমলা নির্ভরতার কারণেই সরকার করোনা ভাইরাস সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে সম্পূর্ণভাবে ব্যর্থ হয়েছে এবং সত্যিকার অর্থেই জনগণের জীবন-জীবিকাকে বিপন্ন করে ফেলেছে।

তিনি বলেন, সরকার কখনো বলে লকডাউন, কখনো বলে সরকারি ছুটি, কখনো কঠোর লকডাউন। এটি একটা তামাশা। তাদের কাছে মানুষের জীবন-জীবিকা একটা তামাশা। এ অবস্থা জনগণ মেনে নিতে পারে না।