রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রোহিঙ্গা বোঝাই নৌকাডুবি বঙ্গোপসাগরে , নিখোঁজ ২৫

নোয়াখালী প্রতিনিধি।।নোয়াখালীর ভাসানচর থেকে পালিয়ে যাওয়ার সময় বঙ্গোপসাগরে রোহিঙ্গা বোঝাই একটি কাঠের নৌকা ডুবির ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় ১৫ জন রোহিঙ্গাকে উদ্ধার করা হয়েছে। এখনো নিখোঁজ রয়েছে ২০-২৫ জন । শুক্রবার সাড়ে ১০ টার দিকে ভাসানচর থেকে ১৫-২০ কিলোমিটার পূর্ব দিকে চট্টগ্রাম জেলার বঙ্গোপসাগর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নোয়াখালীর পুলিশ সুপার মো. শহীদুল ইসলাম গতকাল শনিবার রাত ১০টা ৫৬ মিনিটে এ তথ্য নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, নৌকাটিতে ৩০-৪০ জন রোহিঙ্গা ছিল। শনিবার রাত সাড়ে ৯টা পর্যন্ত ১৫ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে। আবদুর রহমান নামে একজনের ৫ শিশু সন্তান নিখোঁজ রয়েছে। আবদুর রহমান তার সঙ্গীকে ভাসানচরে রেখে ৫ শিশুকে নিয়ে পালিয়ে ছিল। বাংলাদেশ বিমান বাহিনী ও নৌবাহিনী অভিযান চালিয়ে চট্টগ্রাম চ্যানেলের মধ্যবর্তী স্থানে নৌকাটি সনাক্ত করে। রবিবার (১৫ আগস্ট) আবারো উদ্ধার অভিযান শুরু করা হবে।

কোস্টগার্ড পূর্ব জোনের একজন স্টাফ অফিসার বলেন, ‘রোহিঙ্গাদের নিয়ে নৌকাডুবির পর মাছ ধরার নৌকার মাঝি-মাল্লারা ১২ জনকে উদ্ধার করে ভাসানচরে পৌঁছে দিয়েছে। এ ছাড়া যারা ফিরে এসেছে তারা নিখোঁজদের নিয়ে একেক সময় একেক সংখ্যা বলছে, তাই এখন পর্যন্ত কতজন নিখোঁজ আছে তা নির্দিষ্ট করে বলা যাচ্ছে না। ধারণা করা হচ্ছে তারা ভাসানচর থেকে পালিয়ে কক্সবাজার বা চট্টগ্রামের উদ্দেশে রওনা দিয়েছিল।

রোহিঙ্গা বোঝাই নৌকাডুবি বঙ্গোপসাগরে , নিখোঁজ ২৫

প্রকাশের সময় : ০২:২৭:২৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৫ অগাস্ট ২০২১

নোয়াখালী প্রতিনিধি।।নোয়াখালীর ভাসানচর থেকে পালিয়ে যাওয়ার সময় বঙ্গোপসাগরে রোহিঙ্গা বোঝাই একটি কাঠের নৌকা ডুবির ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় ১৫ জন রোহিঙ্গাকে উদ্ধার করা হয়েছে। এখনো নিখোঁজ রয়েছে ২০-২৫ জন । শুক্রবার সাড়ে ১০ টার দিকে ভাসানচর থেকে ১৫-২০ কিলোমিটার পূর্ব দিকে চট্টগ্রাম জেলার বঙ্গোপসাগর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নোয়াখালীর পুলিশ সুপার মো. শহীদুল ইসলাম গতকাল শনিবার রাত ১০টা ৫৬ মিনিটে এ তথ্য নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, নৌকাটিতে ৩০-৪০ জন রোহিঙ্গা ছিল। শনিবার রাত সাড়ে ৯টা পর্যন্ত ১৫ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে। আবদুর রহমান নামে একজনের ৫ শিশু সন্তান নিখোঁজ রয়েছে। আবদুর রহমান তার সঙ্গীকে ভাসানচরে রেখে ৫ শিশুকে নিয়ে পালিয়ে ছিল। বাংলাদেশ বিমান বাহিনী ও নৌবাহিনী অভিযান চালিয়ে চট্টগ্রাম চ্যানেলের মধ্যবর্তী স্থানে নৌকাটি সনাক্ত করে। রবিবার (১৫ আগস্ট) আবারো উদ্ধার অভিযান শুরু করা হবে।

কোস্টগার্ড পূর্ব জোনের একজন স্টাফ অফিসার বলেন, ‘রোহিঙ্গাদের নিয়ে নৌকাডুবির পর মাছ ধরার নৌকার মাঝি-মাল্লারা ১২ জনকে উদ্ধার করে ভাসানচরে পৌঁছে দিয়েছে। এ ছাড়া যারা ফিরে এসেছে তারা নিখোঁজদের নিয়ে একেক সময় একেক সংখ্যা বলছে, তাই এখন পর্যন্ত কতজন নিখোঁজ আছে তা নির্দিষ্ট করে বলা যাচ্ছে না। ধারণা করা হচ্ছে তারা ভাসানচর থেকে পালিয়ে কক্সবাজার বা চট্টগ্রামের উদ্দেশে রওনা দিয়েছিল।