বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পদত্যাগে বাধ্য হলেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক।।  অবশেষে পদত্যাগে বাধ্য হচ্ছেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মুহিউদ্দিন ইয়াসিন। সোমবার মালয়েশিয়ার রাজা সুলতান আবদুল্লাহর সাথে সাক্ষাতের পর তিনি পদত্যাগপত্র জমা দেবেন বলে ঘনিষ্ঠ এক সূত্র জানিয়েছে।

ঘনিষ্ঠ ওই সূত্রের বরাতে বার্তাসংস্থা রয়টার্স জানায়, রবিবার (১৫ আগস্ট) সকালে কুয়ালালামপুরে সরকারি জোট পেরিকাতান ন্যাশনালের সদর দফতরে অনুষ্ঠিত সভায় এই ঘোষণা দেন তিনি।

করোনাভাইরাস সংক্রমণে সৃষ্ট দুর্যোগপূর্ণ অবস্থা ও মালয়েশিয়ার অর্থনৈতিক বিপর্যয়ের মধ্যে সরকারি জোটের পার্লামেন্ট সদস্যদের আস্থা হারানোর জেরে এই পদত্যাগের সিদ্ধান্ত নিলেন মুহিউদ্দিন ইয়াসিন। মুহিউদ্দিন ইয়াসিনের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হিসেবে মালয়েশিয়ার নেতৃত্বে কে আসছেন তা এখনো স্পষ্ট নয়। পার্লামেন্টে কোনো নেতারই বর্তমানে লক্ষ্যনীয়ভাবে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা নেই।

অন্যদিকে মহামারীর ভেতর দেশটিতে নতুন কোনো নির্বাচন হবে কি না, তারও নিশ্চয়তা নেই। ফলে পরবর্তী ঘটনাপ্রবাহ এখন মালয়েশিয়ার রাজা সুলতান আবদুল্লাহর ওপর নির্ভর করছে। এর আগে গত বছরের মার্চে মাহাথির মোহাম্মদের আকস্মিক পদত্যাগের পর সামান্য সংখ্যাগরিষ্ঠতায় মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন মুহিউদ্দিন ইয়াসিন।

করোনাভাইরাস পরিস্থিতি ও অর্থনৈতিক দুর্যোগ মোকাবেলায় ব্যর্থতা এবং মহামারীতে মালয়েশিয়ায় লকডাউন ব্যবস্থার সিদ্ধান্ত নিয়ে রাজার সাথে বিরোধে ক্ষমতাসীন জোটের বৃহত্তম শরীক ইউনাইটেড মালয়স ন্যাশনাল অর্গানাইজেশন (আমনো) তাদের সমর্থন তুলে নেয়। আমনো প্রধান আহমদ জাহিদ হামিদি তাকে পদত্যাগের জন্যও আহবান জানান।

পদত্যাগে বাধ্য হলেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশের সময় : ০৪:৩৮:৩৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৫ অগাস্ট ২০২১

আন্তর্জাতিক ডেস্ক।।  অবশেষে পদত্যাগে বাধ্য হচ্ছেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মুহিউদ্দিন ইয়াসিন। সোমবার মালয়েশিয়ার রাজা সুলতান আবদুল্লাহর সাথে সাক্ষাতের পর তিনি পদত্যাগপত্র জমা দেবেন বলে ঘনিষ্ঠ এক সূত্র জানিয়েছে।

ঘনিষ্ঠ ওই সূত্রের বরাতে বার্তাসংস্থা রয়টার্স জানায়, রবিবার (১৫ আগস্ট) সকালে কুয়ালালামপুরে সরকারি জোট পেরিকাতান ন্যাশনালের সদর দফতরে অনুষ্ঠিত সভায় এই ঘোষণা দেন তিনি।

করোনাভাইরাস সংক্রমণে সৃষ্ট দুর্যোগপূর্ণ অবস্থা ও মালয়েশিয়ার অর্থনৈতিক বিপর্যয়ের মধ্যে সরকারি জোটের পার্লামেন্ট সদস্যদের আস্থা হারানোর জেরে এই পদত্যাগের সিদ্ধান্ত নিলেন মুহিউদ্দিন ইয়াসিন। মুহিউদ্দিন ইয়াসিনের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হিসেবে মালয়েশিয়ার নেতৃত্বে কে আসছেন তা এখনো স্পষ্ট নয়। পার্লামেন্টে কোনো নেতারই বর্তমানে লক্ষ্যনীয়ভাবে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা নেই।

অন্যদিকে মহামারীর ভেতর দেশটিতে নতুন কোনো নির্বাচন হবে কি না, তারও নিশ্চয়তা নেই। ফলে পরবর্তী ঘটনাপ্রবাহ এখন মালয়েশিয়ার রাজা সুলতান আবদুল্লাহর ওপর নির্ভর করছে। এর আগে গত বছরের মার্চে মাহাথির মোহাম্মদের আকস্মিক পদত্যাগের পর সামান্য সংখ্যাগরিষ্ঠতায় মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন মুহিউদ্দিন ইয়াসিন।

করোনাভাইরাস পরিস্থিতি ও অর্থনৈতিক দুর্যোগ মোকাবেলায় ব্যর্থতা এবং মহামারীতে মালয়েশিয়ায় লকডাউন ব্যবস্থার সিদ্ধান্ত নিয়ে রাজার সাথে বিরোধে ক্ষমতাসীন জোটের বৃহত্তম শরীক ইউনাইটেড মালয়স ন্যাশনাল অর্গানাইজেশন (আমনো) তাদের সমর্থন তুলে নেয়। আমনো প্রধান আহমদ জাহিদ হামিদি তাকে পদত্যাগের জন্যও আহবান জানান।