সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বকশীগঞ্জে নারী নির্যাতন মামলার আসামি আটক

আল মোজাহিদ বাবু, বকশীগঞ্জ (জামালপুর) প্রতিনিধি ।।
জামালপুর বকশীগঞ্জে ২০ ঘণ্টার মধ্যেই বকশীগঞ্জ থানায় একটি নারী ও শিশু নির্যাতন মামলার এফআইআর ও অভিযোগপত্র দাখিল করেছে থানা পুলিশ।
জানাযায়, ১৭ আগস্ট দুপুর ১২টার ঘটনায় মামলা হয় বিকাল চারটায়। তাৎক্ষণিক অভিযান চালিয়ে ঘটনাস্থল থেকে মামলার প্রধান আসামি কোরবান আলীকে গ্রেপ্তার করে বকশীগঞ্জ থানা পুলিশ।
এরইমধ্যে মামলা তদন্ত কাজ সমাপ্ত করে অভিযোগপত্র দাখিলের অনুমতি চান মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা উপপরিদর্শক এসআই ফিরোজ মিয়া । আসামির জিজ্ঞাসাবাদ উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সুপারভিশন শেষে ১৮ আগস্ট সকাল ৯টার অভিযোগ পত্রসহ মামলার আসামিকে আদালতে পাঠান ।
২০ ঘণ্টার মধ্যে মামলা এফআইআর ও অভিযোগপত্র দাখিলের ঘটনায় প্রশংসায় ভাসছেন বকশীগঞ্জ থানা পুলিশ। বিশেষ করে বকশীগঞ্জ থানার ওসি শফিকুল ইসলাম সম্রাটের দৃঢ় ভূমিকার কারণে প্রশংসায় ভাসছেন তিনি।
 মামলার এজাহারে জানা যায়, বকশীগঞ্জ উপজেলার বাশকান্দা গ্রামের এনামুল হকের মেয়ে রনিকার সাথে বিয়ে হয় একই উপজেলার  মেরুরচর ইউনিযনের বেতমারী গ্রামের আব্দুল মজিদের ছেলে কোরবান আলীর। বিয়ের পর থেকেই যৌতুকের জন্য নির্যাতন করে আসছিল কোরবান আলী। ১৭ আগস্ট দুপুরে কোরবান আলী শ্বশুরবাড়ীতে এসে রনিকাকে ব্যাপক মারধর করলে কোরবান আলীকে আটকিয়ে রেখে পুলিশকে খবর দেয়।
ওসি শফিকুল ইসলাম সম্রাট  বলেন,খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে কোরবান আলীকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে পুলিশ। বিকালে রনিকা বাদী হয়ে থানায় মামলা করলে ২০ ঘণ্টার মধ্যেই তদন্ত শেষে অভিযোগপত্র দাখিল করে থানা পুলিশ ও পরে কোরবান আলীকে কোর্টে প্রেরণ করেন।

খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনা,চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির দোয়া মাহফিল

বকশীগঞ্জে নারী নির্যাতন মামলার আসামি আটক

প্রকাশের সময় : ০১:১৭:৩৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৯ অগাস্ট ২০২১
আল মোজাহিদ বাবু, বকশীগঞ্জ (জামালপুর) প্রতিনিধি ।।
জামালপুর বকশীগঞ্জে ২০ ঘণ্টার মধ্যেই বকশীগঞ্জ থানায় একটি নারী ও শিশু নির্যাতন মামলার এফআইআর ও অভিযোগপত্র দাখিল করেছে থানা পুলিশ।
জানাযায়, ১৭ আগস্ট দুপুর ১২টার ঘটনায় মামলা হয় বিকাল চারটায়। তাৎক্ষণিক অভিযান চালিয়ে ঘটনাস্থল থেকে মামলার প্রধান আসামি কোরবান আলীকে গ্রেপ্তার করে বকশীগঞ্জ থানা পুলিশ।
এরইমধ্যে মামলা তদন্ত কাজ সমাপ্ত করে অভিযোগপত্র দাখিলের অনুমতি চান মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা উপপরিদর্শক এসআই ফিরোজ মিয়া । আসামির জিজ্ঞাসাবাদ উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সুপারভিশন শেষে ১৮ আগস্ট সকাল ৯টার অভিযোগ পত্রসহ মামলার আসামিকে আদালতে পাঠান ।
২০ ঘণ্টার মধ্যে মামলা এফআইআর ও অভিযোগপত্র দাখিলের ঘটনায় প্রশংসায় ভাসছেন বকশীগঞ্জ থানা পুলিশ। বিশেষ করে বকশীগঞ্জ থানার ওসি শফিকুল ইসলাম সম্রাটের দৃঢ় ভূমিকার কারণে প্রশংসায় ভাসছেন তিনি।
 মামলার এজাহারে জানা যায়, বকশীগঞ্জ উপজেলার বাশকান্দা গ্রামের এনামুল হকের মেয়ে রনিকার সাথে বিয়ে হয় একই উপজেলার  মেরুরচর ইউনিযনের বেতমারী গ্রামের আব্দুল মজিদের ছেলে কোরবান আলীর। বিয়ের পর থেকেই যৌতুকের জন্য নির্যাতন করে আসছিল কোরবান আলী। ১৭ আগস্ট দুপুরে কোরবান আলী শ্বশুরবাড়ীতে এসে রনিকাকে ব্যাপক মারধর করলে কোরবান আলীকে আটকিয়ে রেখে পুলিশকে খবর দেয়।
ওসি শফিকুল ইসলাম সম্রাট  বলেন,খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে কোরবান আলীকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে পুলিশ। বিকালে রনিকা বাদী হয়ে থানায় মামলা করলে ২০ ঘণ্টার মধ্যেই তদন্ত শেষে অভিযোগপত্র দাখিল করে থানা পুলিশ ও পরে কোরবান আলীকে কোর্টে প্রেরণ করেন।