সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হবিগঞ্জের চুনারুঘাটে প্রবাসীর স্ত্রীর আত্মহত্যা! 

মীর দুলাল, হবিগঞ্জ।।  হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার মহদিরকোনা গ্রামের ওমান প্রবাসী কাওছার মিয়ার স্ত্রী দিলারা আক্তার (৩০) গলায় ওড়না পেছিয়ে ফাঁস লাগিয়ে আত্বহত্যা করেছে।
বৃহস্পতিবার (২৬ আগষ্ট)২১ ইং  বিকাল ৪টায় রান্নাঘরের বাঁশের তীরের সাথে দিলারাকে ঝুলন্ত  অবস্হায় দেখতে পান দিলারার শশুর রমিজ মিয়া।
তড়িৎ গতিতে স্হানীয় ডাক্তারের কাছে নিয়ে গেলে ডাক্তার দিলারাকে মৃত ঘোষণা করেন।এঘটনার পর স্হানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ রমিজ উদ্দিন ঘটনাস্হল পরিদর্শন করেন।দিলারার পরিবারের দাবী দিলারা আত্ব হত্যা করেনি তাকে মেরে ওড়না দিয়ে লটকিয়ে রাখা হয়েছে।
দিলারার শশুর এমন দাবী অস্বীকার করে বলেন আমার ছেলে ৪/৫ মাস যাবৎ টাকা পয়সা না দেয়ার কারনে দিলারা আত্ব হত্যা করেছে।
এলাকাবাসী বলছেন দিলারার শাশুড়ী রওশনা প্রায়ই দিলারাকে মানসিক নির্যাতন করতো, দিলারার বিরুদ্ধে ছেলে কাওছারের নিকট অনেক সময় মিথ্যা অভিযোগ ও করতো।
এ কারনেই দিলারা আত্নহত্যা করতে পারে বলে তাদের ধারনা। চুনারুঘাট থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য হবিগঞ্জে প্রেরন করেন।
লাশ উদ্ধার এর বিষয় টি নিশ্চিত করেন চুনারুঘাট থানা ওসি তদন্ত চম্পক দাম। তিনি বলেন খবর পেয়ে ঘটনা স্থলে পুলিশ যাইয়া লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পেরন করেন।

খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনা,চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির দোয়া মাহফিল

হবিগঞ্জের চুনারুঘাটে প্রবাসীর স্ত্রীর আত্মহত্যা! 

প্রকাশের সময় : ০৭:৪১:১২ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৭ অগাস্ট ২০২১
মীর দুলাল, হবিগঞ্জ।।  হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার মহদিরকোনা গ্রামের ওমান প্রবাসী কাওছার মিয়ার স্ত্রী দিলারা আক্তার (৩০) গলায় ওড়না পেছিয়ে ফাঁস লাগিয়ে আত্বহত্যা করেছে।
বৃহস্পতিবার (২৬ আগষ্ট)২১ ইং  বিকাল ৪টায় রান্নাঘরের বাঁশের তীরের সাথে দিলারাকে ঝুলন্ত  অবস্হায় দেখতে পান দিলারার শশুর রমিজ মিয়া।
তড়িৎ গতিতে স্হানীয় ডাক্তারের কাছে নিয়ে গেলে ডাক্তার দিলারাকে মৃত ঘোষণা করেন।এঘটনার পর স্হানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ রমিজ উদ্দিন ঘটনাস্হল পরিদর্শন করেন।দিলারার পরিবারের দাবী দিলারা আত্ব হত্যা করেনি তাকে মেরে ওড়না দিয়ে লটকিয়ে রাখা হয়েছে।
দিলারার শশুর এমন দাবী অস্বীকার করে বলেন আমার ছেলে ৪/৫ মাস যাবৎ টাকা পয়সা না দেয়ার কারনে দিলারা আত্ব হত্যা করেছে।
এলাকাবাসী বলছেন দিলারার শাশুড়ী রওশনা প্রায়ই দিলারাকে মানসিক নির্যাতন করতো, দিলারার বিরুদ্ধে ছেলে কাওছারের নিকট অনেক সময় মিথ্যা অভিযোগ ও করতো।
এ কারনেই দিলারা আত্নহত্যা করতে পারে বলে তাদের ধারনা। চুনারুঘাট থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য হবিগঞ্জে প্রেরন করেন।
লাশ উদ্ধার এর বিষয় টি নিশ্চিত করেন চুনারুঘাট থানা ওসি তদন্ত চম্পক দাম। তিনি বলেন খবর পেয়ে ঘটনা স্থলে পুলিশ যাইয়া লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পেরন করেন।