শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

১০০ টাকা জন্য পিটিয়ে হত্যা

 

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি।।

মাত্র ১০০ টাকার জন্য লক্ষীপুরে এক অটোরিকশা চালককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। স্থানীয় সড়ক মেরামতের নামে চাঁদা আদায়কে কেন্দ্র করে তাকে হত্যার অভিযোগ উঠেছে এলাকার কয়েকজন যুবকের বিরুদ্ধে।

শুক্রবার (২৭ আগস্ট) বিকেলে সফিক মোল্লা নামে ওই চালককে মারধর করলে সন্ধ্যায় মারা যান তিনি। ঘটনা তদন্ত করে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছে পুলিশ।

জানা গেছে, চর রমনীমোহন গ্রামের আসমত আলী সড়কের কাঁচা রাস্তা মেরামত করা নিয়ে চাঁদার দাবি তোলে স্থানীয় কয়েকজন যুবক।

স্বজনরা জানান, সফিক মোল্লা ও অন্য আরেক চালকের কাছে দুইশ’ টাকা দাবি করলে তারা ১০০ টাকা দেন। পরে বাড়ি ফেরার পথে সফিকের কাছে আবারও চাঁদার দাবি করে তৌহিদ ও মোমিন। চাঁদা দিতে না চাইলে সফিককে মারধর করে তারা। মারধরের পর অসুস্থ হয়ে বমি করতে থাকে সফিক। এদিন সন্ধ্যার দিকে নিজ বাড়িতেই মারা যান তিনি। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে নিহতের মরদেহ সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায় পুলিশ।

লক্ষ্মীপুর সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মিমতানুর রহমান জানান, ঘটনা তদন্ত করে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

১০০ টাকা জন্য পিটিয়ে হত্যা

প্রকাশের সময় : ১১:০০:৩৯ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৮ অগাস্ট ২০২১

 

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি।।

মাত্র ১০০ টাকার জন্য লক্ষীপুরে এক অটোরিকশা চালককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। স্থানীয় সড়ক মেরামতের নামে চাঁদা আদায়কে কেন্দ্র করে তাকে হত্যার অভিযোগ উঠেছে এলাকার কয়েকজন যুবকের বিরুদ্ধে।

শুক্রবার (২৭ আগস্ট) বিকেলে সফিক মোল্লা নামে ওই চালককে মারধর করলে সন্ধ্যায় মারা যান তিনি। ঘটনা তদন্ত করে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছে পুলিশ।

জানা গেছে, চর রমনীমোহন গ্রামের আসমত আলী সড়কের কাঁচা রাস্তা মেরামত করা নিয়ে চাঁদার দাবি তোলে স্থানীয় কয়েকজন যুবক।

স্বজনরা জানান, সফিক মোল্লা ও অন্য আরেক চালকের কাছে দুইশ’ টাকা দাবি করলে তারা ১০০ টাকা দেন। পরে বাড়ি ফেরার পথে সফিকের কাছে আবারও চাঁদার দাবি করে তৌহিদ ও মোমিন। চাঁদা দিতে না চাইলে সফিককে মারধর করে তারা। মারধরের পর অসুস্থ হয়ে বমি করতে থাকে সফিক। এদিন সন্ধ্যার দিকে নিজ বাড়িতেই মারা যান তিনি। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে নিহতের মরদেহ সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায় পুলিশ।

লক্ষ্মীপুর সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মিমতানুর রহমান জানান, ঘটনা তদন্ত করে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।