সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

লেখক ও অনুবাদক শেখ আবদুল হাকিম আর নেই

বার্তাকন্ঠ ডেস্ক।। লেখক ও অনুবাদক শেখ আবদুল হাকিম শনিবার দুপুর ১টায় রাজধানীর নিজ বাসায় মারা গেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। তার বয়স হয়েছিল ৭৫ বছর। লেখকের মেয়ে সাজিয়া হাকিম গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জানা যায়, শেখ আবদুল হাকিম ১৯৪৬ সালে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের হুগলি জেলায় জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবার নাম শেখ আবদুর রফিক। দেশভাগের পর তারা ঢাকায় চলে আসেন।

তিনি ষাটের দশকের মাঝামাঝি সেবা প্রকাশনীর সঙ্গে যুক্ত হন। নামে-বেনামে বহু জনপ্রিয় রোমাঞ্চ উপন্যাসের অনুবাদ ও মৌলিক উপন্যাস রচনা করেন তিনি।

সেবা প্রকাশনীর প্রকাশক কাজী আনোয়ার হোসেনের সঙ্গে বইয়ের লেখক সম্মানি নিয়ে এক পর্যায়ে শেখ আবদুল হাকিমের মতানৈক্য দেখা দেয়। বিষয়টি আদালত পর্যন্ত গড়ায়।

গত বছর জুন মাসে কপিরাইট অফিস তার দাবির পক্ষে রায় দিয়েছিল। এ রায়ের প্রেক্ষিতে প্রকাশকের পক্ষ থেকে উচ্চ আদালতে আপিল করা হয়।

এরপর তিনি সেবা প্রকাশনী থেকে বের হয়ে আসেন। পরে বিভিন্ন প্রকাশনা সংস্থার সঙ্গে যুক্ত হন। শেখ আবদুল হাকিমের প্রকাশিত বইয়ের সংখ্যা বিপুল।

লেখক ও অনুবাদক শেখ আবদুল হাকিম আর নেই

প্রকাশের সময় : ০৮:৪৭:২৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৮ অগাস্ট ২০২১

বার্তাকন্ঠ ডেস্ক।। লেখক ও অনুবাদক শেখ আবদুল হাকিম শনিবার দুপুর ১টায় রাজধানীর নিজ বাসায় মারা গেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। তার বয়স হয়েছিল ৭৫ বছর। লেখকের মেয়ে সাজিয়া হাকিম গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জানা যায়, শেখ আবদুল হাকিম ১৯৪৬ সালে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের হুগলি জেলায় জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবার নাম শেখ আবদুর রফিক। দেশভাগের পর তারা ঢাকায় চলে আসেন।

তিনি ষাটের দশকের মাঝামাঝি সেবা প্রকাশনীর সঙ্গে যুক্ত হন। নামে-বেনামে বহু জনপ্রিয় রোমাঞ্চ উপন্যাসের অনুবাদ ও মৌলিক উপন্যাস রচনা করেন তিনি।

সেবা প্রকাশনীর প্রকাশক কাজী আনোয়ার হোসেনের সঙ্গে বইয়ের লেখক সম্মানি নিয়ে এক পর্যায়ে শেখ আবদুল হাকিমের মতানৈক্য দেখা দেয়। বিষয়টি আদালত পর্যন্ত গড়ায়।

গত বছর জুন মাসে কপিরাইট অফিস তার দাবির পক্ষে রায় দিয়েছিল। এ রায়ের প্রেক্ষিতে প্রকাশকের পক্ষ থেকে উচ্চ আদালতে আপিল করা হয়।

এরপর তিনি সেবা প্রকাশনী থেকে বের হয়ে আসেন। পরে বিভিন্ন প্রকাশনা সংস্থার সঙ্গে যুক্ত হন। শেখ আবদুল হাকিমের প্রকাশিত বইয়ের সংখ্যা বিপুল।