শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪, ৫ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হবিগঞ্জের বানিয়াচুংয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষে নিহত- ১ আহত- ১০ 

মীর দুলাল, হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি।। হবিগঞ্জের বানিয়াচুং উপজেলার পুকড়া গ্রামের সমবায় সমিতির টাকার হিসাব  নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। দুই পক্ষে সংঘর্ষে  ইউনুস মিয়া (২২)নামে এক যুবক নিহত ,হয়।
গুরুতর আহত  হয় ১০ জন!
স্থানীয় সুত্রে জানা যায় উপজেলার পুকড়া গ্রামের সমবায় সমিতির টাকা নিয়ে একই এলাকার হাবিব ও মন্নর আলী গং ও মাজত আলীর মাঝে বিরোধ চলে আসছিল তারই জেরধরে শুক্রবার দুপুরে মন্নর ও হাবিরের লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে , মাজত আলীর বাড়িতে হামলা চালায়!
এসময় মাজত আলীর পুত্র ইউনুস মিয়া ঘরের বাহিরে আসিলে প্রতিপক্ষের লোকজন ট্রেটা দিয়ে বুকে আঘাত করিলে ঘটনাস্থলেই ঐ যুবক নিহত হয়,
এসময় নিহত ইউনুস আলীর পিতা মাজত আলীসহ পরিবারের লোকজন এগিয়ে আসিলে নিহতের বাবা, মা, বৃদ্ধ দাদী ও ছোট ভাইয়ের উপর হামলা চালিয়ে গুরুতর  ভাবে যখম করে।
স্থানীয় লোক দের মাধ্যমে খবর পেয়ে বানিয়াচং থানা পুলিশের একদল  ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।
পুলিশ  নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে মর্গে প্রেরণ করেন।
আহতদের চিকিৎসা দেওয়া জন্য  উদ্ধার করে  সদর হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়!
নিহত ইউনুসের মায়ের অবস্থা অবনতি হলে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।
বাকিদের হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আহতরা হলেন নিহতের পিতা মাজত আলী(৫৫)
মাতা মিনারা বেগম.(৪৫) ছোট ভাই ইমন মিয়া (১৫) ছোটবোন শেলী আক্তার (১৩)
নিহতের দাদী (৮০) মোস্তাফা মিয়া (৩২) তোফাজ্জল হোসেন(৩০)। ঘটনার পরপরই হবিগঞ্জের পুলিশ সুপার এস এম মুরাদ আলী ঘটনাস্হল পরিদর্শন করেন। তিনি বলেন অপরাধীদের দ্রুত আইনের আওতায় আনা হবে।  এবং বানিয়াচং থানা পুলিশ কে নির্দেশ প্রদান করেন।

হবিগঞ্জের বানিয়াচুংয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষে নিহত- ১ আহত- ১০ 

প্রকাশের সময় : ০২:১৭:০৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৯ অগাস্ট ২০২১
মীর দুলাল, হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি।। হবিগঞ্জের বানিয়াচুং উপজেলার পুকড়া গ্রামের সমবায় সমিতির টাকার হিসাব  নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। দুই পক্ষে সংঘর্ষে  ইউনুস মিয়া (২২)নামে এক যুবক নিহত ,হয়।
গুরুতর আহত  হয় ১০ জন!
স্থানীয় সুত্রে জানা যায় উপজেলার পুকড়া গ্রামের সমবায় সমিতির টাকা নিয়ে একই এলাকার হাবিব ও মন্নর আলী গং ও মাজত আলীর মাঝে বিরোধ চলে আসছিল তারই জেরধরে শুক্রবার দুপুরে মন্নর ও হাবিরের লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে , মাজত আলীর বাড়িতে হামলা চালায়!
এসময় মাজত আলীর পুত্র ইউনুস মিয়া ঘরের বাহিরে আসিলে প্রতিপক্ষের লোকজন ট্রেটা দিয়ে বুকে আঘাত করিলে ঘটনাস্থলেই ঐ যুবক নিহত হয়,
এসময় নিহত ইউনুস আলীর পিতা মাজত আলীসহ পরিবারের লোকজন এগিয়ে আসিলে নিহতের বাবা, মা, বৃদ্ধ দাদী ও ছোট ভাইয়ের উপর হামলা চালিয়ে গুরুতর  ভাবে যখম করে।
স্থানীয় লোক দের মাধ্যমে খবর পেয়ে বানিয়াচং থানা পুলিশের একদল  ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।
পুলিশ  নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে মর্গে প্রেরণ করেন।
আহতদের চিকিৎসা দেওয়া জন্য  উদ্ধার করে  সদর হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়!
নিহত ইউনুসের মায়ের অবস্থা অবনতি হলে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।
বাকিদের হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আহতরা হলেন নিহতের পিতা মাজত আলী(৫৫)
মাতা মিনারা বেগম.(৪৫) ছোট ভাই ইমন মিয়া (১৫) ছোটবোন শেলী আক্তার (১৩)
নিহতের দাদী (৮০) মোস্তাফা মিয়া (৩২) তোফাজ্জল হোসেন(৩০)। ঘটনার পরপরই হবিগঞ্জের পুলিশ সুপার এস এম মুরাদ আলী ঘটনাস্হল পরিদর্শন করেন। তিনি বলেন অপরাধীদের দ্রুত আইনের আওতায় আনা হবে।  এবং বানিয়াচং থানা পুলিশ কে নির্দেশ প্রদান করেন।