শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কেরানীগঞ্জ মডেল থানা ও ইস্পাহানি ডিগ্রী কলেজ ছাত্রলীগের উদ্যোগে খাদ্যসামগ্রী বিতরন

দেলোয়ার হোসেন,ঢাকা ব্যুরো ।।

কেরানীগঞ্জ মডেল থানা ও ইস্পাহানী কলেজ ছাত্রলীগ উদ্যোগে ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৬ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী, জাতীয় শোক দিবস ও ২১ আগস্ট গ্রেনেট হামলায় নিহতদের স্মরণে দুস্থ অসহায়ের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরন করা হয়েছে।

আজ ৩১ আগস্ট মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০ টায় কেরানীগঞ্জ মডেল থানার রোহিতপুর ইস্পাহানি ডিগ্রী কলেজ মাঠে এ খাদ্য সামগ্রী বিতরন করা হয়। কেরানীগঞ্জ মডেল থানা ছাত্রলীগের সভাপতি ইমাম হাসানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কেরানীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের আহবায়ক শাহীন আহমেদ।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা জেলা পরিষদ সদস্য ও ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক সোহরাব হোসেন খোকন, ঢাকা জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য এম. এ গফুর, ঢাকা জেলা পরিষদের সদস্য, ঢাকা জেলা আওয়ামী যুব মহিলা লীগের আহবায়ক শিলারা ইসলাম, তারানগর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন ফারুক, বাস্তা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান হাজী মোঃ আশকর আলী, শাক্তা ইউপি চেয়ারম্যান হাজি মোঃ সালাউদ্দিন লিটন, কাতিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ তাহের আলী, কালিন্দী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান হাজি মোঃ মোজাম্মেল হোসেন।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন মডেল থানা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মাসুদ রানা, সরকারি ইস্পাহানি ডিগ্রী কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি শাহজালাল অপু।

এসময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে শাহীন আহমেদ বলেন, ঘাতকরা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার মাধ্যমে বাঙ্গালির ভাগ্যকে ৩০ বছর পিছনে ফেলে দিয়েছে। দেশ স্বাধীন হওয়ার পর তিনি যে স্বপ্ন দেখে ছিলেন তার কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নে ভূমিকা রেখে চলছে। এসময় তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ষড়যন্ত্রের স্বীকার হয়েছেন মহান প্রভুর অসীম কৃপায় আল্লাহ তাকে মানুষের সেবার জন্য বাচিয়ে রেখেছেন। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বিশ্বের দরবারে বাংলাদেশ মধ্যেমায়ের দেশে পরিচিতি অর্জন করেছে। বঙ্গবন্ধু মানে বাংলার ইতিহাস, শেখ হাসিনা মানে সোনার বাংলা বিনির্মানে ইতিহাস । বঙ্গবন্ধুর ও শেখ হাসিনার ইতিহাস বাদ দিলে চলবে না। তিনি ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য শাহীন আহমেদ বলেন, ১৯৪৮ সালের ৪ ঠা জানুয়ারী বঙ্গবন্ধুর হাতে গড়া সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। বাংলাদেশ ছাত্রলীগের তথা ছাত্র সংগঠনের ভূমিকা ছিল অপরিসীম। আপনাদের বঙ্গবন্ধুর ইতিহাস জানতে হবে, বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী সম্পর্কে জানতে হবে।

কেরানীগঞ্জ মডেল থানা ও ইস্পাহানি ডিগ্রী কলেজ ছাত্রলীগের উদ্যোগে খাদ্যসামগ্রী বিতরন

প্রকাশের সময় : ১২:২০:৫৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ১ সেপ্টেম্বর ২০২১

দেলোয়ার হোসেন,ঢাকা ব্যুরো ।।

কেরানীগঞ্জ মডেল থানা ও ইস্পাহানী কলেজ ছাত্রলীগ উদ্যোগে ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৬ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী, জাতীয় শোক দিবস ও ২১ আগস্ট গ্রেনেট হামলায় নিহতদের স্মরণে দুস্থ অসহায়ের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরন করা হয়েছে।

আজ ৩১ আগস্ট মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০ টায় কেরানীগঞ্জ মডেল থানার রোহিতপুর ইস্পাহানি ডিগ্রী কলেজ মাঠে এ খাদ্য সামগ্রী বিতরন করা হয়। কেরানীগঞ্জ মডেল থানা ছাত্রলীগের সভাপতি ইমাম হাসানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কেরানীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের আহবায়ক শাহীন আহমেদ।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা জেলা পরিষদ সদস্য ও ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক সোহরাব হোসেন খোকন, ঢাকা জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য এম. এ গফুর, ঢাকা জেলা পরিষদের সদস্য, ঢাকা জেলা আওয়ামী যুব মহিলা লীগের আহবায়ক শিলারা ইসলাম, তারানগর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন ফারুক, বাস্তা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান হাজী মোঃ আশকর আলী, শাক্তা ইউপি চেয়ারম্যান হাজি মোঃ সালাউদ্দিন লিটন, কাতিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ তাহের আলী, কালিন্দী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান হাজি মোঃ মোজাম্মেল হোসেন।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন মডেল থানা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মাসুদ রানা, সরকারি ইস্পাহানি ডিগ্রী কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি শাহজালাল অপু।

এসময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে শাহীন আহমেদ বলেন, ঘাতকরা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার মাধ্যমে বাঙ্গালির ভাগ্যকে ৩০ বছর পিছনে ফেলে দিয়েছে। দেশ স্বাধীন হওয়ার পর তিনি যে স্বপ্ন দেখে ছিলেন তার কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নে ভূমিকা রেখে চলছে। এসময় তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ষড়যন্ত্রের স্বীকার হয়েছেন মহান প্রভুর অসীম কৃপায় আল্লাহ তাকে মানুষের সেবার জন্য বাচিয়ে রেখেছেন। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বিশ্বের দরবারে বাংলাদেশ মধ্যেমায়ের দেশে পরিচিতি অর্জন করেছে। বঙ্গবন্ধু মানে বাংলার ইতিহাস, শেখ হাসিনা মানে সোনার বাংলা বিনির্মানে ইতিহাস । বঙ্গবন্ধুর ও শেখ হাসিনার ইতিহাস বাদ দিলে চলবে না। তিনি ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য শাহীন আহমেদ বলেন, ১৯৪৮ সালের ৪ ঠা জানুয়ারী বঙ্গবন্ধুর হাতে গড়া সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। বাংলাদেশ ছাত্রলীগের তথা ছাত্র সংগঠনের ভূমিকা ছিল অপরিসীম। আপনাদের বঙ্গবন্ধুর ইতিহাস জানতে হবে, বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী সম্পর্কে জানতে হবে।